পেকুয়ায় কিশোরকে পিটিয়ে টাকা লুট

hamla-marpit-loot.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(৬ অক্টোবর) :: পেকুয়ায় কিশোরকে পিটিয়ে টাকা লুট করেছে দুবৃর্ত্তরা। এ সময় মুমূর্ষ অবস্থায় প্রত্যক্ষদর্শীরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ঘটনার সুত্র ধরে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শুক্রবার বিকেল তিনটার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের বাইন্যাঘোনা কাটাফাঁড়ি ব্রীজ সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

জখমী কিশোরের নাম আমজাদ হোসেন(১৬)। তিনি মগনামা ইউনিয়নের মটকাভাঙ্গা এলাকার আহমদ ছফার ছেলে। এ বিষয়ে কিশোরের পিতা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পেকুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই দিন বিকেলে আমজাদ হোসেন তার নানার বাড়ি সদর ইউনিয়নের মগকাটা এলাকা থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তার মামা মগকাটা এলাকার শহর মুল্লুকের ছেলে নুরুল আজিমের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে মটকাভাঙ্গা নিজ বাড়িতে পৌছানোর সময় কাটাফাঁড়ি ব্রীজের দক্ষিন অংশ পৌছলে কাটাফাঁড়ি পশ্চিম উজানটিয়া সড়কের ওই স্থানে তাকে প্রতিরোধ করা হয়।

এ সময় বাইন্নাঘোনা এলাকার সাহাব উদ্দিনের ছেলে জয়নাল আবেদীন, নাজেম উদ্দিনের ছেলে লোকমানসহ ৫ জনের দুবৃর্ত্ত তাকে এলোপাতাড়ি হামলা চালায়। এ সময় ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা।

মগনামা ৬ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আমজাদ হোসেনের জেঠা নুরুচ্ছফা জানায়, তারা আমার ভাতিজাকে মারধর করে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

আমজাদের পিতা আহমদ ছফা জানায়, তারা ছিনতাইকারী। টাকা ছিনিয়ে নিতে এ ঘটনা সংঘটিত করেছে। লোকজন না আসলে আমার ছেলেকে আরো বেশী মারধর করা হত।

পেকুয়া থানার ওসি জহিরুল ইসলাম খান জানায়, এ ধরনের একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করবে পুলিশ।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri