Home কক্সবাজার চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের ইফতার মাহফিল

চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের ইফতার মাহফিল

99
SHARE

মুকুল কান্তি দাশ,চকরিয়া(২ জুন) :: আমার বিশ্বাস বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চকরিয়া-পেকুয়া আসনটি পুনরুদ্দারের জন্য আমাকে মনোনয়ন দেবেন। গতবারও আমাকে এই আসন থেকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। কিন্তু জোটগত কারণে নেত্রীর কথা রেখে আমি আমার মনোনয়ন প্রত্যাহার করি। আশাকরি এইবার আমার নেত্রী শেখ হাসিনা আমাকেই মনোনয়ন দেবেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় চকরিয়া পৌরশহরের একটি অভিজাত হোটেলে চকরিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের সম্মানে ইফতার মাহফিল পরবর্তী সাংবাদিকদের সাথে খোলামেলা আলোচনাকালে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যন আলহাজ্ব জাফর আলম এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, আমার শতভাগ বিশ্বাস রয়েছে এই আসন থেকে এইবার আমাকে মনোনয়ন দেবেন। কিন্তু আপনারা সাংবাদিকরা কেন এই কথাটি জোর দিয়ে লিখতে পারেননা। আপনাদের (সাংবাদিকরা) বিবেচনায় কে যোগ্য সেটি লেখনির মাধ্যমে তুলে দরুন। সরকারের গৃহীত পরিকল্পনায় জাইকার অর্থায়নে মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ হয়ে চকরিয়া বদরখালী থেকে ফাঁসিয়াখালীর হাঁসেরদীঘি পর্যন্ত যে সংযোগ সড়ক হওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে তা বাস্তবায়ন হলে পুরো চিত্র পাল্টে যাবে চকরিয়ার। এরফলে চকরিয়ার চিংড়ী ঘেরে চুরি-ডাকাতির যে সমস্যা রয়েছে তাও কমে যাবে। কারণে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী সহজেই চিংড়ী ঘেরগুলোতে অভিযান চালাতে পারবে।

আলোচনার এক ফাঁকে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুদ্দীর মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, কক্সবাজারের মধ্যে চকরিয়া একটি উন্নত উপজেলা। সবদিক দিয়ে এই উপজেলাটি উন্নত হলেও শিক্ষা হার খুবই কম। তাই আমাদের শিক্ষার বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখতে হবে।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যে চকরিয়ায় একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্টার জন্য ডিসি সাহেবকে আবেদন করেছি। ডিসি সাহেব আগামী ডিসি সম্মেলনের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন বলেও জানান। এসময় অত্র উপজেলায় শিক্ষা প্রসারে বিভিন্ন কর্মকান্ড হাতে নিয়েছেন বলেও জানান।

তিনি আরো বলেন, চকরিয়া উপজেলায় বর্তমানে যে পদ্ধতিতে চিংড়ী চাষবাদ হচ্ছে তা আধুনিকায়নের মাধ্যমে করা হলেই জাতীয় অর্থনীতিতে প্রতিবছর শত শত কোটি টাকা যোগান দেয়া সম্ভব।

ইউএনও’র কথা শেষ না হতেই উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম আবারো বলেন, আসন্ন নির্বাচনে বিএনপি নির্বাচন করলেও এই্ আসন থেকে নির্বাচন করার মতো বিএনপি থেকে তেমন প্রার্থী আছে বলে আমার মনে হয়না। আমার মনে হয় বিএনপি নেতা ও সাবেক মন্ত্রী সালাহউদ্দিন আহমদের প্রতি চকরিয়ার বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা অনেকটা হতাশ।

আওয়ামীলীগের স্থানীয় বেশ কয়েকজন নেতা দিনে আপনার সাথে রাত হলেই জাতীয় পার্টির এমপির সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেন এমন এক প্রশ্নের জবাবে জাফর আলম বলেন, আমার কাছে ছাটুকারদের কোন স্থান নেই। সে যতবড় নেতাই হোক। যে নেতা নিজের স্বার্থের জন্য নিজেকে বিসর্জন দিতে পাে সেদলের জন্য ক্ষতিকারক।

চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল মজিদের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম। ইফতার মাহফিলে প্রধান আলোচক ছিলেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান।

অনুষ্টানের প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম বলেন,পর্যটন নগরী কক্সবাজারের গেইটওয়ে চকরিয়া পৌরশহরে নির্মাণ করা হবে দৃষ্টিনন্দন ফ্লাইওভার। এছাড়াও পৌরশহরকে যানজটমুক্ত করতে চার লাইন বিশিষ্ট রাস্তা নির্মাণ করা হবে। এ কাজ বাস্তবায়ন করা হলেই পুরো চকরিয়ার চেহেরা পাল্টে যাবে। দীর্ঘ সময় ধরে চকরিয়া-পেকুয়ার জনগোষ্ঠী উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল।

যোগ্য নেতৃত্বের অভাবের কারণে আজ আমরা উন্নয়নের দিক দিয়ে অনেকাংশ পিছিয়ে।এ জনপদের মানুষ যদি একজন যোগ্য ব্যক্তিকে নির্বাচিত করে অভিভাবক মনোনীত করেন তাহলে দু:খ লাগবের পাশাপাশি উন্নয়নের ছোঁয়ায় পুরো চকরিয়া-পেকুয়া আলোকিত হবে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে মাধ্যমে দেশ উন্নয়নের মডেল হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে।

সরকারের ধারাবাহিকতা এ চলমান উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে ও দেশকে আত্মমর্যাদাশীল, উন্নয়ন, উৎপাদন ও সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্র পরিণত করতে শেখ হাসিনা সরকারের কোন বিকল্প নেই। তাই সাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ট লেখনির মাধ্যমে চকরিয়ার প্রকৃত চিত্র তুলে ধরার আহবান জানান তিনি।

অনুষ্টানের প্রধান বক্তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, চকরিয়া উপজেলায় বর্তমানে যে পদ্ধতিতে চিংড়ী চাষবাদ হচ্ছে তা আধুনিকায়নের মাধ্যমে করা হলেই জাতীয় অর্থনীতিতে প্রতিবছর শত শত কোটি টাকা যোগান দেয়া সম্ভব।

অনুষ্টানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া সাহারবিল আনওয়ারুল উলুম কামিল মাদ্রসার অধ্যক্ষ মাওলানা রুহুল কুদ্দুছ আনোয়ারি আল আজহারি, চকরিয়া প্রেস ক্লাবের উপদেষ্টা প্রবীন সাংবাদিক জাকের উল্লাহ চকোরী, প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা প্রবীণ সাংবাদিক এস এম সিরাজুল হক, চকরিয়া উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও এনজিও সমন্বয়ক মোহাম্মদ নোমান, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ এম ওমর আলী, চকরিয়া সংবাদপত্র এজেন্ট ও সাবেক পৌর কমিশনার জয়নাল আবেদীন, দৈনিক যুগান্তরের লামা প্রতিনিধি আবুল কালাম আজাদ।

এ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন, প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি রফিক আহমদ, সহ-সভাপতি জহিরুল আলম সাগর, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক মুকুল কান্তি দাশ, প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক একেএম বেলাল উদ্দিন, ক্রীড়া সম্পাদক জামাল হোছাইন, দপ্তর সম্পাদক এস এম হান্নান শাহ, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক এম রায়হান চৌধুরী, চকরিয়া প্রেস ক্লাবের সদস্য মোস্তফা কামাল, মাষ্টার শাহ মোহাম্মদ জাহেদ, দৈনিক পূর্বদেশ চকরিয়া প্রতিনিধি মো: ইকবাল ফারুক, দৈনিক যায়যায়দিন চকরিয়া প্রতিনিধি মনজুর আলম, বাংলাদেশ প্রতিদিনের চকরিয়া প্রতিনিধি জিয়া উদ্দিন ফারুক, সাংবাদিক এম.আলী হোসেন, নির্বাহী কমিটির সদস্য জমির হোসেন, আবদুল মতিন চৌধুরী,অলি উল্লাহ রনি,এম নুরুদ্দোজা জনিসহ প্রমুখ।

SHARE