সোমবার ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

সোমবার ১২ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

এইচ টি ইমাম : একজন বঙ্গবন্ধুর সৈনিকের প্রস্থান

বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১
60 ভিউ
এইচ টি ইমাম : একজন বঙ্গবন্ধুর সৈনিকের প্রস্থান

কক্সবাংলা ডটকম(৪ মার্চ) :: প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা হোসেন তওফিক ইমাম (এইচ টি ইমাম)। বুধবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তিনি ছিলেন দেশের একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। তার রয়েছে এক বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন। বিশেষ করে রাজনৈতিক অঙ্গনে তার পদচারণা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরেই। তিনি তার “বাংলাদেশ সরকার ১৯৭১” বই এ তুলে ধরেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে তার সান্নিধ্যের কথা। তার বই থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে তার লেখার কিছুটা তুলে ধার হলো।

বাঙালি জাতির হাজার বছরের ইতিহাসে স্বাধীনতা ও মহান বিজয় দিবস শ্রেষ্ঠতম অর্জন এবং স্মরণীয় দিন। আনন্দ, উচ্ছলতা আর পবিত্রতম দিন। নিজের কথা লেখার আগে যে মহান ব্যক্তির কথা বারবার স্মৃতিতে উজ্জ্বল হয়ে ওঠে, তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা, মহান বিজয় দিবসের সাথে তার নাম মিশে আছে। স্বাধীন বাংলাদেশে প্রতিবছর মহান বিজয় দিবস পালিত হয় আনন্দ-উচ্ছলতায়। এই মহান দিনে থেকে দেখার এবং মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলিতে তার অদৃশ্য শক্তির স্মৃতি চোখের সামনে উজ্জ্বল হয়ে উঠছে। সত্যিই তিনি ছিলেন বাঙালি জাতির জনক।

সুদীর্ঘ ৯ মাস পর, ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বাঙালি জাতি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের পবিত্রভূমিতে তার জনককে ফিরে পেল। সেদিন আমার মনে হয়েছিল বঙ্গবন্ধু প্রকৃতপক্ষেই অবিসংবাদিত নেতা এবং জাতির জনক। দ্বি-জাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে সৃষ্ট পাকিস্তানে তৎকালীন শাসকচক্রের বৈষম্যমূলক আচরণ ও কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তিনি সুদীর্ঘ চব্বিশ বছর বাংলার স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করেছেন, সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছেন, জাতিকে দেখিয়েছেন মুক্তির পথ। ব্যক্তিগত সকল সুখ-শান্তি বিসর্জন দিয়ে, কারাগারে দিন কাটিয়েছেন জীবনের সবচেয়ে মূল্যবান দিনগুলোতে। মুক্তির স্বপ্ন দেখা, তাকে লালন করা এক কথা ; আর জাতির আপন সত্তাকে জাগ্রত করে মুক্তির পথ দেখানো, দিকনির্দেশনা দিয়ে জাতিকে তার চরম লক্ষ্যে নিয়ে যাওয়া আরেক কথা । কঠিনতম কাজ। পৃথিবীর ইতিহাসে তার নজির খুবই বিরল । বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই নেতাদের একজন। এটি আমার কোনো দাবি নয়-গোটা দুনিয়াই তাকে, তার জীবদ্দশায় এই সম্মান দিয়েছিল।

প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অবাঙালি পাকিস্তানিদের পেছনে ফেলে আমরা সরকারের উচ্চপদ দখল করতে সক্ষম হই। চাকুরিজীবনের প্রথম থেকেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক আন্দোলনের গতিপ্রকৃতি বুঝতে সচেষ্ট ছিলাম। তিনি বাঙালি জাতির জন্য যে-ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন, তা ছিল একজন পিতারই ভূমিকা। মায়া- মমতা, কল্যাণ ও মঙ্গল করাই পিতার কাজ। বঙ্গবন্ধুও তাই করেছিলেন। তার ভালোবাসা- স্নেহ ছিল অকৃত্রিম ও দরদমাখা।

১০ জানুয়ারি সেই এক মুহূর্ত সেদিন তাকে দেখেছিলাম । বিজয়ী বীর বিমানের দরজা দিয়ে উন্নতশির হেঁটে এলেন ; হাত তুলে বাঙালি জাতিকে জানালেন : `আমি তোমাদেরই লোক` । আমি শিহরিত হয়েছিলাম। আনন্দে-গর্বে বুক ভরে গিয়েছিল । দ্রুত আমাকে উঠতে হয়েছিল হেলিকপ্টারে। হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করেছিলেন সেদিনের গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ. কে. খন্দকার। আমাদের সঙ্গী ছিলেন রুহুল কুদ্দুস সাহেব, নূরুল কাদের। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে তেজগাঁও বিমানবন্দর থেকে সোহরাওয়ার্দি উদ্যান পর্যন্ত সমস্ত পথের পাশে পতাকা-ফেস্টুন আর জাতির জনকের প্রতিকৃতি দিয়ে সাজানো হয়েছিল। ৭ মার্চ ১৯৭১ যেখান থেকে তিনি স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, গেরিলায়ুদ্ধের রূপরেখা দিয়েছিলেন জাতিকে; যেখানে বর্বর দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীর নিরানব্বই হাজীর সৈনিকসহ সেনাপ্রধান, সেনা-কর্মকর্তা অবনত মস্তকে বাঙালি জাতির কাছে পরাজয় স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করেছিল ; সেখানে তৈরি করা হয়েছিল বাঙালি জাতির আশার প্রতীক নৌকা-আকৃতির মঞ্চ । এই মঞ্চ থেকে জাতির উদ্দেশে বক্তৃতা দেন স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি গণগ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

১৯৭২ সালের ১১ জানুয়ারি সকালবেলা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের মিন্টো রােডের বাসায় প্রথম অত্যন্ত কাছে থেকে বঙ্গবন্ধুকে দেখলাম। দীর্ঘ নয় মাস পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি থাকার পরও তার চোখ-মুখ উদ্দীপ্ত। যেমন দীর্ঘদেহী সুপুরুষ, তেমনই সুদর্শন। তার চেয়েও তার ব্যক্তিত্ব আরো বিশাল । প্রথম দেখাতেই কাছে ডেকে নিলেন; জিজ্ঞেস করলেন : কেমন আছ ? মনে হল কত দিন থেকে চেনেন। দীর্ঘদিন পর সন্তানকে দেখে পিতা যেমন কুশল জিজ্ঞেস করেন, ঠিক তেমনি। বঙ্গবন্ধুকে সেদিন দেখে ১৯৬১ সালে পাকিস্তানের লাহোর সিভিল সার্ভিস একাডেমিতে আমাদের প্রিয় শিক্ষকের দেওয়া সার্থক নেতার সংজ্ঞা মনে পড়ে গেল। “তিনিই প্রকৃত নেতা যার আছে rediating Permeative Virtue ।

এটি চীনের মান্ডারিন শাসকদের দেওয়া সংজ্ঞা । ভাবার্থ হল : সার্থক এবং সফল নেতা তীর গুণাবলি আশেপাশে সকলের মাঝে বিকিরণ ও অভিস্রবণ করেন। সেই গুণ ব্যাখ্যার অপেক্ষা রাখে না। উৎসারিত হয়, বিচ্ছুরিত হয়। উপস্থিত ছিলেন না, তবু তারই নামে আমারা যুদ্ধ করেছি। তার দেয়া অগ্নিমন্ত্র `জয় বাংলা” ধ্বনি উচ্চারণ করে আমরা এগিয়ে গেছি স্বাধীনতার পথে। তিনি যেন সেদিন প্রতিটি বাঙালির পাশে, মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বদেহমনে। তিনি শক্তি, তিনিই প্রেরণা, আর তীর বজ্রকষ্ঠে সেই প্রতিহাসিক উচ্চারণ “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম” ছিল সংগ্রামী পথের দিকনির্দেশনা।

সাড়ে তিন বছরের বেশি সময় অত্যন্ত কাছে থেকে বঙ্গবন্ধুকে দেখেছি। তার সান্নিধ্য পেয়েছি। অনেককিছু শিখেছি। কখনও ধমকের স্বরে কথা বলেননি। করেননি তিরস্কার। আমরা যারা তার ঘনিষ্ঠ সহকর্মী ছিলাম, তাদের ম্নেহভরে “তুমি” সম্বোধন করতেন। ওটাই ছিল স্বাভাবিক সন্তানের প্রতি একজন পিতৃতুল্য ব্যক্তির সন্বোধন। `আমরা` বলতেআমি, রফিকুল্লাহ চৌধুরী, মনোয়ারুল ইসলাম, কাজী হাবিবুল হক, মনসুর আহমেদ, ড. সাত্তার, ড. মশিউর রহমান, ড. ফরাসউদ্দীন এরা; সবাই বর্তমানে (২০০৪ সালে) প্রাক্তন সি.এস.পি.। তাঁর স্নেহধন্য আমরা আমাদের স্মৃতির মণিকোঠায় এখনো তার উচ্ছল উপস্থিতি অনুভব করি সারাক্ষণ । প্রতিটি মুহূর্তে, বিশেষ করে প্রতি বছর বিজয়ের আনন্দ-উৎসবে অন্তরের সমস্ত শ্রদ্ধা, ভক্তি, সম্মান ও কৃতজ্ঞতা দিয়ে স্মরণ করি পিতৃতুল্য মহান নেতাকে । আরো স্মরণ করি মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদ মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং জাতীয় চার মহান নেতাতাজউদ্দীন আহমদ, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ক্যাপ্টেন মনসুর আলী আর এ.এইচ.এম. কামারুজ্জামানকে।

60 ভিউ

Posted ১২:২৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১

coxbangla.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

Archive Calendar

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  

Editor & Publisher

Chanchal Dash Gupta

Member : coxsbazar press club & coxsbazar journalist union (cbuj)
cell: 01558-310550 or 01736-202922
mail: chanchalcox@gmail.com
Office : coxsbazar press club building(1st floor),shaheed sharanee road,cox’sbazar municipalty
coxsbazar-4700
Bangladesh
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ABOUT US :

coxbangla.com is a dedicated 24x7 news website which is published 2010 in coxbazar city. coxbangla is the news plus right and true information. Be informed be truthful are the only right way. Because you have the right. So coxbangla always offiers the latest news coxbazar, national and international news on current offers, politics, economic, entertainment, sports, health, science, defence & technology, space, history, lifestyle, tourism, food etc in Bengali.

design and development by : webnewsdesign.com