চকরিয়ায় সামাজিক বনায়নের প্লট নিয়ে দুইপক্ষে সংর্ঘষ: আহত-৬

ck4.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(৪ জুন) :: চকরিয়া উপজেলার ফাঁশিয়াখালীতে সামাাজিক বনায়ন নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় উভয় পক্ষের ৬জন আহত হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার ফাঁশিয়াখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘুণিয়া এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় বনায়নের উপকারভোগী পক্ষের একজন বাদি হয়ে গতকাল রোববার ৮জনকে আসামী করে চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

আহত উপকারভোগী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চকরিয়া উপজেলার ফাঁশিয়াখালী রেঞ্জের সংরক্ষিত বনাঞ্চলে এলাকার ২৫জন ভূমিহীনকে ২৫ একর জমি সামাজিক বনায়নের জন্য জমি বরাদ্দ দেন। ইতোমধ্যে উপকারভোগী ২৫ জনের নামে ২৫টি দলিল সৃজনের কার্যক্রম শেষ হয়েছে। উপকারভোগীদের নামে বরাদ্দকৃত জায়গায় বনবিভাগের তরফ থেকে গাছের চারা রোপন করা হয়েছে।

স্থানীয় কয়েকজন উপকারভোগী জানান, উপকারভোগীরা বনায়নের জন্য ঘেরা বেড়ার কাজ করছেন। শনিবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে স্থানীয় বাবুল শিকারীর পুত্র মোহাম্মদ ফরহাদ, কলিম উল্লাহর পুত্র গিয়াস উদ্দিনের নেতৃত্বে ১০-১২জন ভূমিদস্যু বনবিভাগের বরাদ্দকৃত জমি তাদের বলে দাবী করে কাজে বাধা দেন। এসময় জরবদখলকারীদের হামলা ও মারধরে উপকারভোগী শের আলমের পুত্র হামিদুল হক (৪০), আমির হোসেনের পুত্র মকছুদ আহমদ (৩৬), জাফর আলমের পুত্র আলমগীর (৪০) ও নুরুল আলমের পুত্র এয়ার খান ভূট্টো (৩০) গুরুতর আহত হন।

আহতরা জানান, ঘটনার সময় ভূমিদস্যুরা তিন রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। হামলার সময় তাদের কাছ থেকে দামী ঘড়ি, মোবাইল, নগদ টাকা সহ মোট ৮২ হাজার টাকা লুটে নিয়ে যিায়।

এঘটনায়  রোববার আহত হামিদুল হক বাদী হয়ে হামলাকারী পক্ষের ৮জনের নাম উল্লেখ করে চকরিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri