Home কক্সবাজার চকরিয়ার মাতামুহুরী নদীতে তিন ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার : তল্লাসি অভিযানে উপজেলা চেয়ারম্যান

চকরিয়ার মাতামুহুরী নদীতে তিন ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার : তল্লাসি অভিযানে উপজেলা চেয়ারম্যান

221
SHARE

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৪ জুলাই) :: চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে পাঁচ স্কুলছাত্র নিখোঁজ হয়েছে।

শনিবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলা সদরের চিরিঙ্গা পয়েন্টের মাতামুহুরী ব্রিজের নিচে ঘটেছে এ ঘটনা।

ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক চকরিয়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মী, উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ এবং স্থানীয় লোকজন নদীর দুই তীরে নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে তল্লাসি চালাচ্ছে।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীরা সকলে চকরিয়া গ্রামারস্কুলের ছাত্র। তাঁরা হলো স্কুলের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলামের ১০ শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে সায়ীদ জাওয়াদ অরবি, চকরিয়া আনোয়ার শপিং মার্কেট মালিক আলহাজ আনোয়ার হোসেনের দশম শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে আমিনুল হোসাইন এমশান, অস্টম শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র মেহরাব হোসেন, কানু ভট্টাচার্য্যরে দশম শ্রেণীতে পড়–য়া ছেলে তূর্য ভট্টাচার্য ও একই স্কুলের দশম শ্রেণীতে পড়–য়া অপর শিক্ষার্থী কাকারার মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো. ফারহান ।

তবে উদ্ধারকর্মীরা সন্ধ্যা সাতটার দিকে ঘটনাস্থলের একটু দুরে নদী থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী। তাঁরা হলেন আমিনুল হোসাইন এমশান, মেহরাব হোসেন, মো. ফারহান। ওসি বলেন, এখনো অন্যদের মরদেহ উদ্ধারে মাতামুহুরী নদীতে তল্লাসি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

চকরিয়া গ্রামার স্কুলের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম বলেন, স্কুলের অর্ধবার্ষিকী পরীক্ষা শেষে স্কুলের পাঁচ ছাত্র মাতামুহুরী নদীর চরে ফুটবল খেলতে যায়। ফুটবল খেলা শেষে তারা নদীতে গোসল করতে নামলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মাতামুহুরী নদীতে স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় জনগনের সাথে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) খোন্দকার ইখতেয়ার উদ্দিন আরাফাত, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু।

ঘটনাস্থলে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম বলেন, ঘটনার পরপর স্থানীয়দের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ ছাত্রদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে। কিন্তু কক্সবাজারে প্রশিক্ষিত কোনো ডুবুরি না থাকায় শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে আমরা উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে নৌবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কর্মকর্তাকে অবগত করেছি। আশাকরি প্রশিক্ষিত প্রশিক্ষিত ডুবুরি দল এসে পৌঁছালে রাতের মধ্যে নিখোঁজ সব শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের সন্ধানে তল্লাসি অভিযানে উপজেলা চেয়ারম্যান

চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে পাঁচ স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে তাদের সন্ধানে তল্লাসি অভিযানে নদীর দুই তীরে নেমেছেন চকরিয়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মী, উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ এবং স্থানীয় লোকজন। গতকাল বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মাতামুহুরী নদীতে স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় জনগনের সাথে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের সন্ধানে তল্লাসি অভিযান জোরদার করেন। পাশাপাশি নদীতে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের পরিবার পরিজনকে সমবেদনা জানান। ওইসময় তিনি ঘটনাটি তাৎক্ষনিক কক্সবাজার জেলা প্রশাসককে অবহিত করে ঘটনাস্থলে প্রশিক্ষিত ডুবুরী পাঠানোর জন্য আহবান জানান। এছাড়া রাত অবদি ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে উদ্ধার অভিযান তদারক করেন।

চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম বলেন, ঘটনার পরপর স্থানীয় জনগনের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ ছাত্রদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে। কিন্তু কক্সবাজারে প্রশিক্ষিত কোনো ডুবুরি না থাকায় শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে আমরা উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে নৌবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কর্মকর্তাকে অবগত করেছি। আশাকরি প্রশিক্ষিত প্রশিক্ষিত ডুবুরি দল এসে পৌঁছালে রাতের মধ্যে নিখোঁজ সব শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

উদ্ধার তৎপরতা অভিযানে অংশনেন চকরিয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) খোন্দকার ইখতেয়ার উদ্দিন আরাফাত, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী, পৌরভার কাউন্সিলর রেজাউল করিম, কাউন্সিলর মুজিবুল হক মুজিব।

এছাড়াও শিক্ষার্থীদের সন্ধানে উদ্ধার অভিযানে অংশনেন এলাকার হাজার হাজার জনসাধারণ। ওইসময় মাতামুহুরী নদীর চিরিঙ্গা ব্রীজের নীচে লোকারণ্যে পরিণত হয়।

SHARE