Home আন্তর্জাতিক জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প

31
SHARE

কক্সবাংলা ডটকম(৭ ডিসেম্বর) :: নিজ দেশসহ বিভিন্ন দেশের পক্ষ থেকে সমালোচনার মুখেও তেল আবিবের বদলে জেরুজালেম শহরকে একপক্ষীয়ভাবে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউজে দেয়া এক ভাষণে তিনি এই বিতর্কিত স্বীকৃতি দেন।

ভাষণে ট্রাম্প বলেন: আমেরিকান দূতাবাস তেল আবিব থেকে জেরুসালেমে সরিয়ে নেয়া হবে। তবে এই সিদ্ধান্তের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার দৃঢ় অঙ্গীকার থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে আসবে না।

১৯৪৮ সালে ইসরায়েলের পত্তনের পর বিশ্বের প্রথম রাষ্ট্র হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। এই সিদ্ধান্ত কয়েক দশকের আমেরিকান নীতিকে বদলে দিয়েছে বলে বিশ্লেষকরা বলছেন। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন: মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিতে এই পদক্ষেপ ছিল ‘বহুল প্রতীক্ষিত।’

কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প এই সিদ্ধান্তকে ‘বহুল প্রতীক্ষিত’ বললেও খোদ মার্কিন প্রশাসনের ভেতরেই তা বাধার মুখোমুখি হয়েছিল। কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ওই অঞ্চলসংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা এবং একাধিক আরব দেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতরা এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নিজেদের মতামত ব্যক্ত করেছিলেন। জেরুজালেম শহর তিন ধর্মের মানুষের তীর্থস্থান হওয়ায় এমন সিদ্ধান্তে সেখানে সহিংসতা বাড়ার আশঙ্কা ছিল ওই কর্মকর্তাদের।

আরব বিশ্বের নেতারা শুরু থেকেই এ বিষয়ে বলে আসছেন, ইসরায়েলের মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নেয়াটা ঠিক হবে না। এটি ‘মুসলিমদের প্রতি একটি নৈতিক উস্কানি’ হয়ে উঠতে পারে। ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের একজন মুখপাত্র তখন বলেছিলেন: এই সিদ্ধান্ত দু’দেশের জন্য বিপজ্জনক পরিণতি ডেকে আনবে।

ইসরায়েল-জেরুজালেম-রাজধানী-স্বীকৃতিজেরুজালেম শহরটি একই সঙ্গে ইহুদি ও মুসলিমদের জন্য একটি পবিত্র ধর্মীয় নগরী। এ কারণে এর দখল এবং প্রবেশাধিকার নিয়ে বহু বছর ধরেই তীব্র দ্বন্দ্ব চলছে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিদের মাঝে। ইসরায়েল সবসময়ই জেরুজালেমকে তার রাজধানী হিসেবে বলে এসেছে। অন্যদিকে ফিলিস্তিনিদের দাবি, পূর্ব জেরুজালেম ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী।

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র স্বীকৃতি দেয়ায় ফ্রান্সও উদ্বেগ জানিয়েছে। সমঝোতার মাধ্যমে সংকট সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোন। এর আগে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি না দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জর্ডান।

যুক্তরাষ্ট্র যদি জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেয় তবে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নেবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি। এ বিষয়ে তিনি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনকে বলেছেন: যুক্তরাষ্ট্র এমন ঘোষণা দিলে আরব এবং মুসলিম বিশ্বে ভয়াবহ বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হবে।

SHARE