Home কক্সবাজার নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের নতুন ভবন নির্মান কাজের উদ্বোধন

নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের নতুন ভবন নির্মান কাজের উদ্বোধন

101
SHARE

আব্দুল হামিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি(১৬ মে) :: পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে।

বুধবার সকাল ১১টায় নাইক্ষ্যংছড়ি-রামু সড়কের থানা মসজিদ সংলগ্ন সড়কের দক্ষিন পার্শ্বে নির্ধারিত জমিতে প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম সরওয়ার কামাল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভবন নির্মাণের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ শফি উল্লাহ, প্রেসক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা মাঈনুদ্দিন খালেদ, উপদেষ্টা ও নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী, উপজেলা আ’লীগ সাধারন সম্পাদক মোঃ ইমরান মেম্বার, প্রেসক্লাব সভাপতি শামীম ইকবাল চৌধুরী, সিনিয়র সহ সভাপতি (অব:) সেনা সার্জেন্ট আব্দুল হামিদ, যুগ্ন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম কাজল, অর্থ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী, ক্রীড়া সম্পাদক আব্দুর রশিদ, সহ ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ শাহিন, নির্বাহী সদস্য মুফিজুর রহমান, সদস্য মাহমুদুল হক বাহাদুর, মোঃ তৈয়ব উল্লাহ প্রমুখ।

পার্বত্য বান্দরবান জেলা পরিষদের অর্থায়নে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স সাঙ্গু ওয়ে, বান্দরবান ৩০ লক্ষ টাকা ব্যায়ে প্রেসক্লাব ভবনের কাজটি সম্পন্ন করার দায়িত্বে রয়েছেন। উক্ত ভবন নির্মাণের জন্য পুরো জমিটি দান করেছেন প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক শফি উল্লাহ।

উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম সরওয়ার কামাল বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকদের জন্য একটি ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হওয়ায় তিনিও আনন্দিত।

তিনি সকল সাংবাদিকদের এলাকায় উন্নয়ন, দূর্ণীতি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নিয়ে বেশী বেশী লেখালেখী করে দেশকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নেওয়ার জন্য আহবান জানান।

এছাড়া প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক শফিউল্লাহ বলেন, মডেল নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা বিনির্মাণে সকল সাংবাদিককে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করে যেতে হবে। নাইক্ষ্যংছড়িকে পর্যটন নগরী হিসেবে তুলে ধরতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। তাই তিনি নাইক্ষ্যংড়ির অপরুপ সৌন্দর্য্য এবং প্রাকৃতিক নিদর্শনকে লেখনীর মাধ্যমে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে দেশ ও জাতির কল্যান কামনায় মোনাজাত করা হয়।

SHARE