চকরিয়ায় মামলায় করায় বাদিকে আসামির গুলি

goli-1.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(৩১ আগস্ট) :: চকরিয়ায় মামলায় আসামি করার জেরে ক্ষিপ্ত হয়ে দিনদুপুরে বাদিকে গুলি করেছে আসামি।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের আম্মারডেরা এলাকার হাসান মিয়ার পদ্ধতির মৎস্যঘোনার সামনে ঘটেছে গুলি বর্ষণের এ ঘটনা।

আহত মামলার বাদি আবু তাহের (৪২) শরীরের একাধিক স্থানে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। ঘটনার পর আহত ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। তবে অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। আহত আবু তাহের স্থানীয় আম্বারডেরা এলাকার মৃত আবদুল গনীর ছেলে।

আহত ব্যক্তির ছেলে রেজাউল করিম জানান, তাঁর বাবা আবু তাহের দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় নুরুন নাহার ডলির জায়গা-জমি দেখভালে কেয়ারটেকার হিসেবে কাজ করেন। কিছুদিন আগে ডলির পৈত্রিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলার ঘটনায় মালিকের পক্ষ থেকে চকরিয়া থানায় একটি জিআর মামলা (নং ২৩৫/১৭) দায়ের করেন আবু তাহের। ওই মামলায় অন্যদের সাথে এজাহারে আসামি করা হয় চিহিৃত সন্ত্রাসী সোহেল। অভিযুক্ত সোহেল একই এলাকার কামাল হোসেনের ছেলে।

রেজাউল করিম অভিযোগ করেছেন, মামলাটি রুজু করার পর অভিযুক্ত আসামি সোহেল তাঁর বাবাকে (আবু তাহের) থেকে নানাভাবে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। এ ঘটনায় সম্প্রতি তাঁর বাবা বাদি হয়ে জেলা পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগও করেন। এতে আরো ক্ষিপ্ত হন আসামি সোহেল।

মুলত এরই জের ধরে সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে তাঁর বাবা (আবু তাহের) বাড়ি থেকে জরুরী কাজে চকরিয়া সদরে যাওয়ার পথে আম্মারডেরাস্থ হাসান মিয়ার পদ্ধতির মৎস্যঘোনা এলাকায় পৌঁছলে সেখানে আগে থেকে উৎপেতে থাকা আসামি সোহেল পেছন থেকে গুলি বর্ষণ করে। এতে তাঁর বাবা কোমড়ে, পিঠে ও হাতে গুলিবিদ্ধ হন।

চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মো.মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনার খবর শুনে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশের একটিদলকে পাঠানো হয়। তবে পুলিশ সেখানে পৌঁছার আগে হামলারকারী ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri