Home কক্সবাজার কক্সবাজার-৩(সদর ও রামু) আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দিবেন ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম

কক্সবাজার-৩(সদর ও রামু) আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দিবেন ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম

163
SHARE

বার্তা পরিবেশক(১১ নভেম্বর) :: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-৩ (সদর ও রামু) আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে মনোনয়ন ফরম জমা দিচ্ছেন জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইন্জিনিয়ার বদিউল আলম।

রবিবার বিকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের হাতে মনোনয়ন ফরমটি জমা দেবেন তিনি।রবিবার ঢাকা ত্যাগের আগে কক্সবাংলাকে তিনি বলেন, ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলছে। আগামী নির্বাচনে জনগণ নৌকা মার্কাকে ভোট দিয়ে পুনরায় দেশের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখবেন।’

এক নজরে ইন্জিনিয়ার বদিউল আলম- এর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি

শিক্ষাগত ও পেশাগত জীবন
———————-
কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁহ্ এলাকার জালালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে ১৯৬২ সালে ইন্জিনিয়ার বদিউল আলম জন্মগ্রহণ করেন। মাতা আছিয়া খাতুন এবং পিতা মৌলানা সুলতান আহমদ ক্বারী। পিতামহ ছিলেন বিশিষ্ট আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব ও বুজর্গ মৌলানা আলহাজ্ব বজলুর রহমান। পিতা ও পিতামহ উভয়েই অবিভক্ত ভারতের দেউবন্দ মাদ্রাসায় অধ্যয়ন করে ডিগ্রী প্রাপ্ত হন। উল্লেখ্য যে, পিতা মৌলানা সুলতান আহমদ ক্বারী কলকাতায় অধ্যয়নকালীন সে কালের শেখ মুজিব, আজকের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট বন্ধু এবং পরবর্তীতে রাজনৈতিক সহযোদ্ধায় পরিণত হন। স্বাধীনতা সংগ্রামে বৃহত্তর ঈদগাহ্ এলাকার মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বৃহত্তর ঈদগাহ্ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন এবং আমৃত্যু আওয়ামী রাজনীতিতে নিজেকে উৎসর্গ করে গেছেন।

তাহার সুযোগ্য সন্তান ইন্জিনিয়ার বদিউল আলম প্রাথমিক শিক্ষা গ্রামের স্কুলেই সমাপ্ত করেন। অত:পর ১৯৭৮ সালে এস.এস.সি এবং ১৯৮০ সালে এইচ.এস.সি পাশ করেন। এরপর কিছুদিন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালীন ১৯৮১ সালে বাংলাদেশ-রাশিয়া মৈত্রী চুক্তির বৃত্তি নিয়ে রাশিয়ার বিখ্যাত মস্কো পিপলস ফেন্ডশীপ ইউনিভারসিটিতে অধ্যয়ন করেন। উক্ত ইউনিভারসিটি থেকে ১৯৮৬ সালে সিভিল ইন্জিনিয়ারিংয়ে বি.এস.সি ডিগ্রী এবং ১৯৮৭ সালে একই ডিপার্টমেন্ট থেকে এম.এস.সি ডিগ্রী অর্জন করেন। অত:পর ডক্টরেট করার উদ্দেশ্যে এম.ফিল এ ভর্তি হন কিন্তু দেশের টানে ১৯৮৭ সালের শেষে তিনি রাশিয়া থেকে বাংলাদেশে ফিরে আসেন। পরবর্তী সময়ে ২০১১ সালে আমেরিকার সিটি ইউনিভারসিটি অব নিউইয়র্ক থেকে কনষ্ট্রাকশন ম্যানেজমেন্ট বিষয়ের উপর মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। তথায় পেশাগত উচ্চতর ও আধুনিক নির্মাণ প্রযুক্তি বিষয়ে আরো ৩টি শর্টকোর্স সমাপ্ত করেন। এতদ্বব্যতিত বিভিন্ন সেমিনার ও সিম্পোজিয়ামে অংশগ্রহণ করেন। শিক্ষা জীবনের প্রতিটি পরীক্ষায় দেশে ও বিদেশে ১ম শ্রেণি অর্জন করেন।

