পেকুয়ার কেপিএলে জিতল পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংস

IMG_1904.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি(৯ জানুয়ারি) :: কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের কাছারীমোড়া প্রিমিয়ার লিগের (কেপিএল) দশম আসরের প্রথম রাউন্ডের ৮ম খেলায় মগনামার আবুজর গিফারীর ইলেভেন ব্লাস্টার্সের বিপক্ষে বিশাল ব্যবধানেই জিতল পেকুয়া সদরের সাংবাদিক দিদারুল করিমের পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংস। ইলেভেন ব্লাস্টার্সকে ১০ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়েছে পল্লীবন্ধু।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটায় কেপিএল মাঠে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেল তিনটায় দুই দলের মধ্যে টস করেন অ্যাম্পায়ার সুজিত দাশ ও নুর মোহাম্মদ মামুন। এরপর জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় নির্ধারিত ১০ ওভারের খেলা। টসে জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংসের অধিনায়ক কায়েম উদ্দিন।

ইলেভেন ব্লাস্টার্সের হয়ে ওপেনার হিসেবে মাঠে নামেন আরকান ও রাশেদ। খুব স্লোলি ব্যাট চালাচ্ছিলেন তাঁরা। পল্লীবন্ধুর বোলার রোমানের বলে ক্যাচ দিয়ে দুই রান নিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন হার্টহিটার ব্যাটসম্যান আরকান, যিনি ইতিমধ্যে দুইম্যাচ খেলে ৮০ রান সংগ্রহ করেছিলেন। মাঠে নামেন বাবু।

তিনি দুইটি ছক্কা ও একটি চার হাকিয়ে সংগ্রহ করেন ১৯ রান। সুমনের বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান বাবু। এরপর মাঠে নামেন রাজিব। কায়েসের বলে আউট হয়ে ফিরে যান রাশেদ। মাঠে নামেন সাকিব। সাকিব ও রাজিবকে মাত্র এক রান দিয়েই প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান পল্লীবন্ধুর বিধ্বংসী বোলার সুমন। মাঠে নামেন ইমরান ও মোস্তাকিম বাবু। তাঁরা দুইজনেই রানআউটের ফাঁদে পড়েন। ততক্ষনে নির্ধারিত ১০ ওভার শেষ হয়ে যায়। স্কোর দাঁড়ায় ৬৩/৭।

৬৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে নামেন পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংসের অধিনায়ক কায়েম ও হার্টহিটার ব্যাটসম্যান সুমন। তাঁদের ব্যাটে অসাধারণ নৈপুণ্য লক্ষ্য করা যাচ্ছিল। কায়েম চারটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকিয়ে ২৬ রান সংগ্রহ করেন। অপরপ্রান্তের সুমনও তিনটি ছক্কা ও দুইটি চারের সাহায্যে সংগ্রহ করেন ২৯ রান। তাঁদের বিধ্বংসী ব্যাটে উড়ে গেছে ইলেভেন ব্লাস্টার্স। কোনো উইকেট না হারিয়েই তাঁরা জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায়। ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে জিতে যায় পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংস।

খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন পল্লীবন্ধু ক্রিকেট কিংসের হার্টহিটার ব্যাটসম্যান সুমন। তিনি তিন উইকেট ও ব্যক্তিগত ২৯ রান নিয়ে ম্যাচ সেরা হন। ধারাভাষ্যকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বেলাল উদ্দিন বিল্লাল।

এরপর অনুষ্ঠিত হয় পুরস্কার বিতরণ।

কেপিএল পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাহেদুল ইসলাম শাহেদের সভাপতিত্বে ও কেপিএল পরিচালনা কমিটির মহাসচিব তানজিমুল ইসলাম জিসাদের পরিচালনায় পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার তুলে দেন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও রাজনীতিবিদ মুহাম্মদ রিদওয়ানুল হক জুনুন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শিলখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শেখ ফরিদুল আলম, কেপিএলের প্রধান উপদেষ্টা সাংবাদিক এস এম হানিফ, প্রথম আলোর আনোয়ারা প্রতিনিধি মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন, ভোরের কাগজের আনোয়ারা প্রতিনিধি সুমন শাহ, আনোয়ারার বরুমছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, পেকুয়া উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম, পেকুয়া উপজেলা জাতীয় ছাত্রসমাজের সভাপতি আরমান বিন কাশেম।

১০ জানুয়ারি বুধবার বিকেল তিনটায় টূর্ণামেন্টের ৯ম খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এতে মুখোমুখি হবে পেকুয়া সদরের কামরান জাদিদ মুকুটের ম্যাগপাই বয়েজ ও শিলখালীর ছৈয়দ আলমের দ্যা বুলস্।

 

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri