Home কক্সবাজার নাইক্ষ্যংছড়িতে ধরপাকড় আতংকে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা আত্মগোপনে : ৫ নেতা গ্রেপ্তার

নাইক্ষ্যংছড়িতে ধরপাকড় আতংকে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা আত্মগোপনে : ৫ নেতা গ্রেপ্তার

90
SHARE

আব্দুল হামিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি(৭ ফেব্রুয়ারি) :: নাইক্ষ্যংছড়ি সদর থানা ও রামু উপজেলার গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে নাশকতার প্রতিরোধের পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াত এর ৫ নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে বিকেল ৫টা (৬ ফেব্রুয়ারি) মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা জামায়াতের আমীরসহ যুবদলের ৫ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো নাইক্ষ্যংছড়ি থানা জামায়াতের আমীর রফিক আহাম্মদ, জামায়াত নেতা জাকের আহাম্মদ, উপজেলা ছাত্রদলের সহ সভাপতি উজ্জল দাশ, যুবদলের সদস্য শিবলী ও বাইশারী ইউনিয়নের মৃত নুরুল হক চেয়ারম্যানের পুত্র এতেশামুল হক মানিক ।

সুত্রে জানাযায়, গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ী পুলিশ গত মঙ্গলবার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা জামায়াত আমীর রফিক আহম্মদকে আটক করা হয়।

আর এদিকে গত (৫ ফেব্রুয়ারি) সোমবার দুপুর আড়াইটায় উপজেলা জামায়াত নেতা জাকির আহম্মদকে এবং ছাত্রদলের সহ সভাপতি উজ্জল দাশ ও যুবদল নেতা শিবলীকে রাত ২টায় এবং বাইশারীতে অভিযান চালিয়ে রাত সাড়ে ৩টায় এতেশামুল হক মানিককে আটক করে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশ ।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি মোঃ আলমগীর শেখ আটকের কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, সন্ত্রস ও নাশকতা প্রতিরোধ লক্ষে মূলত আমাদের এই অভিযান। এলাকায় অপ্রীতিকর কোন ধরনের ঘটনা যেন না হয় এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেন বিঘন্ন না ঘটে সে লক্ষ্যে এই চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে। ,

গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ কাজী মোঃ আরিফ উদ্দীন জানান, উপজেলা জামায়াত আমীর রফিক আহম্মদকে গর্জনিয়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে তদন্ত সাপেক্ষে মামলা প্রস্তুত করা হবে।

এই আটকের বিষয়ে জামায়াত বিএনপি নেতারা কোন সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে নারাজ।

অপর দিকে গ্রেপ্তার আতংকে পুরো নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বিএনপি-জামায়াতের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীরাও আত্মগোপনে রয়েছে। এদিকে পুলিশের বিশেষ অভিযানও অব্যাহত রয়েছে।

SHARE