Home খেলা ইউরোপা লিগ শিরোপা জিতল অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ

ইউরোপা লিগ শিরোপা জিতল অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ

112
SHARE

 কক্সবাংলা ডটকম(১৭ মে) :: আন্তোয়ান গ্রিয়েজমানের জোড়া লক্ষ্যভেদে ইউরোপা লিগের শিরোপা জিতেছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। লিওঁর ফাইনালে অলিম্পিক মার্শেইকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ২০১২ সালের পর ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতাটির শিরোপা আবারও ঘরে তুললো মাদ্রিদের ক্লাবটি।

বার্সেলোনায় যাওয়ার গুঞ্জনটা গত কয়েকদিন খুব বেশি শোনা যাচ্ছে গ্রিয়েজমানের। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর, ইউরোপা লিগ দিয়েই অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের জার্সিতে শেষ ফাইনাল খেলতে নামবেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। সে কারণেই কি শিরোপা জিততে এতটা মুখিয়ে ছিলেন তিনি? উৎসুক মানুষের মনে এই প্রশ্ন উদয় হলেও গ্রিয়েজমানের তাতে কান দেওয়ার সময় কোথায়! তিনি এখনও কতটা অ্যাতলেতিকোর, তার প্রমাণ খুব ভালোভাবেই পাওয়া গেয়ে লিওঁর ফাইনালে।

জয়ের নায়ক গ্রিয়েজমান করেছেন জোড়া গোলতার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সেই ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা প্রতিযোগিতাটির শিরোপা জিতেছে মাদ্রিদের ক্লাবটি। ২১ মিনিটে প্রথমবার লক্ষ্যভেদ করে অ্যাতলেতিকোকে এগিয়ে নেওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে আরও এক গোল করেন গ্রিয়েজমান। আর শেষ বাঁশি বাজার আগে গাবির লক্ষ্যভেদে বড় জয়ে শিরোপা নিশ্চিত হয় মাদ্রিদের ক্লাবটির।

শুরুটা মন্দ ছিল না মার্শেইয়ের। বল পজেশন ধরে রেখে অ্যাতলেতিকোকে সুবিধা করতে দেয়নি খুব একটা। তবে ২১ মিনিটে নিজেদের পায়ে নিজেরাই কুড়াল মারে তারা! গোলরক্ষকের কাছ থেকে পাওয়া বল জামবো আঁগুইসা ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ নিতে না পারলে চলে আসে গাবির কাছে। অ্যাতলেতিকো অধিনায়কের বাড়ানো পাস ২১তম মিনিটে ফাঁকা রক্ষণের সুবিধা কাজে লাগিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় গ্রিয়েজমান বল জড়িয়ে দেন জালে।

এগিয়ে যাওয়ার পর আক্রমণে গতি বাড়ে অ্যাতলেতিকোর। যদিও ১-০ গোলে এগিয়ে থাকার স্বস্তি নিয়েই শেষ করতে হয় প্রথমার্ধ। বিরতি থেকে ঘুরে আসার পর আক্রমণে কোনও ছেদ পড়েনি মাদ্রিদের ক্লাবটির। ফলও পেয়ে যায় দ্রুত, ৪৯ মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গ্রিয়েজমান। কোকের পাস ধরে বক্সের ভেতর থেকে চমৎকার চিপে নিজের সঙ্গে দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড।

প্রথম গোলের পর অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের উল্লাসওই ব্যবধান রেখেই খেলা শেষ করতে যাচ্ছিল অ্যাতলেতিকো। শিরোপার উৎসবও শুরু হয়ে গিয়েছিল গ্যালারিতে উপস্থিত সমর্থকদের মধ্যে। সেটা আরও রঙিন করেন গাবি। ৮৯ মিনিটে মার্শেইয়ের কফিনে শেষ পেরেক মেরে শিরোপা উৎসবটা আরও জমকালো করেন অ্যাতলেতিকো অধিনায়ক।

এবার দিয়ে ইউরোপা লিগের তৃতীয় শিরোপা জিতলো লা লিগার ক্লাবটি। এর আগে ২০১০ ও ২০১২ সালে তারা জিতেছিল ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতাটির শিরোপা।

আরও বেশি শিরোপা জিততে চান গ্রিয়েজমান

ফাইনালে মার্শেইকে হারিয়ে তৃতীয় ইউরোপা লিগ জিতেছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। জোড়া গোল করে বুধবারের এই ঐতিহাসিক জয়ের নায়ক আন্তোয়ান গ্রিয়েজমান। স্প্যানিশ সুপার কাপের পর ফুটবল ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় কোনও শিরোপা হাতে নিলেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। এমন সাফল্য আরও পেতে চান তিনি।

মার্শেইকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা উৎসবে উচ্ছ্বসিত গ্রিয়েজমান। এধরনের উৎসব আরও বেশি করে করতে চান তিনি। ২০১৪ সালে রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপ জেতা এই তারকা বলেছেন , ‘আমি ১৪ বছর বয়সে ঘর ছেড়েছি, কারণ আমি অনেক শিরোপা জিততে চেয়েছিলাম। স্প্যানিশ সুপার কাপের পর এটি দ্বিতীয় শিরোপা। আশা করি আরও অনেক বেশি আসবে।’

জোড়া গোলের সঙ্গে ৮৯তম মিনিটে গাবির গোলেও ছিল গ্রিয়েজমানের পরোক্ষ অবদান। অনায়াসে জিতলেও ২৭ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড প্রতিপক্ষকে খাটো করেননি, ‘মার্শেই আক্রমণাত্মক একটা দল। তারা অনেক খাটে। আমরা আমাদের কাজটা করেছি, ভালোভাবে প্রতিহত করেছি। তারা খুব কঠিন দল ছিল। তাদের ভুলের ফায়দা আমরা নিয়েছি।’

শোনা যাচ্ছে, ১০ কোটি ইউরো রিলিজ ক্লসে গ্রিয়েজমানকে চুক্তি করবে বার্সেলোনা। কিন্তু অ্যাতলেতিকোর জেনারেল ম্যানেজার ক্লেমেন্তে ভিয়াভেরদে তাকে না ছাড়তে সব চেষ্টা করা হচ্ছে জানালেন, ‘আন্তোয়ান দারুণ করছে, সেটা সে পরিষ্কার (বুধবার) করে বুঝিয়ে দিলো। এখানে তার চুক্তি আছে, আমরা তাকে রেখে দিতে চাই। আমরা সব চেষ্টা করছি এজন্য।’

গোল ডটকম

SHARE