Home কক্সবাজার টেকনাফে হাকিম ডাকাতের আস্তানা থেকে পালিয়ে আসা যুবক পুলিশ হেফাজতে

টেকনাফে হাকিম ডাকাতের আস্তানা থেকে পালিয়ে আসা যুবক পুলিশ হেফাজতে

94
SHARE

হুমায়ূন রশিদ,টেকনাফ(১ ফেব্রুয়ারী) :: টেকনাফে বিভিন্ন অপরাধের রাজা খ্যাত রোহিঙ্গা বনদস্যু ডাকাত হাকিম বাহিনীর হাতে অপহরণের শিকার যুবক কৌশলে পালিয়ে এসেছে। ফিরে আসা যুবক আপাতত পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

জানা যায়, ১ফেব্রুয়ারী সকাল ১০টারদিকে টেকনাফ পৌর এলাকার নাইট্যং পাড়া পাহাড়ী জনপদ পয়েন্ট দিয়ে স্থানীয় মোঃ কাশেমের পুত্র নুরুল আবছার (১৮) নিজ বাড়িতে ফিরে আসে।

আলোচিত ডাকাতের আস্তানা থেকে শেকলসহ জীবিত ফিরে আসার ঘটনায় স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে চরম কৌতুহলের সৃষ্টি হয়। এই খবর টেকনাফ থানা পুলিশ অবহিত হলে ঘটনার বিবরণ জানাতে ফিরে আসা যুবককে টেকনাফ মডেল থানায় নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য গত ৩১ জানুয়ারী রাত ৯টারদিকে মামলা মোকর্দ্দমার জেরধরে টেকনাফে বিভিন্ন অপকর্মের হোতা আরএসও নেতা ডাকাত আব্দুল হাকিমের নেতৃত্বে স্বশস্ত্র একদল দূবৃর্ত্তদল নাইট্যং পাড়া মোঃ কাশেমের বাড়িতে গিয়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পুত্র নুরুল আবছার (১৮) কে অপহরণ করে পাহাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ব্যাপক মারধর করার পর শেকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে রাখে এবং মোটাংকের টাকা মুক্তিপণ দাবী করেন।

সকালে পায়খানা-প্রশ্রাব করার কথা বললে তাকে শেকলে বাঁধা অবস্থায় জঙ্গলের এক পাশে নিয়ে প্রাকৃতিক ক্রিয়া ছাড়ার জন্য বসিয়ে দিয়ে অপহরণকারীরা একটু আড়ালে গিয়ে দাড়ায়। তখন সে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জঙ্গলের পথ বেয়ে কোন প্রকারে বাড়িতে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছে।

গত বছর এই হাকিম বাহিনী নুরুল আবছারের বড় ভাই তোফাইলকে অপহরণ করে গুম করে ফেলে। নিখোঁজ তোফাইলের মামা মোঃ জহির বাদী হয়ে এই ব্যাপারে মামলা দায়ের করলে বার্মাইয়া ডাকাত হাকিম বাহিনী বেপরোয়া হয়ে উঠে।

মামলা তুলে না নিলে আরো লাশ ফেলার হুমকি দিয়ে বেড়ায়। এরই জেরধরে এই ঘটনার সুত্রপাত বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে শেকলসহ পাহাড়ে বন্দিদশা থেকে ফিরে আসা যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় রাখা হয়েছে। পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ শেষে তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে টেকনাফ মডেল থানার ওসি মোঃ মাইন উদ্দিন খান সাংবাদিকদের জানান।

এদিকে স্বশস্ত্র প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত আরএসও নেতা বনদস্যু ডাকাত আব্দুল হাকিম বিশেষ মহলের ছত্র-ছায়া নিয়ে স্বশস্ত্র দস্যু বাহিনী গঠন করে খুন,গুম,অস্ত্র বাণিজ্য,লুঠ,মুক্তিপণ, ডাকাতি ও ইয়াবা চোরাচালানসহ নানা অপরাধ করে আসছে।

পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাবসহ আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা বনদস্যু হাকিম ডাকাতের আস্তানায় একাধিক অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ কয়েকজনকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করলেও বিপদজনক রোহিঙ্গা ত্রাস আব্দুল হাকিম যাকাত ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকায় টেকনাফ সদর ও পৌর এলাকার বেশীর ভাগ মানুষ চরম আতংকে রাতযাপন করে আসছে।

SHARE