বৃহস্পতিবার ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

বৃহস্পতিবার ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নাটকীয়তায় ৩ রানে হারাল ক্যারিবিয়ানরা

বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮
253 ভিউ
দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নাটকীয়তায় ৩ রানে হারাল ক্যারিবিয়ানরা

কক্সবাংলা ডটকম(৫ জুলাই) :: শেষটায় এসে তাড়াহুড়ো কিংবা আত্মবিশ্বাসের অভাবের মাশুল আবারও দিলো বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে জয়ের সুবাতাস পেয়েও আচমকা ঝড়ে ডুবল তাদের তরী।

বুধবার তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের হাফসেঞ্চুরিতে ২৭২ রানের লক্ষ্যে দারুণভাবে ছুটছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ ওভারের নাটকীয়তায় তাদের ৩ রানে হারাল ক্যারিবিয়ানরা। ৬ উইকেটে ২৬৮ রানে থামে বাংলাদেশ। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ এ সমতা ফেরাল স্বাগতিকরা। ম্যাচসেরা হয়েছেন স্বাগতিক ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ার।

তামিম ও সাকিবের ১০০ ছুঁইছুঁই জুটি ভাঙার পর মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে মুশফিক সহজ জয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। ৪৬তম ওভারের প্রথম বলে মাহমুদউল্লাহর আউটে হুট করে এলোমেলো হয়ে গেল সেই সম্ভাবনা। জেসন হোল্ডারের অল্প উঁচুতে আসা বাউন্স কোনোভাবে ঠেকালেন মুশফিক। কোনও কিছু চিন্তা না করেই নন স্ট্রাইক থেকে দৌড়ে রান নিতে গেলেন মাহমুদউল্লাহ। তার আসা দেখে মুশফিকও দৌড় দিতে গিয়েও দেননি। ততক্ষণে মাহমুদউল্লাহ ফিরে আসার ব্যর্থ চেষ্টা করেন। অ্যাশলে নার্সের থ্রো থেকে সহজে স্টাম্প ভেঙে তাকে রান আউট করেন হোল্ডার।

তারপরও মুশফিকের সঙ্গে সাব্বির রহমান জয়ের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন। শেষ ২ ওভারে ১৪ রান দরকার ছিল সফরকারীদের। কিন্তু ৪৯তম ওভারের শেষ বলে কিমো পলের ফুল টস সাব্বির জোরে মারেন বাউন্ডারির দিকে। ডিপ মিডউইকেটে দাঁড়ানো শিমরন হেটমায়ার সেটা ধরে ফেলেন খুব সহজেই। ১১ বলে ১২ রানে আউট হন সাব্বির। শেষ ওভারে দরকার ছিল ৮ রান। মুশফিক থাকায় লক্ষ্যটা খুব বেশি কঠিন মনে হয়নি। কিন্তু কোমড়ের কিছুটা নিচে আসা হোল্ডারের বলটি সপাটে মারতে গিয়ে ডিপ মিডউইকেটে পলের হাতে তুলে দেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। ৫৬ বলে হাফসেঞ্চুরি করা মুশফিক ৬৮ রানে আউট হলে শেষ ৫ বলে মাশরাফি মুর্তজা ও মোসাদ্দেক হোসেন প্রয়োজনীয় রান তুলতে পারেননি।

তার আগে ব্যাটিংয়ে ঝড়ো সূচনা করেন প্রথম ম্যাচে রানের খাতা না খুলে বিদায় নেওয়া এনামুল হক। আগের ম্যাচের ব্যর্থতা পুষিয়ে নেওয়ার আভাস দিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে ঝড় তুলেছিলেন। কিন্তু ইনিংসটা লম্বা করতে পারেননি বাংলাদেশের ওপেনার। বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারায় ২.৩ ওভারে ৩২ রানে। এনামুলের মারকুটে ব্যাটিংয়ে মাত্র ২ ওভারে ২০ রান করে বাংলাদেশ। এই ওপেনার মাত্র ৮ বলে দুটি করে চার ও ছয় মারেন। কিন্তু তৃতীয় ওভারের তৃতীয় বলে স্টাম্প ছেড়ে মারতে গিয়ে তিনি বোল্ড হন আলজারি জোসেফের বলে। মাত্র ৯ বলে ২৩ রান করে আউট হন বাংলাদেশের এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

