টেকনাফে বিজিবির পৃথক অভিযানে ৭০হাজার ইয়াবা উদ্ধার : আটক-১

t11y-1.jpg

হুমায়ূন রশিদ,টেকনাফ(১১ জানুয়ারী) :: টেকনাফে বিজিবি জওয়ানেরা পৃথক অভিযান চালিয়ে ৭০ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি ও রিক্সাসহ চালককে আটক করেছে।

১১জানুয়ারী সকাল সাড়ে ১১টারদিকে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের হ্নীলা বিওপির বিশেষ টহল দলের নায়েক মনিরুল ইসলাম ইয়াবার চালান পাচারের নিজস্ব গোয়েন্দা সংবাদের ভিত্তিতে টহল দল নিয়ে হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়ার অভিযান চালিয়ে ৯হাজার ৫শ ৭৮পিস ইয়াবাসহ জাদিমোরাস্থ নয়াপাড়ার মোহাম্মদ কালা চাঁনের পুত্র রিক্সা চালক মোহাম্মদ আইয়ুব (২৬)কে রিক্সা ও একটি মোবাইলসহ আটক করে।

আটক ব্যক্তিকে সংশ্লিষ্ট মাদক মামলায় টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।একইদিন দুপুর আড়াইটায় টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আবুজার আল জাহিদ ইয়াবার চালান পাচারের খবর পেয়ে পূর্ব পানখালী এলাকায় অভিযানে যায়।

একটি টিলা পাহাড় থেকে ২/৩জন লোক একটি পলিথিনের ব্যাগ নিয়ে আসার সময় বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে পুটলাটি ফেলে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল হতে পুটলাটি উদ্ধার করে ব্যাটালিয়ন সদরে নিয়ে গণনা করলে ৯০লক্ষ টাকা মূল্যমানের ৩০হাজার ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। তা পরবর্তীতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে ধ্বংস করার জন্য ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে।

এর আগে গত১০জানুয়ারী ভোররাত সাড়ে ৩টারদিকে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ আবুজার আল জাহিদ ইয়াবার চালান আসার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাবরাং বিওপির বিশেষ টহল দল নিয়ে সাবরাং মগপাড়ার সুপারী বাগানে অবস্থান নেয়।

এসময় ৩/৪জন লোক আসতে দেখে বিজিবি জওয়ানেরা চ্যালেঞ্জ করলে একটি পুটলা ফেলে পালিয়ে যায়। বিজিবি টহল দল ঘটনাস্থল তল্লাশী করে একটি পুটলা উদ্ধার করে। যা ব্যাটালিয়ন সদরে নিয়ে গণনা করে ৯০লক্ষ টাকা মূল্যমানের ৩০হাজার ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে। তা পরবর্তীতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে ধ্বংস করার জন্য ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে।

সম্প্রতি সীমান্ত পরিস্থিতি আতংকিত হয়ে উঠার পরও টেকনাফের সাবরাং, নয়াপাড়া, মৌলভীপাড়া, নাজিরপাড়া, শীলবনিয়াপাড়া, জালিয়াপাড়া, নাইট্যংপাড়া, হ্নীলার উত্তর জাদিমোরা, নয়াপাড়া, লেদা, আলীখালী, রঙ্গিখালী, পূর্ব-পশ্চিম সিকদারপাড়া, হ্নীলা ফুলের ডেইল, বাজারঘাট, সুলিশপাড়া, বৃহত্তর পানখালী, মৌলভীবাজার, খারাংখালী, মহেশখালীয়াপাড়া, সাতঘরিয়াপাড়া, নয়াবাজার, মিনাবাজার, ঝিমংখালী, নয়াপাড়া, কাঞ্জরপাড়া, লম্বাবিল, হোয়াইক্যং কোনারপাড়া, খারাংগ্যাঘোনা, উলুবনিয়া, তুলাতলী, মনিরঘোনার চিহ্নিত আবারো নতুন রূপে আর্বিভূত হয়ে অবৈধ কর্মকান্ডের এসব অপতৎপরতা চালাচ্ছে বলে বিভিন্ন সুত্র থেকে অভিযোগ উঠার পাশাপাশি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন হাতে-নাতে ইয়াবাসহ আটক করতে সক্ষম হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top
error: কপি করা নিষেধ!!