buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের ইঙ্গিত

M-A-MAnna20170613142207.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৩ জুন) :: প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যাংক আমানতের ওপর বর্ধিত আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি অব্যাহত রয়েছে সংসদে। এর পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান ১৩ জুন সংসদে বর্ধিত আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছেন।

ব্যাংক আমানতের ওপর বর্ধিত আবগারি শুল্কের বিষয়ে এমএ মান্নান বলেন, আমাদের অর্থমন্ত্রী জনগণের মধ্যে বসবাস করেন, সংসদে বসবাস করেন। তিনি এ সংসদেরই নেতা, তিনি বোবা-কানা নন। বাইরে যেসব আলোচনা হচ্ছে, আশা করি আমরা আলোচনার মাধ্যমে সে বিষয়ে একটি সমাধানে পৌঁছতে পারব। সরকারের উচ্চমহলে এ বিষয়ে আলোচনা চলছে।

তিনি বলেন, আমাদের বাজেট আগ্রহ জাগিয়েছে সারা দেশে। সব জায়গায় এটা নিয়ে আলোচনা চলছে। এবারের বাজেট নিয়ে ভীতির কারণ নেই। অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মী হিসেবে কথা দিচ্ছি, সবার পরামর্শ ও সুপারিশ বিবেচনা করা হবে। জাতির জন্য যেটা মঙ্গল হবে, তা-ই করা হবে। আমরা উন্নয়ন অর্থনীতির জন্য ঝুঁকি নিয়ে বাজেট দিয়েছি।

ব্যাংক আমানতে বর্ধিত আবগারি শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে ১৩ জুন সংসদে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্যরা। সদ্য আওয়ামী লীগে যোগ দেয়া স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী বলেন, সংসদে ও সংসদের বাইরে যখন বাজেট নিয়ে আলাপ-আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আবগারি শুল্ক, তখন অর্থমন্ত্রী আবার আবগারি শুল্কের পক্ষে অবস্থান নিয়ে যেন আগুনে ঘি ঢেলে দিয়েছেন।

এছাড়া নির্বাচনের আগে ভ্যাট আইন কার্যকর করার বুদ্ধি ভোটের রাজনীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক নয় কি? এটি তো ’৮১-৮২ সালে মুহিত সাহেবের প্রণীত সেনাপ্রধানের বাজেট নয়, যে মন চাইল আর প্রস্তাব করে দিলাম। এটি একটি রাজনৈতিক সরকারের বাজেট, যাকে দেড় বছর পর আবার জনগণের কাছে ম্যান্ডেট চাইতে হবে।

বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ তাজুল ইসলাম বলেন, এবারের বাজেটে অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি পড়েছে সাধারণ মানুষের ওপর। তাই আবগারি শুল্ক নিয়ে দেশে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। যদি আগেরটাও তিনি বজায় রাখেন, তাহলে জনমনে স্বস্তি ফিরে আসবে।

জাতীয় পার্টির এ সংসদ সদস্য বলেন, বাজেটের আয় অনেকটা মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তদের ওপর নির্ভর করছে। ব্যাংকে টাকা রাখা ও উড়োজাহাজের টিকিট কাটার ওপর কর বাড়ানো হয়েছে। যারা বিদেশে টাকা পাচার করে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যকরী কোনো উদ্যোগ নেই। বেশির ভাগ মানুষ এ বাজেটে খুশি হতে পারেনি। এছাড়া ১ হাজার ৪৩টি পণ্য ভ্যাটের আওতার বাইরে রাখাকে শুভঙ্করের ফাঁকি বলে মনে করি।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri