শুক্রবার ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

শুক্রবার ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

করোনার ছোবলে নিউইয়র্কে ১০ প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যূ : প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষনা(ভিডিও সহ)

শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০
83 ভিউ
করোনার ছোবলে নিউইয়র্কে ১০ প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যূ : প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষনা(ভিডিও সহ)

কক্সবাংলা ডটকম(২৬ মার্চ) :: মহামারী করোনার ভয়াল তাণ্ডবে বিপর্যস্ত বিশ্ব। ইতালি, স্পেনের পর সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটিতে এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯১ হাজার ২৫৫ জন।মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩৫৩ জনের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, যুক্তরাষ্ট্রই করোনাভাইরাস মহামারীর নতুন কেন্দ্রভূমি হয়ে উঠতে যাচ্ছে।যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ছড়িয়েছে নিউ ইয়র্কে। অঙ্গরাজ্যটি ৩৮ হাজার ১হাজারের অধিক জনের শরীরে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ধরা পড়েছে। এর মধ্যে মারা গেছেন ৫৯০ জন। নিউইয়র্কে হাসপাতালে হিমায়িত ট্রাক রেখে একের পর এক মরদেহ ওঠানো হচ্ছে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত কেউ মারা গেলেই এলমাহার্স্ট হাসপাতালের বেড খালি হচ্ছে। নিউইয়র্কে একদিনে ৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে,করোনার কারণে স্মরণকালের ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে এসেছে নিউইয়র্ক শহরের প্রবাসী বাংলাদেশীদের জীবনে।ইতিমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৭জন প্রবাসীর মৃত্যূ হয়েছেেএছাড়া নিউইয়র্কে দুই চিকিৎসকসহ শতাধিক প্রবাসীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।নিউইয়র্ক সিটির ব্ৰুকলীন, কুইন্স, ব্রঙ্কস, ম্যানহাটানের বিভিন্ন হাসপাতালে শতাধিক বাংলাদেশী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সর্বশেষ ২৬ মার্চ বুধবার নিউইয়র্কে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সূর্য্য বনিক নামে ঢাকার ওয়ারির আরেক বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে। জ্যাকসন হাইটসের নিজ বাসায় তিনি পরলোকগমণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। এর আগে ২৩ মার্চ সোমবার সন্ধ্যায় জ্যামাইকা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন মুন্সিগঞ্জের সন্তান আমিনা ইন্দ্রালিব তৃষা হাওলাদার (৩৭)। ২৪ মার্চ মঙ্গলবার সকাল ৯টায় আব্দুল বাতেন নামক ৬০ বছর বয়েসী আরেক বাংলাদেশী কুইন্সেরই এলমহার্স্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার পর শ্বাসনালী ফেটে গিয়েছিল বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। তার বাড়ি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ি উপজেলায়। নিউইয়র্কে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৪ মার্চ মঙ্গলবার তিনজন নারী ও দুইজন পুরুষ মারা গেছেন। এলমাস্ট হসপিটালে ৬০ বছরের আব্দুল বাতেন, ৭০ বছরের নূরজাহান বেগম এবং ৪২ বছরের এক নারী । প্লেইনভিউ হসপিটাল নর্থওয়েলে ৫৯ বছরের এটিএম সালাম। হসপিটাল কর্তৃপক্ষের নিউম্যান রিসোর্স এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।এছাড়া অপর একটি সুত্রে জানা যায় নিউইয়র্ক ওজন পার্কের জসিম উদ্দিন আহমেদের স্ত্রী,করোনা ভাইরাসে আক্রান্তে মৃত্যু হয়েছে ॥নিউইয়র্কে এ ৫ জন সহ মোট ১০ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন করোনা ভাইরাসে।

এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমনের আতঙ্কে অঙ্গরাজ্যে ঘোষিত জরুরি অবস্থার মধ্যে স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি হয়ে পড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক প্রবাসীরা, সীমিত হয়ে আসছে তাদের আয় রোজগারের পথ। করোনাভাইরাসের কারণে জনমানবশূন্য নিউ ইয়র্ক শহরের হোটেল-মোটেলের ভাড়া কমানো হয়েছে। বাস ভাড়া মওকুফ করা হয়েছে। রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার নিলে সঙ্গে টিস্যু-পেপারও ফ্রি দেওয়া হচ্ছে। অপরদিকে লকডাউনের কারণে অবরুদ্ধ মানুষের একদিকে ভীতি আরেক দিকে জীবন চালানোর কঠিন বাস্তবতা। ৩৩ লাখের বেশি লোক বেকার ভাতার আবেদন করেছে।

করোনা ভাইরাস: নিউইয়র্ক যেনো এক মৃত্যুপুরী

Posted by Dr Ferdous on Thursday, March 26, 2020

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজ কারা পাবেন এবং কারা পাবেন না

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষনা:

