Home শীর্ষ সংবাদ নিরাপদ সড়কের আন্দোলন : সহিংসতায় ২৭ মামলা, গ্রেফতার ১৬

নিরাপদ সড়কের আন্দোলন : সহিংসতায় ২৭ মামলা, গ্রেফতার ১৬

166
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(৬ আগষ্ট) :: নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের নয় দিনব্যাপী আন্দোলনের সময় রাজপথে গাড়ি ভাংচুর ও সহিংসতার ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় ২৭টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে মামলা হয়েছে পাঁচটি। মামলার আসামিদের মধ্যে ১৬ জনকে এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, যাত্রাবাড়ী, ধানমণ্ডি, নিউমার্কেট, পল্টন, ক্যান্টনমেন্ট ও উত্তরা পূর্ব থানায় দুটি করে এবং শাহবাগ, রামপুরা, তেজগাঁও, খিলক্ষেত, বিমানবন্দর ও কোতোয়ালি থানায় একটি করে মামলা হয়েছে। মতিঝিল থানায় মামলা হয়েছে ৩টি।

উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তা বলেন, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা গাড়ি ভাংচুর ও যানবাহনে অগ্নিসংযোগে জড়িত নয়। তাদের আন্দোলনের সুযোগ নিয়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহল জ্বালাও-পোড়াও করেছে। তাদের চিহ্নিত করা হবে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে আন্দোলনে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ। গ্রেফতাররা হলেন- মাহবুবুর রহমান আরমান (৩০), আলমগীর হোসেইন (২৭) ও সাইদুল ইসলাম (৩১)।

রোববার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা এই তিনজনের মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, মেমরিকার্ড এবং ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড জব্দ করা হয়েছে।

সাইবার ক্রাইম বিভাগের এডিসি নাজমুল ইসলাম জানান, তদন্তে জানা গেছে গ্রেফতাররা বিভিন্ন সময় ফেসবুক লাইভে এসে এবং বিভিন্ন উস্কানিমূলক কন্টেন্ট শেয়ার করে আন্দোলন সহিংস করতে ভূমিকা রেখেছেন। রিমান্ডে নিয়ে তাদের মূল উদ্দেশ্য বের করা হবে।

রামনা থানায় সাইবার আইনে দায়ের করা মামলায় তিনজনকে সোমবার আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। বিচারক ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। এ ছাড়া আন্দোলনে গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে উস্কানি দেওয়ার অপরাধে ফেসবুক ও টুইটারের ১০০ আইডি শনাক্ত করা হয়েছে।

তদন্তকারীরা জানান, গ্রেফতার মাহবুবুর রহমান আরমান পরিচিত আরমান সাইবার মাহবুব নামেও। তিনি নিজেকে সাইবার অ্যানালিস্ট বলে পরিচয় দেন। সাইবার সেবা দেওয়ার কথা বলে Fight For Survivors Right : FSR নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে তার।

এছাড়া রূপনগর থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনের একটি মামলায় শাহেদা আক্তার নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া উস্কানি ছড়ানোর দায়ে ইউটিউব তারকা সালমান মুক্তাদিরকে রোববার রাতে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সতর্ক করে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ।

এদিকে আন্দোলনের সময় ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় দলটির উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ূয়া সোমবার মামলা করেছেন।

ধানমণ্ডি থানায় এ মামলা দায়েরের সময় আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম ও কার্যনির্বাহী সদস্য উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং উপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও বিজিবি গেট ভাংচুরের ঘটনায় মামলা হয়েছে বলে জানান রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার।

পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা রাজপথ থেকে স্কুলে ফিরেছে। এখন যারা আন্দোলনের নামে সহিংসতা করবে তাদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। রাজপথে কেউ নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে শক্তি প্রয়োগ করা হবে। ছদ্মবেশে যারা ভাংচুর, জ্বালাও-পোড়াওয়ে অংশ নেবে তাদের ব্যাপারে তথ্য নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

SHARE