Home কক্সবাজার চকরিয়ায় প্রেমিক যুগল আটক

চকরিয়ায় প্রেমিক যুগল আটক

98
SHARE

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(৯ মে) :: চকরিয়ায় আবাসিক হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে রুম নিয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে প্রবাসীর স্ত্রীসহ দুই প্রেমিক যুগলকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় উৎসুক জনতা।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মালুমঘাট ষ্টেশনের মুজিব বোডিং নামের আবাসিক হোটেল থেকে ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের নেতৃত্বে স্থানীয় জনতার সহায়তায় ওই প্রেমিক যুগলকে হাতে-নাতে আটক করা হয়।

পরে বিষয়টি চকরিয়া থানার ওসি’কে জানানো হলে তাঁর নির্দেশে থানার এসআই আবদুল খালেক সহ পুলিশদল ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রেমিক যুগলকে থানায় নিয়ে যান।

বুধবার সকালে পুলিশ তাদেরকে উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতে প্রেরণ করেন। অপরাধ স্বীকার সাপেক্ষে আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট ও চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরউদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমান অভিযুক্ত প্রেমিক যুগলদেরকে সংশ্লিষ্ট আইনে অর্থ জরিমানা করে ছেঁেড় দেন।

আটক প্রেমিক যুগল হলেন, চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের (রসুলাবাদ) এলাকার প্রবাসীর স্ত্রী (২৫), একই এলাকার আহমদ হোসেনের ছেলে রুহুল আমিন(৩০)।

অপর জুটি হলেন চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার নুরুল ইসলামের মেয়ে আয়না আক্তার (১৫), একই উপজেলার আমিরাবাদ চৌধুরী পাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে মোহাম্মদ ইউনুছ (২৩)।

তাদেরকে জরিমানা করার পর আদালত ছেঁেড় দেন বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভিযানে অংশনেয়া চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত অপারেশন অফিসার এসআই আবদুল খালেক।

স্থানীয় সূত্রে অভিযোগে জানাগেছে, আটক প্রেমিক যুগল চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের তৈইল্যা কাটা এলাকার আহমদ হোসেনের ছেলে রুহুল আমিনের সাথে প্রতিবেশি প্রবাসীর স্ত্রী দু’সন্তানের জননী রুমা আক্তার স্বামী প্রবাসে থাকার সুবাধে দীর্ঘদিন ধরে শ্বশুর বাড়ির লোক চক্ষুর আড়ালে পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে প্রেম করে আসছিলেন।

প্রেমিক রুহুল আমিন স্থানীয় মুদির দোকানদার। অন্যজনের স্ত্রীর সাথে অবৈধ মেলামেশা ও অনৈতিক কর্মকান্ড দেখে সাম্প্রতিক সময়ে রুহুল আমিনকে তার পরিবারের লোকজন বিবাহ করায়। কিন্তু প্রেমিকা রুমাকে ফাঁদে আটকিয়ে প্রেমিক রুহুল আমিন ঘরে নতুন বউ থাকার পরও প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে অবৈধ মেলামেশা চালিয়ে যেতে তাকে।

এলাকাবাসি জানায়, রহুল আমিন ও রুমা আক্তারের অনৈতিক ঘটনা নিয়ে ইতোমধ্যে এলাকায় বেশ ক’বার শালিস বৈঠকও হয়েছে। এসবের পরও সর্বশেষ তাঁরা মঙ্গলবার দুপুরে মালুমঘাটস্থ আবাসিক হোটেল মুজিব বোডিংয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে রুম নিয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়। ওইসময় খবর পেয়ে ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ নুরুল আমিন স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় হোটেল থেকে তাদেরকে আটক করে।

ওইসময় হোটেলের অপর একটি কক্ষ থেকে আটক করা হয় লোহাগাড়া উপজেলার অপর প্রেমিক যুগলকে। তবে ওইসময় হোটেল মালিক ও ম্যানেজার কৌশলে পালিয়ে যায়।

SHARE