 তারপর তামিম ও সাকিব শক্ত জুটি গড়েন। কিন্তু দেবেন্দ্র বিশু তার প্রথম ওভারে তামিমকে ফিরিয়ে ৯৭ রানের এ জুটি ভাঙেন। ৭১ বলে ৪২তম হাফসেঞ্চুরি করা এই বাঁহাতি ওপেনার সামনে এগিয়ে মারতে চাইলে শাই হোপ তাকে স্টাম্পিং করেন। ৮৫ বলে ৬ চারে ৫৪ রান করেন তামিম। বিশু তার পরের ওভারে সাকিবের বিরুদ্ধে জোরালো এলবিডাব্লিউর আবেদন করে উদযাপনে মাতেন। কিন্তু বাঁহাতি অলরাউন্ডার রিভিউ নিয়ে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত বদলান। তারপরও ৬২ বলে হাফসেঞ্চুরি করা সাকিব ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। ৭২ বলে ৫ চারে ৫৬ রানে তিনি আউট হন নার্সের বলে পলের ক্যাচ হয়ে। তারপর মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ সিরিজ জয়ের ইঙ্গিত দিলেও সফল হননি।

এর আগে বোলিংয়ে দারুণ শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের। দ্রুত টপ অর্ডারের ৪ ব্যাটসম্যানকে ফেরায় তারা। কিন্তু শিমরন হেটমায়ার সেঞ্চুরি করে সফরকারীদের কাছ থেকে ম্যাচ কেড়ে নেন। সিরিজ বাঁচানোর লড়াইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪৯.৩ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে করেছে ২৭১ রান।

গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে শুরুতেই উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। ইনিংসের সপ্তম ওভারে মাশরাফি মুর্তজা এলবিডাব্লিউ করেন এভিন লুইসকে (১২)। বাংলাদেশের অধিনায়ক তার চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে ২৯ রানে ভাঙেন উদ্বোধনী জুটি। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে লুইসকে নিজের শিকার বানান মাশরাফি।

শাই হোপকে নিয়ে ক্রিস গেইল জুটিটা বড় করতে পারেননি। ব্যক্তিগত ২৯ রানে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এলবিডাব্লিউ হন ক্যারিবিয়ান ওপেনার। ৫৫ রানের মধ্যে দুই ওপেনারকে হারায় স্বাগতিকরা। তারপর হোপকে ২৫ রানে কভারে সাব্বির রহমানের ক্যাচ বানান সাকিব আল হাসান।

২৪তম ওভারে বল হাতে নিয়েই উদযাপন করেন রুবেল হোসেন। আগের ম্যাচে প্রথম বলে উইকেট পাওয়া এই পেসার এদিন পঞ্চম বলে জেসন মোহাম্মদকে (১২) মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানান। ১০২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

 কিন্তু শিমরন হেটমায়ার ও রভম্যান পাওয়েল একসঙ্গে ক্রিজে থেকে সেই চাপ কাটান। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ফিফটি হাঁকিয়ে শক্ত জুটি গড়েন হেটমায়ার। এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ১০৩ রানের জুটি গড়েন। তবে ৪৪ রানে রভম্যানকে বোল্ড করে তাদের বিচ্ছিন্ন করেন রুবেল। তিন বল পরই হেটমায়ারকে ৭৯ রানে আউট করতে পারতেন তিনি। কিন্তু সাকিব ডিপ মিডউইকেটে ক্যাচ ছেড়ে দেন।

ক্যাচ মিস করার প্রায়শ্চিত্ত সাকিব করেন জেসন হোল্ডারকে (৭) স্টাম্পিং করে। এক ওভার বিরতি দিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান অ্যাশলে নার্সকে (৩) তামিম ইকবালের ক্যাচ বানান। তারপর টানা দুই ওভারে কিমো পল ও দেবেন্দ্র বিশু উইকেট হারান রুবেল ও মোস্তাফিজের বলে। জীবন পাওয়া হেটমায়ার ৮৪ বলে ৩ চার ও ৪ ছয়ে সেঞ্চুরি করেন। শেষ ওভারের তৃতীয় বলে তিনি রান আউট হন ১২৫ রানে। তার ৯৩ বলের ইনিংসে রয়েছে ৩ চার ও ৭ ছয়।

রুবেল সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন। দুটি করে পেয়েছেন মোস্তাফিজ ও সাকিব।

253 ভিউ

Posted ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২৬ জুলাই ২০১৮

coxbangla.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

Archive Calendar

Editor & Publisher

Chanchal Dash Gupta

Member : coxsbazar press club & coxsbazar journalist union (cbuj)
cell: 01558-310550 or 01736-202922
mail: chanchalcox@gmail.com
Office : coxsbazar press club building(1st floor),shaheed sharanee road,cox’sbazar municipalty
coxsbazar-4700
Bangladesh
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ABOUT US :

coxbangla.com is a dedicated 24x7 news website which is published 2010 in coxbazar city. coxbangla is the news plus right and true information. Be informed be truthful are the only right way. Because you have the right. So coxbangla always offiers the latest news coxbazar, national and international news on current offers, politics, economic, entertainment, sports, health, science, defence & technology, space, history, lifestyle, tourism, food etc in Bengali.

design and development by : webnewsdesign.com