Home মহাকাশ এলিয়েনদের অস্তিত্ব রয়েছে

এলিয়েনদের অস্তিত্ব রয়েছে

94
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(২৭ জুন) :: অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি৷ এলিয়ানদের অস্তিত্ব রয়েছে, এমনটাই মনে করছেন একদল গবেষক৷ প্রমাণও পেয়েছেন নাকি হাতেনাতে৷ সম্প্রতি বিষয়টি প্রকাশিত হয় আমেরিকার সংবাদপত্রে৷ মিলকি ওয়েতে থাকা তারার সংখ্যা প্রায় একশো বিলিয়নের মতো৷ ২০০৯ সালে নাসা কেপলার স্পেসক্রাফ্টটি নিয়ে আসা হয় দূরবর্তী তারাদের আশেপাশে থাকা গ্রহদের অস্তিত্ব জানাতে৷ ছ’টি বিষয় থেকে এটা আরও স্পষ্ট হবে।

১) ইউএফওর বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বিষয়টিকে স্বীকার করেছেন সরকার৷ ১৯৫২ সালে সাইকোলজিকাল স্ট্র্যাটাজি বোর্ড নামে একটি সিআইএ গ্রুপ যোগ করে, ইউএফও বিষয়ে আমেরিকানবাসী সবসময়ই আগ্রহ দেখিয়েছেন৷ আমেরিকানদের কৌতূহলকে আরও একধাপ বাড়িয়ে তোলার জন্য অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলটিকে৷ পরবর্তীকালে, সরকারকেও বিষয়টিতে আগ্রহ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে৷ গত ডিসেম্বরে পেন্টাগন সুনিশ্চিত করেছে মহাকাশে বেশ কিছু ভিনগ্রহীদের অস্তিত্বের কথা৷

২) হ্যারি রেইড বলেন, বিষয়টিতে আমরা অধিক গুরুত্ব দিচ্ছি না৷ তিনি শেয়ার করেন বব বিগলোর অভিজ্ঞতার কথা৷ বব বিগেলো ‘বিগলো স্পেস’-এর প্রতিষ্ঠাতা৷ ছোটবেলায় তিনি তার ঠাকুমার কাছে থেকে এই ধরণের গল্প শুনেছেন৷ যেখানে একটি অজানা যানকে আকাশে উড়তে দেখা গিয়েছিল৷ বব এখন একজন ধনী ব্যাক্তির তালিকায় নাম লিখিয়েছেন৷

৩) জোতির্বিদরা জানিয়েছেন, যারা বৈজ্ঞানিক বিষয়ে আগ্রহী নন তাঁরাও জানেন, এমন বহু গ্রহদের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে৷ গ্রহের সংখ্যা জানাতে গিয়ে এক বিজ্ঞানী রাস্তায় জলের কলের সংখ্যার সঙ্গে বিষয়টিকে তুলনা করেন৷ ভিনগ্রহের প্রাণীর অস্তিত্ব থাকা সম্ভব৷ এবিষয়ে আশাবাদী এবং আত্মবিশ্বাসী বিজ্ঞানীরা৷

৪) বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, প্রত্যেক পাঁচ থেকে ছয়টি গ্রহের মধ্যে দুটি বসবাসযোগ্য৷ নক্ষত্রটির কক্ষপথের পাশে গলডিলকস জোনে থাকতে হবে ওই গ্রহকে। পাথর থাকাও বাধ্যতামূলক৷ তবেই, প্রাণের সঞ্চার সম্ভব হবে গ্রহটিতে৷ এছাড়া, জায়গাটি খুব বেশি ঠান্ডা এবং গরম হলে চলবে না৷ জলের অস্তিত্ব থাকলে সেখানে প্রাণ থাকবে৷

৫) এলন মাস্ক মঙ্গল গ্রহকে বসবাসযোগ্য করে তোলার জন্য $২১ বিলিয়ন খরচ করেছেন৷ তাঁর সংস্থা SpaceX প্রাণপণ চেষ্টা করছে যাতে গ্রহ ভ্রমনের জন্য খরচ করানো সম্ভব হয়৷ তবে তার জন্য এক মিলিয়ন বসবাসকারীকে মঙ্গলে বসবাস শুরু করতে হবে৷

৬) পুরনো প্রসঙ্গ এনে নিক পোপ (প্রাক্তন মুখ্য ইউএফওর তদন্তকারী) বলেন, বেশ কিছু ব্যাক্তিদের নিয়োগ করা হয়েছে নির্দিষ্ট কাজের জন্য৷ যেখানে তাদের মূল দায়িত্ব থাকছে জনসাধারণের সুরক্ষা৷ আমাদের মহাকাশে অনুপ্রবেশকারীদের দুটি ডানা এবং একটি লেজ রয়েছে৷ তিনি চাকরি শুরু করেন এবং বেশ কিছু অবর্ণনীয় দিক তাকে প্রভাবিত করে৷ যার জন্য এলিয়নদের সঙ্গে যুদ্ধ চলছে এই বিষয়টির উপর জোর বাধ্য হন তিনি৷

SHARE