সোমবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

সোমবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

পায়রা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী : সহজেই যাওয়া যাবে কুয়াকাটা

রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১
89 ভিউ
পায়রা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী : সহজেই যাওয়া যাবে কুয়াকাটা

কক্সবাংলা ডটকম(২৪ অক্টোবর) :: পটুয়াখালীতে পায়রা নদীর ওপর ১ হাজার ৪৪৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ নির্মিত সেতু উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ (২৪ অক্টোবর) গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি এই কার্যক্রমে অংশ নেন তিনি। একইসঙ্গে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-তামাবিল উভয় সড়কে পৃথক এসএমভিটি লেনসহ ৬-লেন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সরকার প্রধান।

পটুয়াখালী-বরিশাল মহাসড়কের লেবুখালী পয়েন্টে পায়রা সেতুর নির্মাণ প্রকল্প ২০১২ সালে একনেকে অনুমোদন পায়। ২০১৩ সালের ১৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন। নির্মাণ কাজটি শুরু হয় ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই। কার্যাদেশে সেতু নির্মাণে ৩৩ মাস সময় বেঁধে দেওয়া হলেও দুই দফায় প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত। নির্ধারিত সময়ের আগেই যানচলাচলের জন্য সেতুটি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

এ উপলক্ষে রোববার সকালে গণভবন প্রান্ত থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে পায়রা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে স্বার্থান্বেষী একটি শ্রেণি চেষ্টায় রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, বাংলাদেশকে আর কেউ কখনও পেছনে টানতে পারবে না।

সারা দেশে একটা যোগাযোগের নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এই যোগাযোগের মাধ্যমে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশকে আর কখনও কেউ পেছনে টানতে পারবে না। এর মাঝে কিছু কিছু ঘটনা মাঝে মাঝে ঘটছে, ঘটানো হচ্ছে। ইচ্ছাকৃতভাবে ঘটানো হচ্ছে। সেটা আপনারা নিজেরাই টের পান। যাতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। সেই সঙ্গে অপপ্রচারও চালানো হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা যতই উন্নতি করি, ভালো কাজ করি, একটা শ্রেণি আছে বাংলাদেশের বদনাম করতে তারা ব্যস্ত। তারা কী চায়? তারা এদেশে স্বাভাবিক, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকুক, সেটা তারা চায় না। একটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতি হলে পরে তাদের একটু কদর বাড়ে, সেজন্য তাদের সবসময়…তারা উন্নয়নটা আর দেখে না, ধ্বংসই তারা করতে চায়। এটাই হচ্ছে বাস্তবতা। এ ব্যাপারে দেশবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে।’

সহজেই যাওয়া যাবে কুয়াকাটা

ঢাকা থেকে মাওয়া হয়ে পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকতে যেতে একসময় ১০টি জায়গায় নদী পার হতে হতো ফেরিতে। বরিশাল থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত ছিল ছয়টি ফেরি পারাপারের পথ। আর ঢাকা থেকে মাওয়া হয়ে বরিশাল পর্যন্ত ছিল চারটি ফেরি পারাপারের পথ।

সব জায়গায় সেতু হওয়ার পর বাকি ছিল লেবুখালী ও পদ্মা। লেবুখালীতে আজ সেতু উদ্বোধন হচ্ছে। পদ্মা সেতুর কাজ শেষের পর্যায়ে। আগামী জুনের মধ্যে সেতুটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার চিন্তা করছে সরকার।

পরিবহন খাতসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, পদ্মা সেতু চালু হলে ঢাকা থেকে কুয়াকাটা যেতে ছয় থেকে সাত ঘণ্টা সময় লাগতে পারে। এখন ফেরিঘাটে জট না থাকলে ১০ ঘণ্টার মতো সময় লাগে। তবে জট থাকেই। কখনো কখনো ১৫ ঘণ্টায়ও পৌঁছানো যায় না। পায়রা নদী পার হতে যানবাহনকে এক থেকে দেড় ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হতো।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সংগঠন পটুয়াখালী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও পটুয়াখালী সদর পৌরসভার মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, বরিশাল থেকে পটুয়াখালীকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছিল পায়রা নদী। সেই পায়রা নদীর ওপর সেতু হয়েছে। এখন পদ্মা সেতু হলেই নির্বিঘ্নে ঢাকা থেকে পর্যটনকেন্দ্র কুয়াকাটা আসা যাবে। তিনি বলেন, এখন পায়রা বন্দরের গুরুত্ব বেড়ে যাবে। ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়বে।

কক্সবাজারের পর দেশের বড় সমুদ্রসৈকত কুয়াকাটা। শুধু পর্যটন সম্ভাবনা নয়, সেখানে শিল্পায়নের পরিকল্পনাও রয়েছে সরকারের। অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার কাজ চলছে। পায়রায় তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র হয়েছে। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় শেরেবাংলা ত্রিমাত্রিক নৌঘাঁটির কাজ চলছে। কুয়াকাটায় পর্যটন খাতে নতুন নতুন বিনিয়োগ হচ্ছে। সবার আশা, আগামী দিনগুলোতে কুয়াকাটায় পর্যটকের সংখ্যা অনেক বাড়বে।

কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরীফ বলেন, সড়কপথে ভোগান্তির কারণে দূরের জেলা থেকে মানুষ এত দিন কুয়াকাটা যেতে চাইতেন না। এবার তাঁদের বিড়ম্বনা কমবে। কুয়াকাটায় পর্যটক বাড়বে।

ঢাকা-বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার লেবুখালী এলাকার পায়রা নদীর ওপর নির্মাণ করা হয়েছে এই পায়রা সেতু। চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর ওপর শাহ আমানত সেতুর আদলে নান্দনিক নকশায় সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে। চার লেনের এই সেতুর দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৪৭০ মিটার, প্রস্থ ১৯ দশমিক ৭৬ মিটার। জলতল থেকে সেতুটি ১৮ দশমিক ৩০ মিটার উঁচু।

সেতুর উভয় পারে সাত কিলোমিটারজুড়ে নির্মাণ করা হয়েছে সংযোগ সড়ক। নদীর মাঝখানে মাত্র একটি খুঁটি বা পিলার ব্যবহার করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, এ কারণে নদীর স্বাভাবিক প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হবে না। এ ছাড়া এই সেতুতে ‘ব্রিজ হেলথ মনিটর (সেতুর স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণব্যবস্থা)’ স্থাপন করা হয়েছে। এতে বজ্রপাত, ভূমিকম্পসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা অতিরিক্ত পণ্যবোঝাই যানবাহন চলাচলে সেতুর কোনো ক্ষতির আশঙ্কা তৈরি হলে আগেভাগেই সংকেত পাওয়া যাবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, সরকার ২০১২ সালের মে মাসে পায়রা সেতু নির্মাণ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়। ২০১৩ সালের ১৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পায়রা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। শুরুতে সেতু নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছিল প্রায় ৪১৩ কোটি টাকা। পরে নকশা পরিবর্তন করে ব্যয় ধরা হয় ১ হাজার ১৭০ কোটি টাকা। অবশ্য সেতুটি নির্মাণে খরচ হয়েছে মোট ১ হাজার ১১৮ কোটি টাকা।

নির্মাণে অর্থায়ন করেছে কুয়েত ফান্ড ফর আরব ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট ও ওপেক ফান্ড ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট। নির্মাণকাজ করেছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান লংজিয়ান রোড অ্যান্ড ব্রিজ কনস্ট্রাকশন।

পায়রা সেতু প্রকল্প পরিচালক আবদুল হালিম  বলেন, সেতুটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত হলে আর ভোগান্তি থাকবে না।

পায়রা সেতু এলাকায় গত শুক্রবার বিকেলে গিয়ে দেখা যায়, দৃষ্টিনন্দন এই সেতু দেখতে অনেকেই ভিড় করেছেন। সন্ধ্যায় নানা রঙের ঝলমল আলোয় আলোকিত করা হয় সেতুটি। এলাকার মানুষের মধ্যেও উৎসবের আমেজ। তাঁরা একে দেখছেন স্বপ্নপূরণ হিসেবে।

পটুয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা খলিলুর রহমান বলেন, সেতুটি উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলবাসীর স্বপ্নপূরণ হবে।

89 ভিউ

Posted ১২:৩৫ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১

coxbangla.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

Archive Calendar

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

Editor & Publisher

Chanchal Dash Gupta

Member : coxsbazar press club & coxsbazar journalist union (cbuj)
cell: 01558-310550 or 01736-202922
mail: chanchalcox@gmail.com
Office : coxsbazar press club building(1st floor),shaheed sharanee road,cox’sbazar municipalty
coxsbazar-4700
Bangladesh
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ABOUT US :

coxbangla.com is a dedicated 24x7 news website which is published 2010 in coxbazar city. coxbangla is the news plus right and true information. Be informed be truthful are the only right way. Because you have the right. So coxbangla always offiers the latest news coxbazar, national and international news on current offers, politics, economic, entertainment, sports, health, science, defence & technology, space, history, lifestyle, tourism, food etc in Bengali.

design and development by : webnewsdesign.com