কক্সবাজারে কিন্ডার গার্টেন বৃত্তির নামে খাতাকাটা ও কোচিং বাণিজ্য!

edu-primari-220150509141612.jpg

বিশেষ প্রতিবেদক(২৪ জানুয়ারী) :: কক্সবাজারে কিন্ডার গার্টেন বৃত্তির নামে খাতাকাটা ও কোচিং বাণিজ্য চলছেই।

যেখান থেকে বৃত্তির প্রচারণা চালানো হয়েছে সেখানে অস্থায়ি অফিসিয়াল কাজকারবার, কেন্দ্র, পরীক্ষার খাতা কাটা, কোচিং করানো থেকে শুরু করে ফলাফল প্রকাশও একই জায়গা থেকে করা হয়েছে। যেটি বলা হচ্ছে তা জেলা কিন্ডার গার্টেন বৃত্তির কথা! যা কিন্ডার গার্টেন বৃত্তির নিয়ম বহিভূত।

অভিযোগ রয়েছে, জামায়াত সর্মথিত এসোসিয়েশনটি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগসাজস করে সর্বশেষ কয়েক লাখ টাকার বৃত্তি ব্যবসা করেছে।

অভিভাবকরা অভিযোগ করেন, গিয়াস উদ্দিনের কোচিং বাণিজ্যের সাথে যে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রী অর্ন্তভুক্ত হননি তাদের বৃত্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে চরম অবমূল্যায়ন করা হয়েছে।

বৃত্তির ফলাফল প্রকাশে দেখা গেছে, যেসব শিক্ষার্থী হাজার/দুয়েক টাকা দিয়ে কোচিং করেছে তাদের ট্যালেন্টপুলে এবং বাকিদের সাধারণ গ্রেডসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে নামেমাত্র বৃত্তি দেয়া হয়েছে।

এদিকে শিশু শিক্ষার্র্থীদের দিয়ে কোচিং বাণিজ্য এবং বৃত্তি ব্যবসার ঘটনায় অভিভাবক মহলে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।

সচেতন অভিভাবকরা কিন্ডার গার্টেন বৃত্তির নামে এসব অনিয়ম রোধ করে কোচিং সেন্টার বাণিজ্য বন্ধ এবং উপরোক্ত অনিয়মের সাথে জড়িতদের তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক, জেলা শিক্ষা অফিসার ও দুদকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

চলবে..।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri