Home জীবনযাত্রা দারচিনির সঙ্গে মধুর ম্যাজিকে দুর হবে যে সকল রোগ

দারচিনির সঙ্গে মধুর ম্যাজিকে দুর হবে যে সকল রোগ

300
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(১৬ নভেম্বর) :: দারচিনি গাছ যত ছোট তার গুণ তার থেকে অনেক বড়। দারচিনি আমরা মূলত রান্নার মশলা হিসাবে ব্যবহার করে থাকি, কিন্তু এই দারচিনি অনেক কঠিন রোগ থেকে আমাদের মুক্তি দিতে পারে। দারচিনি রক্ত পরিশোধক হিসাবে খুব উপকারি । দারচিনি আমাদের শরীরের মেদ কমাতে সাহায্য করা থেকে কোলেস্টেরল-সর্দি-কাশি পেটের রোগ নিরাময়ে সাহায্য করে।

এক চামচ মধুর সঙ্গে দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে সকাল সন্ধ্যা খেলে সর্দি কাশি থেকে আরাম পাওয়া যায় । মাথাব্যথায় এই দারচিনির উপকারিতা অতুলনীয়৷ গুঁড়ো দারচিনি অল্প জলের সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে মাথায় লাগালে মাথাব্যথা থেকে আরাম পেটে পারেন।

যাঁরা কোমর , হাঁটু ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন তাদের জন্যে এক কাপ উষ্ণ গরম জলে দারচিনি গুঁড়ো সাথে মধু মিশিয়ে সেই পেস্ট আপনার যন্ত্রণার জায়গাটিতে হাল্কা করে লাগিয়ে মালিশ করে দেখতে পারেন আরাম পাবেন৷ আপনি এই পেস্টটি খেতেও পারেন, সমান উপকার পাবেন৷

ত্বকের সমস্যা এখন নিত্ত নৈমিত্তিক ব্যপার সবাই নিজের ত্বক নিয়ে যত্নশীল সারাদিন বাইরের ধুলোবালিতে ত্বকের ক্ষতি হয়ে থাকে। দারচিনির ব্যবহারে এই ত্বকের সমস্যা থেকে কিছুটা মুক্তি পেতে পারেন। অনেকের মুখে রিঙ্কল পড়ে৷ সেই জায়গাতে দারচিনি আর মধুর পেস্ট বানিয়ে লাগালে এই সমস্যা দুর হতে পারে। দারচিনি গুঁড়োর সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে আপনার মুখে নিয়মিত লাগালে ব্রণ থেকে মুক্তি পাবেন৷

দারচিনি যেমন ত্বক, সর্দি, কাশির থেকে আরাম দেয় তেমনই পেটের সমস্যা থেকেও মুক্তি দিতে পারে তার সঠিক ব্যবহারে৷ দারচিনি আর মধু একসঙ্গে মিশিয়ে খেলে গ্যাস, অম্বল পেট ব্যাথা থেকে আরাম পাওয়া যায় আর খাবার খুব সহজে হজম হয়ে যায়৷

ফাস্ট ফুডের যুগে আমরা কম বেশি সবাই মেদের সমস্যায় ভুগি৷ সেই মেদ কমাতে দারচিনির অবদান অনেক । চায়ের সঙ্গে দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে এক গ্লাস জলে ফুটিয়ে নিন তারপর তার মধ্যে বড় চামচে মধু মিশিয়ে সকলে ব্রেকফাস্টের আধাঘণ্টা আগে খেয়ে নিন, রাত্রে সবার আগে খেয়ে শুতে যান৷ নিয়মিত খেলে শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরে যেতে সাহায্য করে, মেদ জমতে দেয় না । অতিরিক্ত ক্যালোরি যুক্ত খাবার খেলে মেদ জমে না ওজন কমতে সাহায্য করে ।

দারচিনি আর মধুর পেস্টর উপকার অনেক কঠিন রোগ নিরাময় করে তার মধ্যে অন্যতম ধমনীতে কোলেস্টেরল জমতে দেয় না দারচিনি আর মধুর পেস্ট নিয়মত নিলে হার্টের রোগ হবার সম্ভাবনা অনেকটা কমে যায়। যারা হার্ট অ্যাট্যাকে আক্রান্ত হয়েছেন তাঁরা নিয়মিত এটি খেলে ভবিষ্যতে আবার অ্যাটাকের সম্ভাবনা অনেকটা কমে যেতে পারে৷

যারা কোলেস্টেরল কন্ট্রোল করতে চেষ্টা করছেন তারা দু চামচ মধুর সঙ্গে তিন চামচ দারচিনি আধ লিটার উষ্ণ গরম জলে মিশিয়ে খেলে ২ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় ১০% কোলেস্টেরল লেভেল নিচে নামতে সাহায্য করে । সারাদিনে ৩ বার যদি কেউ খেতে পারেন যাদের কোলেস্টেরল লেভেল অনেক বেশি সেই লেভেল কমে যেতে সাহায্য করে৷

ক্যান্সারের মতো মারণ রোগেও এই দারচিনি অনেকটা উপকার করে, ক্যান্সার রোগীদের বড় চামচের এক চামচ মধু এবং দারচিনি এক গ্লাস গরম জলে মিশিয়ে এক মাস খাওয়ালে আরাম পেতে পারেন৷

এক চামচ দারচিনি গুঁড়ো মধুর সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে দাঁতে ২ -৩ বার লাগালে দাঁতের ব্যথা থেকে আরাম পেতে পারেন এই মিশ্রণ নিয়মিত সেবনে আমাদের স্মৃতিশক্তি বাড়তে সাহায্য করে এছাড়া হাঁপানির রোগে এই মিশ্রণ অনেক উপকারী৷

মধু এবং দারচিনি পর্যাপ্ত পরিমাণে মিশিয়ে এক চামচ সকালে ও রাত্রে খেলে আমাদের শ্রবণ শক্তি বাড়ে। যারা কানে কম শুনতে পান তাদের কানে দারচিনির তেল দিলে আরাম পাবেন৷

SHARE