৫ বিলিয়ন ডলারের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম রফতানির পরিকল্পনা ভারতের

indian-arms-export-logo.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৪ মার্চ) :: ভারত সরকার ডিফেন্স প্রোডাকশান পলিসি ২০১৮ এর খসড়া প্রস্তুত করেছে। এতে ২০২৫ সাল পর্যন্ত প্রতিরক্ষা কেনাকাটা ও সেবা বাবদ ২৬ বিলিয়ন ডলারের উচ্চাকাঙ্ক্ষী অর্থ ব্যায়ের পরিকল্পনা করা হয়েছে। একই সাথে আগামী সাত বছরে এ খাতের রফতানি ৫ বিলিয়ন ডলারে নেয়ার পরিকল্পনাও করা হয়েছে।

২০২৫ সালের মধ্যে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম ও সেবা বাবদ ২৬ বিলিয়ন ডলার ব্যায় করার পাশাপাশি আরও প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। দুই থেকে তিন মিলিয়ন মানুষের কর্মসংস্থানের জন্য এই অর্থ বিনিয়োগ করা হবে। ২০২৫ সালের মধ্যে প্রতিরক্ষা রফতানির পরিমাণ ৫ বিলিয়ন ডলারে নিয়ে যেতে এই বিনিয়োগ করা হবে। খসড়া নীতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

খসড়া নীতিমালা এ বছর থেকেই কার্যকরের কথা রয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নীতিমালায় প্রতিরক্ষা খাতে সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগের (এফডিআই) শর্ত আরও শিথিল করা হয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “প্রযুক্তি খাতে অটোমেটিক রুটে ৭৪% পর্যন্ত এফডিআই অনুমোদন দেয়া হবে।”

বর্তমানে উচ্চমানের প্রযুক্তি খাতে অটোমেটিক রুটে ৪৯% পর্যন্ত এফডিআই গ্রহণের নীতি রয়েছে ভারতের। কিন্তু এতে বিদেশী ফার্মগুলোর বিনিয়োগ আকর্ষণ করা সম্ভব হয়নি।

সরকারী তথ্য মতে, ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ কর্মসূচির অধীনে প্রতিরক্ষা খাতে এক মিলিয়ন ডলারেরও কম বিদেশী বিনিয়োগ পেয়েছে ভারত। ভারতকে উৎপাদন হাবে পরিণত করতে ২০১৫ সালে এ কর্মসূচি শুরু করা হয়।

Share this post

PinIt
scroll to top
bahis siteleri