তুরস্কের বিরুদ্ধে লড়তে কুর্দি-সিরিয়া চুক্তি : যুদ্ধে নতুন মোড়

syria.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৯ ফেব্রুয়ারী) :: সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে সেনা ও বিভিন্ন জিনিসপত্র দিয়ে কুর্দি যোদ্ধাদের সহায়তায় তুরস্কের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী সহায়তা করবে বলে জানিয়েছে কুর্দি বাহিনীর জেষ্ঠ কর্মকর্তা বাদরান জিয়া কুর্দ। এ সম্পর্কিত একটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ইতোমধ্যেই স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ফলে যদি সত্যিই সিরিয়া সরকারের সাথে কুর্দিদের এ ধরনের কোনো চুক্তির ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে এ যুদ্ধ নতুন দিকে মোড় নিবে। একইসঙ্গে পরিস্থিতি আরো জটিল হয়ে উঠবে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞরা। খবর বিবিসি।

তবে কুর্দি বাহিনীর পক্ষ থেকে আসাদ বাহিনী সাহায্যের কথা বলা হলেও এখনও পর্যন্ত সরকারি বাহিনী থেকে এ সম্পর্কিত কোনো তথ্য নিশ্চিত করা হয়নি।

গত ২০ জানুয়ারি কুর্দি অধ্যুষিত আফরিনে ওয়াইপিজের অপারেশন অলিভ ব্রাঞ্চ নামের সামরিক অভিযান শুরু করে আঙ্কারা। তুরস্কের অভিযোগ সীমান্তে কুর্দিবাহিনীকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র একটি বিশেষ বাহিনী গড়ে তুলতে চায় যেটা তুরস্কের নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

ফলে তারা শক্তিশালী হওয়ার পূর্বেই ধ্বংস করে দিতে চায় দেশটি। সেই ধারাবাহিকতায় আফরিন থেকে রুশ সেনা ও সামরিক সরঞ্জাম প্রত্যাহার শুরুর পরপরই সেখানে কুর্দিদের অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা শুরু করে তুরস্ক।

এর পর গত ২১ জানুয়ারি আফরিনে তুর্কি সেনারাও ঢুকে পড়ে। সেদিনই ফ্রি সিরিয়ান আর্মি ঘোষণা দিয়েছে তাদের প্রায় ২৫ হাজার সেনা তুর্কি বাহিনীর সঙ্গে যোগ দিতে যাচ্ছে। সেই থেকে তারা কুর্দিদের বিরুদ্ধে ব্যাপক হামলা চালিয়ে আসছে।

তবে বর্তমানে সেখানে কোনো সিরীয় সেনা মোতায়েন করা নেই। ২০১২ সালে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদ দেশটির উত্তরাঞ্চলের কুর্দিস এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেয়। তারপর থেকে সেখানে কুর্দিরাই নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে।

কুর্দি বাহিনীর জেষ্ঠ কর্মকর্তা বাদরান জিয়া কুর্দ বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই আফরিনে সিরিয়ার সৈন্যরা প্রবেশ করতে পারে। তারা এখানে এসে সীমান্ত এলাকায় সৈন্য মোতায়েন করবে এবং কুর্দিদের সাহায্য করবে।

 

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri