Home কক্সবাজার বদরখালীতে ত্রাণ বিতরণের তালিকা তৈরীতে অবহেলার অভিযোগ

বদরখালীতে ত্রাণ বিতরণের তালিকা তৈরীতে অবহেলার অভিযোগ

147
SHARE

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(১৬ সেপ্টেম্বর) :: চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদে বিদেশী সংস্থার উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণের তালিকা তৈরীতে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের অবহেলার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ওয়ার্ড কমিটির ১৩জন সভাপতি সম্পাদক বাদি হয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগটিতে স্বাক্ষর করেছেন ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি বদিউল আলম মানিক, সম্পাদক জাহাংগীর আলম, ১নম্বর ওয়ার্ডের সম্পাদক আবদুর রশিদ, ৪নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি নুরুল হুদা, সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, ৫নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি জাহাংগীর আলম, সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, ৬নম্বর ওয়ার্ডের ইউছুপ বদরী, সম্পাদক আবুল হাশেম, ৭নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ফজল কাদের, সম্পাদক আসাদুজ্জামান সাদু, ৯নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি নুরুল ইসলাম কালু, সম্পাদক ছিদ্দিক আহমদ।

লিখিত অভিযোগে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ জানান, সম্প্রতি সময়ে বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে গরীব মানুষের মাঝে বিদেশী সংস্থা ইউএনএইচসিআর’ উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণের তালিকা তৈরীর কাজ শুরু করা হয়।

ওইসময় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল বশর চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলমের নির্দেশে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের জন্য ৪২টি কার্ড দেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান নুরে হোছাইন আরিফকে।

নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেছেন, কার্ড সমুহ দেয়ার জন্য ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্পাদক কিংবা স্থানীয় দলের নেতাকর্মীদের অবগত না করেনি ইউপি চেয়ারম্যান।

এ সুযোগে অনেকটা গোপনে দলের নেতাকর্মীদের জন্য দেয়া কার্ড সমুহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরে হোছাইন আরিফ তাঁর অনুগত ও স্বজনদের নাম অর্ন্তভুক্ত করে বিতরণ করে দিয়েছেন।

অভিযোগ রয়েছে, বিতরণের তালিকায় স্থানীয় ছনুয়া পাড়ার বাসিন্দা আমিনুর রহমানের ছেলে জামায়াত নেতা মাওলানা আজিজ উদ্দিন, খালকাচা পাড়ার বাসিন্দা জামায়াত সমর্থক আবদুল কাদেরের ছেলে মাহামুদুল হক অনেকের নাম স্থান পেয়েছেন।

অভিযোগকারী আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের দাবি, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ৪২ জনের নামে যে তালিকা তৈরী করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দিয়েছেন তাদের বেশির ভাগই বিত্তশালী, বিএনপি-জামায়াত ঘরনার লোকজন।

তাই বিষয়টি তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তাঁরা বাধ্য হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগটি করেছেন।

SHARE