দেশে ফিরে ১৯৮৮ সালে চাকুরিতে যোগ দেন। চাকুরী জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে তিনি সরকারি, বেসরকারি, এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক, বিশ্বব্যাংক, আমেরিকান সাহায্য সংস্থা, জাতিসংঘ ও সুইস রেডক্রসের সহায়তায় জাতীয় উন্নয়নমূলক প্রকল্প সমূহের গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। আমেরিকায় অবস্থানকালীন নিউইয়র্কের প্রসিদ্ধ নির্মাণ প্রতিষ্ঠান পেরকান কনক্রিট কর্পোরেশনে প্রজেক্ট ম্যানেজার পদে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি কক্সবাজারের রেজিস্টার্ড কনসালটিং ফার্ম “বিল্ডিং প্লানার্সের” পরিচালক ও স্বত্বাধিকারী। মূলতঃ তিনি বহুমুখী প্রতিভাধর আধুনিক নগর পরিকল্পনা বিশেষজ্ঞ। কক্সবাজার জেলার শহরে-গ্রামে দেশি ও বিদেশি অর্থায়নে নির্মিত অসংখ্য শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দির ও ক্যাং নির্মাণ পরিকল্পনা প্রকৌশলী। পর্যটন নগরী কক্সবাজার জেলার অধিকাংশ অভিজাতও অনিন্দ্য সুন্দর সুপরিকল্পিত দালান এবং অবকাঠামো সমূহ তার নান্দনিক সৃষ্টি কর্মের বহি:প্রকাশ।

তিনি পাশাপাশি শিক্ষা, সমাজ সেবা, সাহিত্যচর্চা, সংস্কৃতি চর্চা, অসাম্প্রদায়িক ও প্রগতিশীল চিন্তা-চেতনায় স্বদেশ প্রেমে উদ্বেলিত রাজনীতিক ব্যক্তিত্ব। তিনি রোটারি ক্লাব অব কক্সবাজার সৈকতের ২০০৪-২০০৫ সেশনের সভাপতি ছিলেন। তিনি কক্সবাজার হেমন্তিকা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর প্রধান উপদেষ্টা, কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী ও রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য, কক্সাবাজার সঙ্গীতায়নের সহ-সভাপতি, কক্সবাজার সোসাইটির সহ- সভাপতি, ঈদগাহ পৌরসভা বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান উপদেষ্টা, ঈদগাহ পাবলিক লাইব্রেরির সভাপতি, ঈদগাহ বঙ্গবন্ধু ষ্টেডিয়াম বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি এবং কক্সবাজার সিটি কলেজ পরিচালনা কমিটির প্রভাবশালী সদস্য। এতদ্বব্যতিত পেশাজীবি প্রতিষ্টান বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউশনের সম্মানিত ফেলো ,আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্সের সম্মানিত সদস্য, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউশন কক্সবাজার উপ-কেন্দের সম্পাদক এবং বর্তমানে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বোর্ড মেম্বার। তিনি জাতীয় ও স্থানীয় বিভিন্ন বাংলা ও ইংরেজি পত্রিকায় লিখে থাকেন। কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত অনলাইন পত্রিকা ‘কক্সবাজার খবর’ এর সম্পাদক। তিনি বাংলা ইংরেজীর মতো রুশ ভাষাতেও পড়া, লেখা ও বলায় দক্ষ। তদুপরি উর্দু, হিন্দি ও স্প্যানিশ ভাষায় সংলাপে সক্ষম। তিনি ভ্রমণ পিপাসু। পেশাগত ও শিক্ষাগত কারণে তিনি এই পর্যন্ত রাশিয়া, জার্মানি, ইংল্যান্ড, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্য সহ পৃথিবীর ২২ টি দেশ ভ্রমণ করেছেন।

রাজনৈতিক জীবনঃ
——————-
প্রকৃতপক্ষে, ইনজিনিয়ার বদিউল আলম ১৯৭০ সাল থেকেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাথে জড়িত। স্কুল ও কলেজ জীবনে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব প্রদান করেছেন। মস্কোতে পিপল্স ফেন্ডশীপ ইউনিভারসিটিতে অধ্যয়নকালীন বাংলাদেশ ছাত্র সংগঠনের প্রচার সম্পাদক নির্বাচিত হন ১৯৮৩ সালে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন ১৯৮৪ সালে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তৎকালীন ও বর্তমান সভাপতি শেখ হাসিনা মস্কো ভ্রমণকালে সাক্ষাত করেন। বিগত ২০১২ সাল থেকে অদ্যাবধি সময়ে কক্সবাজারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফরে আসলে প্রত্যেকবার তার সাথে সাক্ষাত করেন এবং সফররত অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

তিনি বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের জন্ম (১৯৯০ সালে) থেকে ঢাকায় কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। ১৯৯৭-২০০৩ সাল পর্যন্ত কক্সবাজার শহর আওয়ামীলীগের ৭নং ওয়ার্ডের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। বিগত ২০০৩ সাল থেকে অদ্যাবধি কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক। বিশেষ উল্লেখ্য যে, ঢাকার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন (২০০৩ এবং ২০১৩ সালে) কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কাউন্সিলর হিসাবে যোগদান করেন। এতদব্যতিত, তিনি আমেরিকা অবস্থানকালীন (২০০৮-২০১২) বঙ্গবন্ধু পরিষদ আমেরিকা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এবং নিউইয়র্ক সিটি আওয়ামীলীগের সম্মানিত উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেন। তিনি আওয়ামী লীগের মাঠ পর্যায়ের সাধারণ সমর্থক, কর্মী বা নেতা থেকে জেলা ও কেন্দ্রীয় কমিটির সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সাথে আন্তরিক সু-সম্পর্ক বজায় রাখতে সচেষ্ট। তিনি সর্বোতভাবে পার্টির সকল কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখেন এবং আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেন।

বিবাহিত জীবনে স্ত্রী এবং দুই ছেলে ও এক কন্যা সন্তানকে নিয়ে ছোট সংসার। তিনি সাধারণ জীবনযাপনে অভ্যস্থ, সংস্কৃতিবান, সৎ, নিষ্ঠাবান, ধার্মিক, দানশীল ও অসম্প্রদায়িক এবং সর্বসাধারণের কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিত্ব।

সর্বোপরি তিনি নিজের জ্ঞান, অভিজ্ঞতা এবং বিজ্ঞজনের পরামর্শ নিয়ে আধুনিক গণতান্ত্রিক চেতনায় সমৃদ্ধশালী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে অঙ্গীকারবদ্ধ। এ লক্ষ্যে বিগত ৫ই জানুয়ারী ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, কক্সবাজার-৩ আসন থেকে নমিনেশন সংগ্রহ করে জমা দেন এবং পার্টির সিদ্ধান্তে পরবর্তীতে তিনি নমিনেশন প্রত্যাহার করেন। সব সময় তিনি জন সেবায় নিয়োজিত এবং সর্বস্তরের জনতার সাথে সম্পৃক্ত। তিনি আওয়ামী লীগের সৎ, নিবেদিত ও আদর্শিক কর্মী হিসাবে আগামী ১১ তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার সদর ও রামু আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

যোগাযোগ:
ইনজিনিয়ার বদিউল আলম
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক
কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগ, কক্সবাজার
মোবাইল ঃ ০১৭১১-৪৫৩৬০৫, ফোনঃ ০৩৪১-৬২৭২২

E-mail: engr_badiul@yahoo.com

SHARE