izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

কক্সবাজারের ঈদগাওতে পুলিশিং সমাবেশে এসপি : জঙ্গি ও মাদক মুক্ত করতে হলে জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে

e12.jpg

মো. রেজাউল করিম, ঈদগাঁও(১২ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ড. একেএম ইকবাল হোসেন বলেছেন, এদেশ আমাদের সবার। দেশের প্রতিটি এলাকাকে মাদক ও জঙ্গিমুক্ত করা দরকার। তিনি বলেন, জনতাকে সাথে নিয়ে ঈদগাঁওবাসীর নিরাপত্তায় এক সাথে কাজ করতে চাই। এলাকাকে অপরাধ মুক্ত করতে হলে পুলিশ ও জনতার মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সহমর্মিতা থাকতে হবে। কেউ নিরপরাধকে হয়রানি করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি রোহিঙ্গাদের উখিয়ায় ফেরত পাঠাতে উপস্থিত জনতার সহায়তা কামনা করেন।

তিনি আরো বলেন, কাজ করতে পরিচয়পত্র লাগে না। কেউ মিথ্যা গুজবে বিশ্বাস করবেন না। অহেতুক উস্কানিতে কান দেবেন না। তিনি পুলিশ-জনতা সবাইকে পারস্পরিক দ্বিধাদ্বন্ধ ও ভেদাভেদ ভূলে এলাকার স্বার্থে কাজ করার আহবান জানান।

১২ নভেম্বর বিকালে বৃহত্তর ঈদগাঁও কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজার সদর উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং সভাপতি এড সৈয়দ মো: রেজাউর রহমান।

বৃহত্তর ঈদগাঁও কমিউনিটি পুলিশিং অফিসার হিসেবে দায়িত্বরত এএসআই মো: মহিউদ্দীনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আফরুজুল হক টুটুল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মো: গোলাম রুহুল কুদ্দুচ, ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ইনচার্জ মো: খায়রুজ্জামান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার সদর মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ রনজিদ কুমার বড়–য়া, কক্সবাজার সদর আ’লীগ সভাপতি মো: আবু তালেব। ওসি রনজিত বড়–য়া বলেন, অপরাধ নির্মূল, বাল্য বিবাহ, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে কমিউনিটি পুলিশের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি ফেইসবুকে আপত্তিকর তথ্য দেয়া থেকে বিরত থাকার কথা জানিয়ে বলেন, বৃহত্তর এ এলাকার ছয় ইউনিয়নের জান-মালের নিরাপত্তা রক্ষা স্বল্প সংখ্যক পুলিশের পক্ষে সম্ভব নয়। তা সত্ত্বেও পুলিশ এলাকাবাসীকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়ার চেষ্টা করছে।

সভাপতি রেজাউর রহমান তার বক্তব্যে এলাকাকে অপরাধ মুক্ত করতে কমিউনিটি পুলিশের পরিচয়পত্র ও প্রশাসনের অনুপ্রেরণা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন।

সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, বাল্য বিবাহ, যৌতুক ও ইভটিজিং রোধে আইন শৃংখলা বিষয়ে আয়োজিত এ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা পরিষদ প্যানেল চেয়ারম্যান-২ সোহেল জাহান চৌধুরী, ঈদগাঁও চেয়ারম্যান ছৈয়দ আলম, পোকখালীর চেয়ারম্যান রফিক আহমদ, ভারুয়াখালীর চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান, জালালাবাদ চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ, ইদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক খুরশিদুল জন্নাত, ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্র এএসআই মাইনুদ্দীন, জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির হিমু, ঈদগাঁও আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক তারেক আজিজ, ইসলামাবাদ আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এমইউপি, জালালাবাদ আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক ডা: এম. মমতাজুল ইসলাম রিয়াজ, সদর যুবলীগ সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুল হক, সহ-সভাপতি ওসমান সরওয়ার ভিপু, ঈদগাঁও কমিউনিটি পুলিশ কর্মকর্তা কায়ুম উদ্দীন ডিসেন্ট, উপজেলা ছাত্রলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাশেদ উদ্দীন রাসেল, সার্বিক তত্ত্বাধানে ছিলেন সদর উপজেলার কমিউনিটি পুলিশিং সাধারণ সম্পাদক আবদু রাজ্জাক এমইউপি। ২য় পর্বে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এর আগে অপরাধ নির্মুল, ওয়ারেন্ট তামিলে সহযোগিতা ও মাদক নির্মূলে অবদান রাখায় বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটি এবং উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সম্মাননা ও ক্রেস্ট দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিক ও সূধীজনসহ বৃহত্তর ঈদগাঁওর বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড সমূহের কমিউনিটিং পুলিশিং কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri