চকরিয়ায় বিক্ষুদ্ধ জনতার পিটুনিতে যুবক নিহত : বন্দুক উদ্ধার

hamla-ganopitoni-logo.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(৩ আগস্ট) :: চকরিয়ায় বিক্ষুদ্ধ জনতার বেদড়ক প্রহারে রুকন উদ্দিন (২৮) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে ওয়াজ উদ্দিন (২৪) নামের অপর এক যুবক। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় তৈরী একটি বন্দুক ও গ্রিল কাটার মেশিন করেছে।

পুলিশের দাবি, প্রবাসী বাড়িতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে জনতা প্রতিরোধ করে ঘটনাস্থলে জনতার পিটুনিতে ওই যুবক নিহত হন।

অপরদিকে নিহতের বাবা সাবেক মেম্বার জাফর আহমদ অভিযোগ করেছেন, তার ছেলে রোকন উদ্দিন পেশায় পরিবহন শ্রমিক। খালার বাড়িতে বেড়াতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সন্ত্রাসীরা তাকে ধরে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার ভোররাত আনুমানিক ৪টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড়ের আমান চর এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা।

নিহত রোকন উদ্দিন উপজেলার পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের সিকান্দর পাড়া গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য জাফর আহমদের ছেলে। অন্যদিকে আহত ওয়াজ উদ্দিন একই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ লালব্রীজ ঈদমণি এলাকার শামসুল আলমের ছেলে। ওয়াজ উদ্দিন বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বৃহস্পতিবার ভোররাতে চকরিয়া পৌরসভার আমান পাড়া গ্রামে ৫-৬জনের সশস্ত্র একদল ডাকাত সদ্য বিদেশ ফেরত সাহাবউদ্দিনের বাড়িতে হানা দেয়। বাড়িতে ডাকাত এসেছে বুঝতে পেরে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে পরিবারের লোকজন।

এসময় আশপাশের এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে অন্য ডাকাতরা পালিয়ে গেলেও রোকন উদ্দিন ও ওয়াজ উদ্দিনকে ধরে গণপিটুনি দেয় স্থানীয় লোকজন।

খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক থানার এস আই জাহাঙ্গীর আলমসহ পুলিশের একটিদল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ওসি বলেন, হাসপাতালে নেয়ার পর সকাল সাতটার দিকে রুকন উদ্দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পুলিশ তার লাশের ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন।

 

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri