Home কক্সবাজার কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অজ্ঞাত রোগে আতংকিত অভিভাবক মহল : আরো এক এনজিও...

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অজ্ঞাত রোগে আতংকিত অভিভাবক মহল : আরো এক এনজিও কর্মীর মৃত্যু

25
SHARE

মোসলেহ উদ্দিন,উখিয়া(১৩ ফেব্রুয়ারি) :: কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্তের সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাশাপাশি আশংকাজনকভাবে মৃত্যুর হার বাড়ছে। সম্প্রতি ব্র‍্যাকের কর্মী এক মহিলা কর্মী সাবেকুন্নাহার ও এমএসএফ কর্মী নুরুল হাকিমের মৃত্যু ননিয়ে ররেশ কাটতে না কাটতে আবারো এক এনজিও কর্মীর  মৃত্যুর ঘটনায় প্রশাসনও সচেতন মহলকে ভাবিয়ে তুলেছে।

জানা যায়, শারমিন আক্তার দিপ্তি (১৮) নামক এক এনজিও কর্মী অজ্ঞাত রোগে মারা গেছে। ১২ ফেব্রুযারী সোমবার ভোর সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় সে।
দিপ্তী এনজিও সংস্থা ব্র্যাকের কর্মী হিসাবে কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাকরি করত। গত সপ্তাহে আরও একজন ব্র্যাকের কর্মী একই রোগে মারা যায়। উখিয়ার রত্মাপালং এলাকার ববাসিন্দা শারমিন আক্তার দিপ্তি গত কয়েক দিন ধরে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ে ।
তার রোগ সনাক্ত করতে পারছিল না স্থানীয় চিকিৎসকরা। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে সোমবার ভোর ৪টা সময় সে মৃত্যুর কোল ঢলে পড়ে।
রতনাপালং ইউনিয়নের রুহুল্লারডেবা গ্রামের আহমদ সোলতানের কন্যা শারমিন আক্তার দিপ্তি এনজিও ব্র্যাকের কর্মী হিসাবে কাজ করে আসছে। কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ব্র্যাক পরিচালিত শিশু বিকাশ শিক্ষা স্কুলে তিনি শিক্ষকতা করতেন ।
সচেতন সমাজের অভিযোগ ব্র্যাকের চাকরী জীবি কোন কর্মীর অসুস্থ হলে সু-চিকিৎসা বা খোঁজ খবর না নিয়ে চাকরিরস্থল থেকে বিনা চিকিৎসায় তাড়িয়ে দেয়।
এভাবে বিনা চিকিৎসায় গত কয়েক দিনে ২জন ব্র্যাকের মহিলা কর্মীর অকাল মৃত্যু হয়েছে। অজ্ঞাত এ রোগে আরো মেধাবী ও সম্ভাবনাময়ী প্রাণ হারানোর ভয়ে অভিভাবকরা শংখিত।
অভিভাবকরা জানান, রোহিঙ্গা অধ্যুষিত জনপদ উখিয়া-টেকনাফ এখন চরম বিপর্যয়ের মধ্যে রয়েছে। দ্রুত সময়ে এর বিহিত ব্যবস্থা সহ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জরুরী হয়ে পড়েছে।
উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: নিকারুজ্জামান রবিন বলেন, রোহিঙ্গাদের কারণে নানা সংক্রমিত রোগ প্রতিরোধে টিকাদানের ব্যবস্থা রয়েছে।এর পরও অনাকাংখিত মৃত্যু মেনে নেওয়া যায়না। জেনেছি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এনজিওতে কর্মরত ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি সংক্রমিত এলাকায় সবাইকে প্রতিশষধক টিকা প্রদানের উপর মাসিক সমন্বয় সভায় উত্তাপন করা হয়েছে।
SHARE