Home কক্সবাজার পেকুয়ায় মামলার বাকবিতন্ডা, সোনালী বাজারে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

পেকুয়ায় মামলার বাকবিতন্ডা, সোনালী বাজারে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

65
SHARE

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(২ ফেব্রুয়ারী) :: পেকুয়ায় সোনালী বাজারে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। মামলার বিষয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এর সুত্র ধরে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের মটকাভাঙ্গা এলাকায় স্থানীয় দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। গত ১ ফেব্রুয়ারী রাত রাত সাড়ে ৮ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় প্রতিপক্ষের হামলায় সোনালী বাজারের ১ জন বাঁশ ব্যবসায়ী আহত হয়েছে বলে স্থানীয় সুত্র নিশ্চিত করেছে। আহত ব্যক্তির নাম মকছুদ আহমদ প্রকাশ ফকির(৪৬)। তিনি মটকাভাঙ্গা এলাকার মৃত শামশুল আলমের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, পেকুয়া থানায় সম্প্রতি একটি ঘরপোড়া মামলা রেকর্ড হয়। গত ১৫/২০ দিন আগে কাঁকপাড়ায় সাবেক চেয়ারম্যান ইউনুছের রান্নাঘর ভস্মীভূত হয়। এ ঘটনায় তার ভাই ছরওয়ার আলম বাদী হন। পেকুয়া থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলায় মকছুদের ভাই তৌহিদুল ইসলামকেও আসামী করে।

স্থানীয়রা জানায়, মুঠোফোনে তার কাছ থেকে টাকা দাবী করছিল পেকুয়ায় ক্ষমতাসীন দলের এক প্রভাবশালী নেতা। মামলার ভয় দেখিয়ে তার কাছ থেকে টাকা দাবী করে। পরবর্তীতে ঠিকই এ মামলায় তৌহিদ আসামী হয়েছেন।

সম্প্রতি উচ্চ আদালত থেকে অন্তবর্তী জামিন নেয় তৌহিদ। ঘটনার দিন সোনালী বাজারে এ নিয়ে রাগান্বিত হন মকছুদ। এ সময় মটকাভাঙ্গা এলাকার আহমদের ছেলে ছরওয়ার, তার ভাই হেলাল, নুরুল হকের ছেলে আক্তার কামালসহ মকছুদের সাথে কথাকাটাকাটি হয়।

তারা জানায়, মামলার অভিযোগ পত্র থেকে বাদ দেয়ার কথা বলে অপর প্রান্ত থেকে মুঠোফোন করে অজ্ঞাত লোকজন। এ নিয়ে তিনি উচ্চস্বরে বকাঝকা করছিলেন। এ সময় ওই ব্যক্তিরা ঝগড়ায় লিপ্ত হন মকছুদের সাথে। এক পর্যায়ে তারা লাঠিসোটা নিয়ে তাকে ধাওয়া দেয়।

মকছুদ জানায়, তারা আমাকে প্রানে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। বাঁশ বিক্রির ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পেকুয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

 

SHARE