Home জীবনযাত্রা কিশোর বয়সীদের স্মৃতিশক্তির ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে মোবাইল ফোন

কিশোর বয়সীদের স্মৃতিশক্তির ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে মোবাইল ফোন

125
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(২১ জুলাই) :: দ্রুত উন্নয়ন ঘটেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির। বিশেষ করে স্মার্টফোন প্রযুক্তির অগ্রগতি এক্ষেত্রে অনেক বড় মাইলফলক। কিন্তু এ অগ্রগতি অর্জনে মানবজাতিকে কিছুটা ক্ষতি তো স্বীকার করতেই হয়েছে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে এখনো করতে হচ্ছে।

মোবাইল ফোনসহ তথ্যপ্রযুক্তিসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পণ্যের কারণে দৈনন্দিন জীবনে এখন উচ্চমাত্রার রেডিওফ্রিকোয়েন্সি সম্পন্ন ইলেকট্রোম্যাগনেটিক ফিল্ডের (আরএফ-ইএমএফ) কাছাকাছি আমাদের অবস্থান করতে হচ্ছে আগের চেয়ে অনেক বেশি। বিশেষ করে মোবাইল ফোনের কারণে মানুষের মস্তিষ্ক এখন আরএফ-ইএমএফের অনেক কাছাকাছি চলে আসছে।

মানব মস্তিষ্ক ও দেহের ওপর আরএফ-ইএমএফের এ প্রভাব নিয়ে এখন পর্যন্ত বেশকিছু গবেষণা পরিচালিত হয়েছে। এ রকমই সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বয়ঃসন্ধিকালে অর্থাৎ কৈশোরে স্মৃতিশক্তির ওপর মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন বেতার যন্ত্রের আরএফ-ইএমএফের প্রভাব খতিয়ে দেখা হয়।

সুইস ট্রপিক্যাল অ্যান্ড পাবলিক হেলথ ইনস্টিটিউটের (সুইস টিপিএইচ) এ গবেষণায় দেখা গেছে, এক বছরের বেশি সময় ধরে মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণে কিশোর বয়সীদের স্মৃতিশক্তির সক্ষমতা হ্রাস পায়। ২০১৫ সালে প্রকাশিত এক গবেষণা নিবন্ধের ফলোআপ হিসেবে পরিচালিত গবেষণায় উঠে আসা ফল আগামী সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশের কথা রয়েছে।

বয়ঃসন্ধিকালে মস্তিষ্কের ওপর আরএফ-ইএমএফের সম্মিলিত প্রভাব নিয়ে সুইস টিপিএইচে গবেষণাটিই এখন পর্যন্ত প্রথম। ২০১৫ সালে এনভায়রনমেন্ট ইন্টারন্যাশনাল জার্নালে প্রকাশিত গবেষণা নিবন্ধটিতে এর চেয়ে দ্বিগুণ নমুনা নিয়ে প্রাথমিক পরীক্ষণ চালানো হয়।

নতুন গবেষণাটিতে দেখা যায়, কৈশোরে বা বয়ঃসন্ধিকালে এক বছরের বেশি সময় ধরে মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণে মস্তিষ্কে ফিগারাল মেমোরির গঠনে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। ফিগারাল মেমোরি মস্তিষ্কের ডানদিকে অবস্থিত। মূলত মোবাইল ফোনে কথা বলার সময়ই এ ধরনের ঝুঁকিতে পড়তে হয় কিশোর-কিশোরীদের।

কারণ এ সময় মোবাইল ফোন মস্তিষ্কের সবচেয়ে কাছাকাছি অবস্থানে থেকে আরএফ-ইএমএফ নিঃসরণ করতে থাকে। অন্যদিকে এসএমএস পাঠানো, গেম খেলা বা মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের সময়ও মস্তিষ্কের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে আরএফ-ইএমএফ। তবে সেলফোনে কথা বলার সময়কার তুলনায় তা একেবারেই কম।

 সায়েন্স ডেইলি

SHARE