Home ইতিহাস সাত লাখ বছর আগের পাথুরে অস্ত্রের সন্ধান

সাত লাখ বছর আগের পাথুরে অস্ত্রের সন্ধান

194
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(৩ মে) :: প্রায় দশ লাখ বছর আগে পৃথিবীতে মানুষের আগমন ঘটেছিল। তবে ঐ সময়ের মানুষ আর এখনকার মানুষের মধ্যে রয়েছে বিস্তর পার্থক্য। প্রাগৈতিহাসিক এবং আদিম যুগেরও অনেক আগে থেকে মানুষ পৃথিবীর বুকে নিজের অস্তিত্বের আঁচড় আঁকতে শুরু করেছিল।

একেবারে প্রথম দিকের মানুষের সঠিক ইতিহাস নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি রয়েছে। এ কারণেই প্রথম দিকের মানুষের ইতিহাস সম্পর্কে মানুষের কৌতুহলটাও একটু বেশি।

এবার ফিলিপাইনের একটি দ্বীপে এমন কিছু নমুনার সন্ধান মিলেছে যা কিনা সাত লাখ বছর পুরনো। আর সব থেকে অবাক করার তথ্য হচ্ছে, সাত লাখ বছর পুরনো যে পাথুরে হাতিয়ারগুলো ফিলিপাইনের দ্বীপ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে সেগুলো ব্যবহার করতো মানুষ! অর্থাত্ এই অঞ্চলে সাত লাখ বছর আগেও মানুষের অস্তিত্ব ছিল।

ফিলিপাইনের লুজন আইল্যান্ড থেকে উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কিছু পাথুরে হাতিয়ার। সেই হাতিয়ার দিয়ে ঐ সময়ে হত্যা করা হতো গণ্ডারসহ বিভিন্ন ধরনের বন্য প্রাণি। পাথুরে হাতিয়ারগুলোর পাশাপাশি ঐ জায়গা থেকে গণ্ডারের হাড়ও উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের সময় গণ্ডারের হাড়গুলো যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য মাটি থেকে সেগুলো তুলতে ব্যবহার করা হয়েছে বাঁশের লাঠি।

গবেষকরা বলছেন, সাত লাখ বছর পুরনো হাতিয়ারগুলো মানব ইতিহাস উন্মোচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তবে এতো আগে কারা এগুলো তৈরি করেছিল সেটি বিস্ময়কর।

গবেষকরা গণ্ডারের হাড়গুলো দেখে বলছেন, ধারণা করা হচ্ছে, এগুলোর বয়স ছয় লাখ ৩১ হাজার বছর থেকে সাত লাখ ৭৭ হাজার বছরের মধ্যে। তবে গড় হিসেব ধরলে তা সাত লাখ ৯ হাজার বছরের মতো হবে।

এর আগে ৬৭ হাজার বছর পুরনো মানুষের ইতিহাসের প্রমাণ মিলেছিল ফিলিপাইনে। আগের তথ্যের চেয়ে প্রায় দশগুন আগের সময়ের এই নমুনা তাই বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

ফ্রান্সের ন্যাশনাল মিউজিয়ামের ন্যাচারাল হিস্ট্রির প্রত্নতত্ত্ববিদ থমাস ইনজিক্কো বলেন, মানুষের পদচিহ্নের এতো পুরনো নমুনা সত্যিই বিস্ময়কর এক ঘটনা।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক 

SHARE