Home কক্সবাজার পেকুয়ায় গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে আহত স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু : ছেলে লড়ছে মৃত্যু সাথে

পেকুয়ায় গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে আহত স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু : ছেলে লড়ছে মৃত্যু সাথে

176
SHARE
নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(২২ মে) :: পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নে গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে একই পরিবারের আহত তিন জনের মধ্যে স্বামী-স্ত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে তাদের শিশু পুত্র ওয়াহিদ নয়ন (১১) চমেক হাসপাতালে মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটফট করছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন নয়ন শংকামুক্ত নয়।
১৭ মে দিবাগত রাত ২ টার দিকে উজানটিয়া ইউনিয়নের পূর্ব উজানটিয়া পান্না পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, ওই দিন রাত ২ টার দিকে প্রথম রোজার সেহেরী খাওয়ার জন্য বাড়ির কর্তা হোসাইনের স্ত্রী দিলোয়ারা বেগম গ্যাসের দেয়াশলাই দিয়ে একটি চেরাগ জ্বালায়।
এ সময় গ্যাস সিলিন্ডারের ছিদ্র দিয়ে গ্যাস বের হচ্ছিল। দেয়াশলাই দিয়ে গ্যাসের চুলায় আগুন জ্বালানোর সময় গ্যাস সিলিন্ডারে আগুন ধরে যায়। আগুনের লেলিহান শিখা দাউ দাউ জ্বলতে থাকে। বাড়ির লোকজন আগুন নেভানোর চেষ্টা করলে আগুনে তিন জন দগ্ধ হয়। আহতরা হলেন হোসাইন(৩৫), তার স্ত্রী দিলোয়ারা বেগম(৩২), তাদের স্কুল পড়ুয়া ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র ওয়াহিদ নয়ন(১১)।
ওই এলাকার সাবেক মেম্বার সাদেকা বেগম, আবু আহমদ প্রকাশ সোনা মিয়া জানান, তারা নিতান্ত গরীব লোক। হোসাইন দুপুরে মারা যান। বিকেলে স্ত্রী দিলোয়ারা বেগমও স্বামীর পথ ধরে না ফেরার দেশে চলে যান। এদিকে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শোকের মাতান দেখা দেয়।
নয়নের কি হবে?
ওয়াহিদ নয়ন (১১) তাদের একমাত্র সন্তান। উজানটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্র। মা-বাবার আদরের ছেলে। এখন নয়নের কি হবে। কে দেখাশুনা করবে। বড্ড একা হয়ে গেল এ অবুঝ ছেলেটি। মা-বাবার সাথে তিনিও ওইদিন আগুনে দগ্ধ হয়েছিলেন। বর্তমানে নয়ন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়ছে।
এখনো নয়ন জানেনা তাকে একা রেখে তার বাবা,মা না ফেরার দেশে চলে গেছেন। অসাধু গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসায়ীর কারনে এ করুন পরনতি হল। ঝরে গেলে দু’টি তাজা প্রান। প্রশাসন এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আদৌ কি কোন আইনি ব্যবস্থা নিবেন এ প্রশ্ন এখন এলাকাবাসীর।
SHARE