মানুষের জীবনযাত্রাকে স্বাভাবিক রাখার জন্য ট্রাম্প প্রশাসন যে প্রণোদনা প্যাকজে দিয়েছে তা নিম্নরূপ হারে ট্যাক্সদাতারা পাবেন:
১. সিঙ্গেল ট্যাক্স দাতারা পাবেন ১২০০ ডলার
২. জয়েন্ট ট্যাক্সদাতারা পাবেন ২৪০০ ডলার
৩. বয়স ১৭ এর নীচে প্রতিটি শিশুর জন্য পাবেন ৫০০ ডলার হিসেবে।

কত আয় পর্যন্ত পাবেন?
যাদের ট্যাক্স রিটার্ণ এ আয় ৭৫০০০ ডলার তারা উপরোক্ত হারে পাবেন। তবে ৭৫০০০ ডলারের উপরের আয়সীমার ট্যাক্সদাতাও পাবেন অন্য হারে।

কারা পাবেন?
১. আমেরিকার নাগরিক ও রেসিডেন্ট এলিয়েন
২. যাদের সোশ্যাল সিকিউরিটি নাম্বার রয়েছে
৩. বয়স ১৭ এর নীচে যেসব শিশুদের জন্য পিতা-মাতারা ট্যাক্স ক্রেডিট পেয়ে থাকেন।

কারা পাবেন না?
১. ননরেসিডেন্ট এলিয়েন
২. যাদের এসএসএন নাই, এর বদলে আইটিআইএনএস রয়েছে
৩. আপনার ডিপেন্ডেন্ট যারা অন্য কারো সঙ্গে ট্যাক্স রিটার্ণ করে থাকেন
কোন বছরের ট্যাক্সের ভিত্তিতে দেয়া হবে-
১. যারা ২০১৯ এর ট্যাক্স রিটার্ণ দিয়েছেন তাদের ভিত্তি হবে ২০১৯।
২. যারা দেননি এখনও তাদের হবে ২০১৮
৩. যদি কেউ ২০১৮ কিংবা ২০১৯ কোনটাই না দিয়ে থাকেন তাহলে পরবর্তীতে ২০২০ এর ভিত্তিতে ২০২১ সালে দেয়া হবে।
৪. যারা ট্যাক্স রিটার্ণ দেন না সোশ্যাল সিকিউরিটি ইনকামের কারণে তাদের ১০৯৯ এসএসএ এর বিবরণীর বিপরীতে এই প্রণোদনার অর্থ দেয়া হবে।

উল্লেখ্য: যুক্তরাষ্ট্রে মহামারী কভিড-১৯
করোনাভাইরাসের ধ্বকল সামাল
দিতে ২ ট্রিলিয়ন ডলারের নাগরিক সহযোগিতায় প্রস্তাব পাশ করেছে মার্কিন কংগ্রেস। সিনেটে পাশ হওয়া ওই প্রস্তাবটির বিপক্ষে কেউ ভোট দেননি। ৯৬-০ ভোটে প্রস্তাবটি পাশ হয়। এটিকে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ঐতিহাসিক আখ্যা দেওয়া হয়েছে। হোয়াইট হাউস এবং সিনেট মিলে মঙ্গলবার মধ্যরাতের পর আমেরিকার ইতিহাসের সবচেয়ে বড় নাগরিক সহযোগিতার সমঝোতা হয়েছে।

করোনা সংকট কালীন সময়ে নিউইয়র্কের প্রবাসীরা যেভাবে বেকার ভাতা

আবেদন করবেন…………

করোনাভাইরাসে আমেরিকার ইতিহাসে বৃহত্তম নাগরিক সুবিধা সরাসরি জনগণের হাতে পৌঁছতে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে। আগের উদাহরণ থেকে বলা যায়, তিন সপ্তাহের আগে এসব সাহায্য পৌঁছানো কঠিন হয়ে পড়বে। ক্ষেত্র বিশেষে আরও বেশই সময় লাগতে পারে। জনপ্রতি ১২০০ ডলার পাবেন, যাদের বার্ষিক আয় ৭৫ হাজার ডলারের নিচে। স্বামী স্ত্রী বা দম্পতি মিলে পাবেন ২৪০০ ডলার। ১৭ বছরের প্রতি সন্তানের জন্য পাবেন ৫০০ ডলার। বার্ষিক আয় ৭৫ হাজার ডলার থেকে ৯৯ হাজার ডলার পর্যন্ত কমতে থাকবে এবং বছরে এককভাবে যারা ৯৯ হাজার ডলার আয় করেন তার এ সহযোগিতা পাবেন না। আমেরিকার ৯০ শতাংশ মানুষই ইতিহাসের সবচেয়ে বড় এ নাগরিক সুবিধা প্রাপ্তির যোগ্য হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

নাগরিক সহযোগিতার অংশ হিসেবে কংগ্রেসের আইনে বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের দেওয়া ঋণের পেমেন্ট স্থগিত রাখা হয়েছে। কর্মহীনদের জন্য চার মাসের ভাতা প্রাপ্তই নিশ্চিত করা হয়েছে। এসবের বাইরে ক্ষুদ্র ব্যবসায় ঋণ দেওয়া, এয়ারলাইনস কোম্পানিসহ বড় শিল্প প্রতিষ্ঠানেও সহযোগিতার অর্থ আছে এ ফেডারেল অনুদানে। বাড়ির মালিকদের ফেডারেল ব্যাকড মর্টগেজের বিলম্ব ফি দুই মাসের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। এ জন্য বাড়ির মালিকদের ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করত হবে। ভাড়াটেদেরও দু মাসের জন্য উচ্ছেদ করা যাবে না। তাদের ওপর বাড়ির মালিকেরা বিলম্ব ফি আরোপ করতে পারবে না। চার মাসের মধ্যে বাড়ি ছেড়ে দিতে ভাড়াটেদের বলতে পারবে না।

নিউইয়র্কে যারা কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের কবলে পড়ে চোখে শর্ষেফুল দেখছেন, তাদের জন্য সহযোগিতার নানা সূত্র নিম্নে তুলে ধরা হলো:

কর্মহীন লোকজনকে বেকারভাতা দেওয়া হচ্ছে। দ্রুতই এ ভাতার আবেদন প্রক্রিয়া করা হচ্ছে। সবেতন পারিবারিক ছুটি দেওয়া হচ্ছে। খাদ্য নিরাপত্তার জন্য ফুড স্ট্যাম্পের আবেদন দ্রুততার সঙ্গে মঞ্জুর করা হচ্ছে। নিচের লিংকগুলো ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় সব আবেদন করা যাবে। নিজে না পারলে পরিবারের কারও সাহায্য নিয়ে আবেদন করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

https://paidfamilyleave.ny.gov/COVID19
https://www.cdc.gov/coronavirus/2019-ncov/index.html
SNAP (Food Stamps) ফুড স্ট্যাম্পের জন্য
https://a069-access.nyc.gov/accesshra/login
জটিল মানসিক সমস্যার জন্য,
https://www1.nyc.gov/site/dfta/services/find-help.page
Hotline 212-244-6469
ক্ষুদ্র ব্যবসায় সহযোগিতা ও ঋণ গ্রহণের জন্য,
NYC Small Business HELP / Grant / Loan
https://www1.nyc.gov/…/busin…/covid19-business-outreach.page
নিউইয়র্কের শিক্ষা বিভাগের যাবতীয় সহযোগিতা ও তথ্যের জন্য,
NYC Department of Education
শিক্ষা কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার জন্য বিনা মূল্যে ইলেকট্রনিক ডিভাইসের জন্য,
https://coronavirus.schools.nyc/RemoteLearningDevices

কারও ঘরে ইন্টারনেট না থাকলে বিনা মূল্যে ইন্টারনেট পাওয়ার জন্য:
To enroll, call Spectrum at 844-488-8395.

এসব ছাড়াও যাদের অভিবাসন কাগজপত্রে জটিলতা আছে, বৈধতার কাগজপত্র নেই তারা নানা চ্যারিটিতে সাহায্যের আবেদন করতে পারবেন। এসব সহযোগিতার জন্য কোনো অভিবাসন পরিচয় জিজ্ঞাসা করা হয় না অধিকাংশ ক্ষেত্রে।
•Catholic Charities Community Services, Archdiocese of New York Helpline at 1-888-744-7900 – food resources and support for seniors.
•Immigrant and Refugee Services – Email immigration.services@archny.org or call 212-419-3700.
•Call 888-NYC-WELL (888-692-9355)

মানবিক নগরী নিউইয়র্কে সংকটেও হতাশ হবেন না। 311 এ কল দিন যেকোনো প্রয়োজনে। ২৪ ঘণ্টা খোলা এ নম্বর থেকে দ্রুততার সঙ্গে আপনাকে পরামর্শ দেওয়া হবে করণীয় সম্পর্কে। ইংরেজি না জানলেও কথা বলতে পারবেন। এ ছাড়া কমিউনিটির নানা লোকজন সাহায্যের জন্য নানা প্রয়াস নিয়েছেন। নিউইয়র্কে যেকোনো সংবাদ কর্মীদের ফোন করতে পারেন। ২৪ ঘণ্টা কর্ম ততপর এসব সংবাদকর্মীরা দ্রুত আপনাকে পরামর্শ দিয়ে, করণীয় নিয়ে পরামর্শ দিতে পারবেন।

83 ভিউ

Posted ৪:৩৮ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০

coxbangla.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

Archive Calendar

Editor & Publisher

Chanchal Dash Gupta

Member : coxsbazar press club & coxsbazar journalist union (cbuj)
cell: 01558-310550 or 01736-202922
mail: chanchalcox@gmail.com
Office : coxsbazar press club building(1st floor),shaheed sharanee road,cox’sbazar municipalty
coxsbazar-4700
Bangladesh
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ABOUT US :

coxbangla.com is a dedicated 24x7 news website which is published 2010 in coxbazar city. coxbangla is the news plus right and true information. Be informed be truthful are the only right way. Because you have the right. So coxbangla always offiers the latest news coxbazar, national and international news on current offers, politics, economic, entertainment, sports, health, science, defence & technology, space, history, lifestyle, tourism, food etc in Bengali.

design and development by : webnewsdesign.com