Home কক্সবাজার চকরিয়ায় ঘর ভাংচুরের ঘটনায় সাবেক পৌর কমিশনার জেলহাজতে

চকরিয়ায় ঘর ভাংচুরের ঘটনায় সাবেক পৌর কমিশনার জেলহাজতে

120
SHARE

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(৪ ফেব্রুয়ারি) :: চকরিয়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের ঘর ভাংচুরের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আদালত চকরিয়া পৌরসভার সাবেক পৌর কমিশনার লক্ষন কান্তি দাশকে কারাগারে পাঠিয়েছে।

রোববার মামলার ধার্য দিনে আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন জানালে বাদি পারবতী বালার নতুন একটি অভিযোগের প্রেক্ষিতে আদালতের বিচারক শুনানী শেষে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বাদি পক্ষের আইনজীবি চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের আইনজীবি মো.লুৎফুল কবির।

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে বাদি পার্বতী বালা চকরিয়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের হিন্দুপাড়া গ্রামের ক্রয়কৃত জায়গা বসতি নির্মাণ করে পরিবার নিয়ে শান্তিপুর্ণভাবে বসবাস করছিলেন। ওইসময় মামলার অভিযুক্ত আসামি লক্ষন দাশ সহ তার লোকজন হামলা চালিয়ে বাদির বাড়িটি ভাংচুর করে।

এ ঘটনায় স্থানীয় বিন্দু দাশের স্ত্রী পারবতী বালা দাশ বাদি হয়ে চকরিয়া থানায় একটি মামলা (জিআর মামলা ৪৯৪/১৬) দায়ের করেন। এতে আসামি করা হয় সাবেক কমিশনার লক্ষন দাশ ও তাঁর ভাই গোপাল দাশকে।

মামলার বাদি পারবতী বালা দাশ অভিযোগ করেছেন, তার মামলায় আদালত থেকে জামিন লাভের পর ফের এক নম্বর বিবাদি লক্ষন দাশ নানাভাবে হুমকি দিতে থাকে বসতঘরটি সেখান থেকে উচ্ছেদে।

সর্বশেষ ২০১৭ সালের ১৫ ও ১৬ ডিসেম্বর অভিযুক্তরা দুইদফা হামলা করে নতুন করে। এ ঘটনার বিষয়ে তিনি গতকাল ৪ ফেব্রুয়ারী মামলার ধার্য্য দিনে লিখিতভাবে আদালতকে অবহিত করেন।

আদালত সুত্র জানায়, মামলার শুনানীকালে বাদি পারবতী বালার নতুন একটি অভিযোগ আমলে নিয়ে আদালতের বিচারক শুনানীকালে আদালতে উপস্থিত জামিনে থাকা বিবাদি সাবেক কমিশনার লক্ষন দাশের জামিন বাতিল করে। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার বাদিসহ স্থানীয়রা জানিয়েছেন, জেলহাজতে যাওয়া আসামি লক্ষন দাশের বিরুদ্ধে শ^শানের জায়গা ও মন্দিরে হামলা, ভাংচুরসহ নানা অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

 

SHARE