Home কক্সবাজার কক্সবাজারে ফিস্টুলা রোগ নির্মূলে করণীয় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

কক্সবাজারে ফিস্টুলা রোগ নির্মূলে করণীয় শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

99
SHARE

প্রেস বিজ্ঞপ্তি(৯ ফেব্রুয়ারি) ::ফিস্টুলা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মিডিয়া লিডার্স ওয়ার্কশপ অন ফিস্টুলা কমিউনিকেশন শীর্ষক একটি কর্মশালা ৯ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার হোটেল সী-গ্যালের সমাবেশ হলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আন্তর্জাতিক উন্নয়ণ সংস্থা এনজেন্ডারহেলথ-এর ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রকল্প ইউএসএইড-এর অর্থায়নে এই কর্মশালা আয়োজন করে।

কর্মশালায় ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রকল্পের দেশীয় ব্যবস্থাপক ডা. শেখ নাজমুল হুদা জানান, বাংলাদেশে মহিলাজনিত ফিস্টুলা এখানে একটি উল্লেখযোগ্য নারীর স্বাস্থ্য সমস্যা। ফিস্টুলা আক্রান্ত মহিলাদের প্রসবের রাস্তা দিয়ে সব সময় প্রস্রাব বা পায়খানা বা উভয়ই ঝরতে থাকে।

তিনি জানান,বর্তমানে বাংলাদেশে শুধুমাত্র প্রস্রাব ঝরা ফিস্টুলায় ভুগছেন প্রায় ১৯,৫০০ জন নারী। এর বাইরেও হাজার হাজার নারী রয়েছেন যাদের প্রসবের রাস্তা দিয়ে পায়খানাও ঝরে। বাধাগ্রস্থ প্রসবের ফলে এ ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে।তাই ‘প্রসবকালীন ফিস্টুলা রোগ নিয়ে ভয়ের কোন কারণ নেই। এ রোগ সম্পূর্ণ নিরাময়যোগ্য।

২০০৩ সাল থেকে দেশের ১০টি সরকারী হাসপাতালের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি বে-সরকারী হাসপাতালে ফিস্টুলা রোগের চিকিৎসা চলছে । প্রতিটি হাসপাতালে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গড়ে তোলা হয়েছে দক্ষ জনবল। ইতোমধ্যে এ রোগে আক্রান্তদের শতকরা ৪০ ভাগ রোগীকে সম্পূর্ণ সুস্থ করা সম্ভব হয়েছে। অধিকতর সচেতনতা, প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে কুসংস্কার দূর করা সম্ভব হলে ফিস্টুলা রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।’

কর্মশালায় হুদা আরো জানান, ফিস্টুলা রোগে আক্রান্তরা বিবাহ বিচ্ছেদ, আত্মহত্যা সামাজিকভাবে লাঞ্ছনার শিকার হয়ে সমাজ থেকে বিচ্যুত হয়ে পড়েন। অথচ একটু সচেতন হলে এ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এর জন্য দরকার ১৮ বছরের আগে মেয়েদের বিয়ে না দেয়া, অধিক সন্তান জম্ম না দেয়া, প্রসবকালীন সময়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের পরামর্শ নেয়া ও দক্ষ দাই বা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিরাপদভাবে প্রসব করানো।

কর্মশালায় মহিলাজনিত ফিস্টুলা প্রতিরোধ করার জন্য গণমাধ্যমের ভুমিকা তুলে ধরা হয়। মহিলাজনিত ফিস্টুলা প্রতিরোধ করা কঠিন নয়। গর্ভবতী মহিলাদের যদি নিয়মিত স্বাস্থ্যসেবা নেন, বিশেষ করে বাধাগ্রস্থ প্রসবের ক্ষেত্রে অতিসত্তর হাসপাতালে যান তাহলে ফিস্টুলা হবার সম্ভাবনা কমে যায়।

কর্মশালায় অংশগ্রহনকারী সাংবাদিকদের মহিলা জনিত ফিস্টুলা প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করে তোলাতে তাদের লিখনি শক্তিশালা করার আহবান জানানো হয়। ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রকল্প মহিলাজনিত ফিস্টুলা প্রতিরোধের জন্য দেশের ২০০ কমিউনিটি ক্লিনিক কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মীরা চারটি সাধারণ প্রশ্ন করে সহজে ফিস্টুলা নির্ণয়ে দক্ষতা লাভ করে যাচ্ছেন। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রনালয়ের নিদের্শনায় আগামী বছরগুলোতে এই কর্মসূচি সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে দেয়া যাবে বলে কর্মশালায় জানানো হয়।

কর্মশালায় নিউইর্য়ক থেকে প্রধান অতিথি ছিলেন ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস, এনজেন্ডারহেলথ-এর গ্লোবাল প্রজেক্ট ম্যানেজার মিস বেথানী কোল, বিশেষ অতিখি ছিলেন ফিস্টুলা কেয়ার প্লাসের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টিটিভ ডা. বুশরা আব্বাসী।

কক্সবাজারের বিভিন্ন জাতীয় সংবাদপত্র, টেলিভিশন, অনলাইন ভিত্তিক নির্বাচিত ১৬জন  সাংবাদিক কর্মশালায় অংশ গ্রহন করেন। অংশগ্রহনকারীগণ কক্সবাজারের ফিস্টুলা কেয়ার প্লাস প্রকল্পের কর্মসূচী সম্প্রসারণ করার আহ্বান জানান।

SHARE