Home কক্সবাজার কক্সবাজার সদর উপজেলা গেইটস্থ দক্ষিণ ডিককূলে ফ্ল্যাট বাড়িতে চুরি : ১০ লাখ...

কক্সবাজার সদর উপজেলা গেইটস্থ দক্ষিণ ডিককূলে ফ্ল্যাট বাড়িতে চুরি : ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট

132
SHARE

এম আর মাহবুব(৯ সেপ্টেম্বর) :: প্রকাশ্যে দিবালোকে দুর্ধর্ষ চোরের দল এক ফ্ল্যাট বাড়িতে হানা দিয়ে তালা ভেঙ্গে ১৪ ভরি স্বর্ণ, নগদ ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা, বন্দুকের লাইসেন্স, তাজা ১২ রাউন্ড গুলি, পাসপোর্টসহ মূল্যবান সামগ্রী লুটে নিয়েছে।

রোববার (০৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় কক্সবাজার সদর উপজেলা বাজারের সন্নিকটে উত্তর ডিককুল এলাকায় এই দূর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে।

ভয়াবহ চুরির শিকার ভবন মালিক আকতার কামাল চৌধুরী জানান, আমি স্ত্রী, সন্তানদের নিয়ে আমার ৪তলা ভবনের ২য় তলার একটি ফ্ল্যাটে থাকি। ভবনের অন্যান্য ফ্ল্যাট ভাড়া দেয়া হয়েছে। ঘটনার সময় আমার স্ত্রী ফ্ল্যাটের দরজায় তালা লাগিয়ে ৩য় তলায় আমার ভাড়াটিয়ার বাসায় যান।

এই সময় উৎপেতে থাকা চোরের দল আমার বাসার তালা ভেঙ্গে স্বর্ণ, নগদ টাকাসহ আনুমানিক ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুটে নেয়। তবে আমার লাইসেন্সকৃত এক নলা বন্দুকটির লাইসেন্স নিয়ে গেলেও চোরেরদল বন্দুক নিয়ে যায়নি। ঘটনার সময় আমি মহেশখালীর গ্রামের বাড়িতে ছিলাম। স্ত্রীর ফোন পেয়ে দ্রুত আমি মহেশখালী থেকে নিজ বাসভবনে ফিরি।

গৃহকর্তী শাহানাজ আকতার জানান, মাসিক ভাড়া আদায় করতে সাড়ে ১১টায় বাসায় তালা লাগিয়ে ৩য় তলায় ভাড়টিয়ার বাসায় যাই। ১২টার দিকে বাসায় এসে দেখি আমার সব শেষ।

সরেজমিনে ঘুরে এসে দেখা যায় চোরের দল মহেশখালীর ধনাঢ্য ব্যবসায়ীর নিজস্ব ফ্ল্যাটের সব আলমিরা, ড্রয়ার ভেঙ্গে মূল্যবান সবকিছু লুটে নেয়। ঘটনার আগে সকাল ১১টায় ঐ ভবনে মালিকের নিয়োজিত দারোয়ান আব্দুর রশিদ মামলা সংক্রান্ত কাজে কক্সবাজার আদালত পাড়ায় ব্যস্ত ছিল।

ভবনের নিজ তলার ভাড়াটিয়া একটি ব্যাটারী কোম্পানির দারোয়ান মিঠুন জানান, এক অপরিচিত লোক কাধে ব্যাগ ভর্তি মালামাল নিয়ে নিচে নামতে দেখেছি।

এদিকে খবর পেয়ে কক্সবাজার মডেল থানা পুলিশের এসআই স্বপনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি ভবনের বিভিন্ন ভাড়াটিয়ার সাথে কথা বলেছেন।

ইতিপূর্বে ভবন মালিককে হুমকি দেয়া, বিতাড়িত এক ইয়াবাসেবী ভাড়াটিয়া যুবক ও ঘটনার সময় দারোয়ানের মোবাইলে রহস্যজনক ফোন দেয়া আরেক ভাড়টিয়াকে সন্দেহ করে তদন্ত কাজ চালাচ্ছেন বলে পুলিশ জানান।

এই ঘটনায় রোববার রাতে কক্সবাজার মডেল থানায় ভবন মালিক আকতার কামাল চৌধুরী অজ্ঞাত আসামী দেখিয়ে পৃথক এজাহার ও জিডি দায়ের করেছেন।

এদিকে পুলিশ দিনদুপুরে এই চুরির ঘটনায় সদর উপজেলার আশেপাশের এলাকায় সাধারণ জনমনে তীব্র আতংক বিরাজ করছে।

SHARE