Home কক্সবাজার কক্সবাজারে ২৩হাজার রোহিঙ্গা শিশুকে অপুষ্টিজনিত রোগের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে সেভ দ্য চিলড্রেন

কক্সবাজারে ২৩হাজার রোহিঙ্গা শিশুকে অপুষ্টিজনিত রোগের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে সেভ দ্য চিলড্রেন

138
SHARE

বার্তা পরিবেশক(১৮ জুলাই) :: বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থ্যা সেভ দ্য চিলড্রেন কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকসাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাংলাদেশ সরকার এবং অন্যান্য সহযোগী সংস্থ্যার সাথে ১৪-১৯ জুলাই পর্যন্ত একযোগে “পুষ্টি কর্ম সপ্তাহ” উদযাপন করছে। পুষ্টি কর্ম সপ্তাহ আয়জনের মুল লক্ষ্য পাঁচ বছরের কম বয়সি শিশুদের অপুষ্টিজনিত রোগে আক্রান্ত পরিস্থিতি সনাক্তকরন ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করা।

প্রতি বছর বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় দুইবার এই আয়োজন করে থাকে বেসরকারি উন্নয়ন ও জাতিসংঘ ভিত্তিক সংস্থ্যাগুলোকে সাথে নিয়ে। বিগত বছর প্রথমবারের মত এই কার্যক্রমে বাংলাদেশে আসা নতুন রোহিঙ্গা শিশুদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়।সেভ দ্য চিলড্রেনের এই বছরের আয়োজনে কক্সবাজারে অবস্থিত ২৩০০০ রোহিঙ্গা শিশুকে অপুষ্টিজনিত রোগের সেবা প্রদান করবে।

এই কার্যক্রমকে সফল করতে প্রতি সপ্তাহে ৩৮০০ শিশুকে পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে জানায় সংস্থাটি।প্রথম পাঁচ দিনে ২ থেকে পাঁচ বছর বয়সী ১৫০০০ শিশুকে কৃমিনাশক খাওয়ানো হয়েছে। এছাড়াও প্রায় ১৪০০০ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো সম্পন্ন হয়েছে। সেভ দ্য চিলড্রেনের ১৫টি পুষ্টিকেন্দ্রে এই কার্যক্রম একযোগে চলছে।

পুষ্টি কর্ম সপ্তাহের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্ব আরোপ করে সংস্থাটির সিনিয়র নিউট্রিশন অ্যাডভাইসর, ক্যারোলিন চেইডো বলেন, “সেভ দ্য চিলড্রেনের মত উন্নয়ন সংস্থ্যাগুলো রোহিঙ্গা শিশুদের বিপদজনক স্বাস্থ্য ঝুকি মোকাবেলায় কাজ করে যাচ্ছে এবং এর মধ্যে অপুষ্টি অন্যতম এক সমস্যা। সাম্প্রতিক গবেষণায় পাওয়া গেছে যে কক্সবাজারে ক্যাম্পগুলোতে বসবাসরত রোহিঙ্গা শিশুদের প্রায় ৪০ শতাংশ শিশুই খর্বাকৃতির। যদিও বিগত অক্টোবরে এর সংখ্যা ছিল ৪৪ শতাংশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থ্যার রিপোর্ট অনুযায়ী গুরুতর স্বাস্থ্য সংকটের সীমা ধরা হয় ৪০ শতাংশকে, তাই এর হার কমানো অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন।“শিশুদের খর্বাকৃতি হওয়ার সাথে বুদ্ধিবৃত্তিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হওয়া সহ স্বাস্থ্যজনিত অন্যান্য অনেক সমস্যা জড়িত থাকে।এই শিশুদেরই আরও ঝুকি বৃদ্ধির আশংকা আছে চলতি বর্ষাকালের অতিবৃষ্টির সময়,এই সময়ে যে কোন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিতে পারে এবং এতে বিশেষ করে বেশি আক্রান্ত হবে শিশুরা।

তিনি আরও যোগ করেন,গত ১৪ জুলাই থেকে সহস্রাধিক শিশু, তাদের পরিবার সেভ দ্য চিলড্রেনের নিউট্রিশন সেন্টারগুলোতে এসে সেবা নিচ্ছে।এছাড়াও এখানে শিশুদের পুষ্টির লেভেল পর্যবেক্ষণ করে তাদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। এই পর্যবেক্ষণের মধ্যে শিশুদের বাহুর পরিধি পরিমাপন, উচ্চতা ও ওজন মাপা অন্তর্ভুক্ত থাকছে।

SHARE