izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

টেকনাফের নাফনদীতে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ এক শিশুর লাশ উদ্ধার : এখনো নিখোঁজ-২

teknaf-naf-river-sink-dead-body-recover-coxbangla.jpg

হুমায়ুন রশীদ,টেকনাফ(২৮ জুন) :: ঈদের দিন ভ্রমণে গিয়ে টেকনাফের নাফ নদীতে নতুন জেটি ঘাটে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ এক শিশুর লাশ উদ্ধার হয়েছে। বুধবার সকাল ১১টায় টেকনাফের ১নং সুইস গেটে থেকে মো. আমিন নামে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া শিশু মো. আমিনের (৯) টেকনাফের ইসলাবাদের ছব্বির আহমেদ মনু মিয়ার ছেলে।বুধবার দুপুর ১২টার দিক স্থানীয় কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

তবে এখনো ২জন নিখোঁজ রয়েছে।নিখোঁজদের উদ্ধারে বিভিন্ন সংস্থা কাজ করে যাচ্ছে।

জানা যায়,২৭জুন বিকাল ৪টারদিকে টেকনাফ পৌর এলাকার নবনির্মিত জেটিঘাটে ১৭জনের একদল যুবক বড় একটি নৌকা নিয়ে নাফনদীতে ভ্রমণে বের হয়। ফিরে আসার সময় অসাবধানতাবশত নৌকাটি জেটির সাথে ধাক্কা লাগলে ঝুঁিকপূর্ণ জায়গায় বসা ৭জন নদীতে পড়ে যায়। এসময় উপস্থিত জেলেও লোকজনের সহায়তায় সইফুল ইসলামসহ ৪জনকে আহত ও মুমূর্ষাবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এদিকে টেকনাফ পৌরসভাস্থ মৌলভী পাড়ার মীর আহমদের পুত্র আনোয়ার সাদেক (১৪) ও নাজিরপাড়ার হামিদ হোসেনের পুত্র সাদ্দাম হোসেন (১৫) নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় টেকনাফ কোস্টগার্ড ষ্টেশনের জওয়ানেরা নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

এই নৌ-দূঘর্টনার খবর পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি,রাজনৈতিক নেতা,প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্প,জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ৩জন নিখোঁজ থাকার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে বলে জানা গেছে।

এদিকে ভাটার প্রবল ¯্রােতের টানে নিখোঁজদের সলিল সমাধি ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই ঘটনার পর পরই নিখোঁজদের পরিবারের ঈদের খুশির আনন্দের পরিবর্তে শোকের ছায়া নেমে আসে।

 

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri