Home কক্সবাজার পেকুয়া মগনামার কাঁকপাড়া বেড়িবাঁধের কাজ শেষ

পেকুয়া মগনামার কাঁকপাড়া বেড়িবাঁধের কাজ শেষ

56
SHARE

মো: ফারুক,পেকুয়া(২৮ মে) :: অবেশেষ নিজ অর্থায়নে মগনামা ইউনিয়নের কাঁকপাড়াস্থ বেড়িবাঁধের কাজ শেষ করলেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

বরাদ্ধকৃত ঠিকাদার উন্নয়ন ইন্টারন্যাশনাল গাফিলাতি করে কাজ বন্ধ রাখলেও  উপকূলীয় এলাকাবাসীর দুঃখ দূর্দশা লাগবে ইউপি চেয়ারম্যান কাজটি দ্রুত করেছেন।

গত ২৩ মে বুধবার সকালে স্ক্যলাভেটর দিয়ে মাঠি কাটা ও জিউ টেক্সটাইল দিয়ে বাঁধ সংস্কারের কাজ শুরু করে ২৮মে শেষ করেছেন।

চেয়ারম্যানের নিজ অর্থায়নে কাজ শেষ করায় স্থানীয় এলাকাবাসীরা সন্তোশ প্রকাশ করে দায়ী ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবী জানিয়েছেন।

জানা গেছে, পেকুয়া উপজেলার কুতুবদিয়া চ্যানেলের কূলবর্তি মগনামা ইউনিয়নের পাউবো নিয়ন্ত্রিত বেড়িবাঁধের কাকঁপাড়া পয়েন্টে গত ঘুর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে বিলীন হওয়া ৪০ চেইন বেড়িবাঁধ সংস্কার না করায় চরম আতঙ্কে দিনাপাত করছিল এলাকার ৩০ হাজার সাধারণ জনগণ।

বসতবাড়ি, জিনিসপত্র পুনরায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিরও আশঙ্কা রয়েছিল। এ বেড়িবাঁধ সংস্কার না করায় চরম হুমকির মুখে পড়েছিল কাকঁপাড়ার একটি আশ্রয় কেন্দ্র ও একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন।

সর্বশেষ চেয়ারম্যনের নিজ অর্থায়নে বাধ সংস্কার হওয়ায় এলাকাবাসী চেয়ারম্যানের কাজে সন্তোশ প্রকাশ করেছেন।

মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম জানান, কাকঁপাড়া এলাকার বেড়িবাঁধের অবস্থা খুবই নাজুক ছিল। সামনের বর্ষা মৌসুমে ভাঙ্গা ওই বেড়িবাঁধ পয়েন্ট দিয়ে আবারো সাগরের পানি প্রবেশ করে পুরো মগনামা ও উজানটিয়ার একটি অংশ প্লাবিত হওয়ার যতেষ্ট আশঙ্কা ছিল।

এতে মগনামা এলাকার একমাত্র ঘুর্ণিঝড় আশ্রয়ন কেন্দ্র ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ স্থানীয় বাসিন্দাদের অসংখ্য বসতঘর সাগরগর্ভে উপক্রম হয়েছে।

এছাড়াও হাজার হাজার একর মৎস্য প্রজেক্ট সাগরে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল।

তিনি বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে নেওয়ার জন্য পাউবোর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের কাছে জোরালো দাবি জানানোর পর কোন ধরণের সুরহা হয়নি।

উল্টো ঠিকাদারী প্রতিষ্টান তাদের কাজ বন্ধ করার চেষ্টা করে। সর্বশেষ সাধারণ জনগণের কথা চিন্তা করে কাঁকপাড়া বেড়িবাঁধের কাজ শুরু করে ২৭ সেইন মত বেড়িবাঁধের কাজ শেষ করেছে।

SHARE