নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে পাচারকালে মিয়ানমারের ৮টি গরু আটক

n19.jpeg

আব্দুল হামিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি(১৯ আগষ্ট) :: বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের চোরাই পথ দিয়ে অবৈধ ভাবে পাচারকালে মিয়ানমারের ৮টি গরু আটক করেছে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) ৩১ ব্যাটালিয়ান।

শুক্রবার (১৮ আগষ্ট) দিবাগত রাত ১ টার দিকে জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী আশারতলী-জারুলিয়াছড়ি এলাকা থেকে এসব গরু আটক করা হয়।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, ব্যাটালিয়ানের সুবেদার অসিত কুমার নন্দীর নেতৃত্বে টহলদল গোপন সংবাদ পেয়ে জারুলিয়াছড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব গরু আটক করে। এসময় বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারীরা গহীন অরণ্যে গহীন অরণ্যে পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক সম্ভব হয়নি বলে জানান।

এ বিষয়ে ৩১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের টহলদলের কমান্ডার সুবেদার অসিত কুমার নন্দী গরু আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সীমান্তে চোরাকারবারিদের বিরুদ্ধে বিজিবির সদস্যদের অভিযান অব্যাহত থাকবে, এবং চোরাই কারবারীদের ধরতে সম্ভাব্য স্থানে অভিযান চলবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আটক গরুগুলো স্থানীয় বাসিন্দা জনৈক গফুর ও মোস্তাক সাওদাগরের সিন্ডিকেটের সদস্যরা মিয়ানমার থেকে অবৈধভাবে পাচার করে নিয়ে আসছিল। জারুলিয়াছড়ি, আশারতলী, চেরারকুল এলাকার অন্তত ৩০জনের একটি সিন্ডিকেট মিয়ানমার থেকে ইয়াবা, গরু সহ নানা পণ্য অবৈধভাবে চোরাই পথে নিয়ে আসার কাজে জড়িত রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

আটক গরুগুলো যাচাই বাছাই করার জন্য ব্যাটালিয়ান সদরে রাখা হয়েছে। তবে প্রভাবশালী একটি মহল বসতবাড়ির পালিত গরু অজুহাতে ছাড়িয়ে নিতে তৎপর রয়েছে বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে সীমান্তের স্থানীয় এক বাসিন্দা জানিয়েছেন।

অপরদিকে শুক্রবার রাত বারটার সময় আশারতলী বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা শামসুল আলম (৩৫) ও মো. হোসেন (২৫) নামে দুই মায়ানমারের নাগরিক আটক করেছে। তাদের বাড়ি আরকান রাজ্যে বুছিডং জেলায় বলে তারা স্বীকার করেন। আটক দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সংশিষ্ট আইনে মামলা রুজু করে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri