নাঈম রিমান্ডে, ধর্ষণের দায় স্বীকার করে আদালতে সাফাত ও সাদমানের জবানবন্দি

bn-3.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৮ মে) :: বনানীর ধর্ষণ মামলার আসামি নাঈম আশরাফ ওরফে হাসান মোহাম্মদ হালিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আদালত সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে।

তদন্ত কর্মকর্তার করা রিমান্ড আবেদনের শুনানি করে ঢাকার মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জামান বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেন।

এদিকে এ মামলার প্রধান আসামি আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তারা দায় স্বীকার করে এই জবানবন্দি দেয়। ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান এই তথ্য জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী পরিষদের আইনজীবী ফাহমিদা আক্তার রিংকি জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার মধ্যে সাফাত ও সাদমানকে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল। বিচারকের খাস কামরায় তাদের জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করা হয়।

তিনি আরো জানান, ঢাকা মহানগর হাকিম আহসান হাবীব সাফাতের বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন। এদিকে সাদমান সাকিফের স্বীকারোক্তিমূলক বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন আরেক ঢাকা মহানগর হাকিম সাব্বির ইয়াসির আহসান।

সাফাত ও সাদমান ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হওয়ায় তাদের আদালতে নেওয়া হয়। সাদমানের পাঁচ দিনের রিমান্ড আজ বৃহস্পতিবার এবং সাফাতের ছয়দিনের রিমান্ড শুক্রবার শেষ হচ্ছে।

গত ৬ মে বনানী থানায় সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফসহ পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা করেন দুই তরুণী। বনানীর ‘কে’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের ৪৯ নম্বরে রেইনট্রি হোটেলের একটি রুমে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ করেন তারা। মামলার সব আসামিকেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri