রোহিঙ্গারা ফিরে গিয়ে নিরাপদে বসবাস করতে পারে সে লক্ষে কাজ করছে বাংলাদেশ : রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ

cOXSBAZAR-PRASIDANT-26.11.2017.jpg

কক্সবাংলা রিপোর্ট(২৬ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের উখিয়ায় বালুখালী স্থাপিত রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করার পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। রোববার বিকেল ৪টার দিকে তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বালুখালী ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে রাষ্ট্রপতি বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রোহিঙ্গাদের নিবন্ধন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।এরপর সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত মেডিকেল ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।এসময় তিনি মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের দু:খ দুর্দশার কথা শুনেন। পরে তিনি বালুখালি ২নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ২ হাজার রোহিঙ্গার মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন।

ত্রাণ বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ বলেন,রোহিঙ্গারা যাতে দেশে ফিরে গিয়ে নিরাপদে বসবাস করতে পারে সে লক্ষে কাজ করছে বাংলাদেশ সরকার। বিশ্ব সম্প্রদায়ের চাপের মুখে পড়ে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকার দিয়েই স্বদেশে ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের জন্য এই রোহিঙ্গারা একটা বার্ডেন। কিন্তু মানবিক দিক বিবেচনায় বাংলাদেশ তাদেরকে আশ্রয় দিয়ে সাধ্যমত রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এখন চুক্তি হয়েছে। রোহিঙ্গা যাতে নিজ দেশে সম্মানের সাথে ফিরতে পারে সেটা নিশ্চিত করা হবে।

এসময় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে রাষ্ট্রপতির সাথে উপস্থিত ছিলেন,দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন হোসেন চৌধুরী মায়া,নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ,প্রেস সচিব,কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন, পুলিশ সুপার ড. একেএম ইকবাল হোসেন,উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তা,সংসদ সদস্যবৃন্দ,জেলা আওয়ামীলীগ নের্তৃবৃন্দ সহ স্থানীয় প্রসাশনের কর্মকর্তারা।

পরে বিকাল ৫টায় রাষ্ট্রপতি উখিয়ার ইনানীস্থ হোটেল রয়েল টিউলিপে ফিরে যান।

জানা যায়,দুই দিনের সফরে কক্সবাজারের ইনানীতে বাংলাদেশ নেভির একটি কর্মসূচির উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এক মুখপাত্র বলেন, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ পরদিন সোমবার কক্সবাজারের ইনানি বিচসংলগ্ন হোটেল রয়েল টিউলিপে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের নৌবাহিনী সিম্পোজিয়ামের (আইওএনএস) আন্তর্জাতিক সমুদ্র মহড়ার উদ্বোধন করবেন।

তিনি জানান, ৯টি পর্যবেক্ষক দেশসহ ৩২টি দেশের নৌ-বাহিনীর যুদ্ধজাহাজ, নৌপ্রধান, সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মেরিটাইম বিশেষজ্ঞগণ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। রাষ্ট্রপতি পরের দিন বিকেলে বঙ্গভবনে ফিরার কথা রয়েছে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri