Home মহাকাশ পৃথিবীর ‘ছবি’ তুলতে আটটি দেশের স্যাটেলাইট সহ মহাকাশে গেল ISRO নতুন উপগ্রহ...

পৃথিবীর ‘ছবি’ তুলতে আটটি দেশের স্যাটেলাইট সহ মহাকাশে গেল ISRO নতুন উপগ্রহ ভীম

70
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(২৯ নভেম্বর) :: পৃথিবীকে ভাল ভাবে পর্যবেক্ষণ করতে নতুন উপগ্রহ পাঠাল ভারত।ফের এক সাফল্য ইসরোর। পৃথিবীর উপর নজরদারি চালাতে বিশেষ স্যাটেলাইট লঞ্চ করল ইসরো। বৃহস্পতিবার সকালে ৩১টি স্যাটেলাইট নিয়ে মহাকাশে পৌঁছল ইসরোর পিএসএলভি C43. রয়েছে আটটি দেশের ৩০টি মাইক্রো ও ন্যানো স্যাটেলাইট।  তাতেই থাকছে এই উপগ্রহ।

একই সঙ্গে আছেন  আটটি দেশের মোট ৩০ জন অভিযাত্রী। তবে তার মধ্যে মার্কিন নাগরিকদের সংখ্যাই বেশি। নতুন এই উপগ্রহের কাজ হচ্ছে  পৃথিবীর ভূতলকে ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করা। মহাশূন্যের দুটি জায়গায় ৩১টি উপগ্রহ রেখে আসবে মহাকাশযান।

প্রথমে সেটির অবস্থাব হবে পৃথিবী থেকে ৬৩৬ কিমি দূরে পরে তা কমে  আসবে ৫০৪ কিমিতে। গোটা প্রক্রিয়া শেষ হবে  ১১২ মিনিটে। এই মহাকাশযানটির ওজন অন্য গুলির থেকে কম।

পিএসএলভি সি৪৩-এর মাধ্যমে দুটি ভিন্ন কক্ষপথে ৩১ টি উপগ্রহকে স্থাপন করা হবে। যার মধ্যে ভারতের উপগ্রহ হাইপার স্পেকট্রাল ইমেজিং স্যাটেলাইট কলকারখানা থেকে দূষণে নজরদারিতে সাহায্য করবে পবলে ইসরো সূত্রে খবর। এছাড়াও এই উপগ্রহ কৃষি, বন, ভূতত্ত্ব এবং উপকূল এলাকা পর্যবেক্ষণেও সাহায্য করবে বলে জানা গিয়েছে। উপগ্রহটির ওজন ৩৮০ কেজি। পাঁচবছর কাজ করবে উপগ্রহটি।

এদিন একটি মাইক্রো এবং ২৯টি ন্যানো উপগ্রহ মহাকাশে পাঠানো হচ্ছে। যেসব দেশের উপগ্রহ এদিন পাটানো হচ্ছে, সেগুলি হল অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, কলম্বিয়া, ফিনল্যান্ড, মালয়েশিয়া, নেদারল্যান্ড, স্পেন এবং আমেরিকা। সব থেকে উল্লেখযোগ্য হল উপগ্রহগুলির মধ্যে ১ টি মাইক্রো ও ২২ টি ন্যানো স্যাটেলাইট শুধুমাত্র আমেরিকার।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে একসঙ্গে  ১০৪ টি  উপগ্রহ মহাকাশে পাঠায় ভারত। চেয়ারম্যান ডি কে  সিভান জানান এটি একটি বিরল প্রকৃতির উপগ্রহ। খুব কম দেশের কাছেই এ ধরনের প্রযুক্তি আছে। সকলেই এমন উন্নতমানের  উপগ্রহ বানাতে তৎপর।

এখনও পর্যন্ত পিএসএলভি ৫২ টি ভারতীয় এবং ২৮ টি দেশের ২৩৯ টি আন্তর্জাতিক উপগ্রহ মহাকাশে পাঠিয়েছে।

ভারতের মহাকাশ  চর্চার ক্ষেত্রে  এই উপগ্রহ বিশেশ ভূমিকা  নেবে  বলে  মনে  করা  হচ্ছে । মহাকাশ থেকে  পৃথিবীর ছবি  তোলার  জন্য  এর আগেও নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু ভারতের তরফ থেকে এত উন্নত মানের ক্যামেরা  যুক্ত উপগ্রহ এর আগে  পাঠানো হয়নি। তাই আরও অনেক নতুন  তথ্য  পাওয়া যাবে বলে মনে  করছেন  ইসরোর  বিজ্ঞানীরা।

 

SHARE