Home খেলা চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনা, লিভারপুল, ইন্টার, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের জয়

চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্সেলোনা, লিভারপুল, ইন্টার, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের জয়

144
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(১৯ সেপ্টেম্বর) :: চোখের ইনজুরির কারণে চ্যাম্পিয়নস লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে খেলা নিয়ে সংশয় ছিল রবের্তো ফিরমিনোর। তবে ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার নেমেছিলেন দ্বিতীয়ার্ধে। শক্তিশালী প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ের বিপক্ষে তিনিই গড়ে দিলেন ব্যবধান। ফিরমিনোর শেষ মুহূর্তের লক্ষ্যভেদে পিএসজির বিপক্ষে ৩-২ গোলের নাটকীয় জয় পেয়েছে লিভারপুল।

দিনের অন ম্যাচে মেসির নৈপুন্যে বার্সেলোনা ৪-০ গোলে হারিয়েছে পিএসভি আইন্দহেভেনকে। আর ডিয়েগো কোস্তা ও হোসে গিমেনেসের লক্ষ্যভেদে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ ২-১ গোলে হারিয়েছে স্বাগতিক মোনাকোকে। ঘরের মাঠে ইন্টার মিলান ২-১ গোলে হারিয়েছে টটেনহামকে।

এছাড়া বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ১-০ গোলের জয় নিয়েছে ফিরেছে ক্লাব ব্রুজের মাঠ থেকে। আর গ্যালাতাসারে ঘরের মাঠে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লোকোমোতিভ মস্কোকে। শালকে-পোর্তো ম্যাচটি ড্র হয়েছে ১-১ গোলে।

অ্যানফিল্ডের ম্যাচটি যে বারুদে উত্তেজনা ছড়াবে, তার আচ আগে থেকেই পাওয়া গিয়েছিল। লিভারপুল-পিএসজি ম্যাচ বলে কথা! চ্যাম্পিয়নস লিগের উদ্বোধনী দিনের এই ম্যাচের পরতে পরতে ছড়িয়ে থাকলো উত্তেজনা। শুরুতে পিএসজির ২ গোলে পিছিয়ে যাওয়া ও শেষ দিকে সমতায় ফিরে আনন্দে মাতা, বিপরীতে হতাশায় ছেয়ে যাওয়া লিভারপুল শেষ মুহূর্তের গোলে বাধভাঙা উল্লাসে মাতার দৃশ্য শুরুতেই জমিয়ে দিল চ্যাম্পিয়নস লিগের নতুন মৌসুমকে।

লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ আগেই জানিয়ে রেখেছিলেন অ্যানফিল্ডের ম্যাচে ফেভারিট পিএসজি। তবে কথাটা মুখে বললেও তার দল কাজে দেখালো অন্যকিছু। ৩৬ মিনিটের মধ্যে ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ২ গোলের লিড নেয় গত আসরের রানারআপরা। ফিরমিনোর জায়গায় একাদশে সুযোগ পেয়েই নিজেকে প্রমাণ করেন ড্যানিয়েল স্টুরেজ। ৩০ মিনিটে ইংলিশ ফরোয়ার্ডের লক্ষ্যভেদেই এগিয়ে যায় লিভারপুল।

সেই উৎসব থামতে না থামতেই আবার গোল পায় অলরেডস। ৩৬ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি আসে পেনাল্টি থেকে। স্পট কিক থেকে পাওয়া সহজ সুযোগটি কাজে লাগাতে ভুল করেননি জেমস মিলনার।

২ গোলে পিছিয়ে পড়া পিএসজি অবশ্য খেলায় ফেরার ইঙ্গিত দেয় মিনিট চারেক পরই, যখন তারা এক গোল শোধ করে থোমাস মুনিয়ের লক্ষ্যভেদ করলে। যদিও ২-১ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় লিভারপুল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই সমতায় ফিরতে নিজেদের সেরাটা দিয়ে লড়াই করে গেছে পিএসজি। নেইমার, কাইলিয়ান এমবাপে ও এদিনসন কাভানি একের পর এক আক্রমণ চালিয়েছেন লিভারপুলের রক্ষণে। কিন্তু সফল হতে পারছিলেন না কিছুতেই। শেষমেষ ৮৩ মিনিটে সাফল্য পায় ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা। ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন বিশ্বকাপে আলো ছড়ানো এমবাপে। নেইমারের পাস ধরে ১২ গজ দূর থেকে লক্ষ্যভেদ করে সমতায় ফেরান তিনি পিএসজিকে।

পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই ম্যাচ শেষ হবে বলে ভাবা হচ্ছিল তখন। তবে লিভারপুল তা হতে দেয়নি। পুরো ৩ পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে শেষ মুহূর্তের নাটকীয়তায়। বদলি খেলোয়াড় ফিরমিনোর চমৎকার গোলে পিএসজিকে হারিয়ে নিজেদের ক্ষমতায় জানান দেয় ইংলিশ ক্লাবটি। দ্বিতীয়ার্ধের ইনজুরি টাইমের প্রথম মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড জাল খুঁজে পেলে জয়ের উল্লাসে মাতে লিভারপুল।

SHARE