izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

চকরিয়ায় প্রবাসির শিশুকন্যাকে ধর্ষণের চেষ্ঠা : বখাটে গ্রেপ্তার

rape-child-rape.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(২৫ এপ্রিল) :: চকরিয়ায় সাতবছর বয়সের প্রবাসির শিশু মেয়েকে গাছ থেকে আম নিয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে জঙ্গলে ঢুকিয়ে ধর্ষণ চেষ্ঠা করেছে আরিফুল ইসলাম (২০) নামের বখাটে যুবক। ওইসময় শিশুটির শোর-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে বখাটেকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। আক্রান্ত শিশু স্থানীয় নুরানী মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী।

মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের কোরবানীয়া ঘোনা এলাকার পাহাড়ে ঘটেছে এ ঘটনা। গ্রেফতারকৃত আরিফ ওই এলাকার সিরাজ ড্রাইভারের ছেলে।

বুধবার সকালে থানা পুলিশ গ্রেফতারকৃত বখাটে যুবককে চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করেন। ওইসময় বখাটে আরিফ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী।

হারবাং ইউনিয়ন পরিষদের ৯নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. ইসমাইল বলেন, ইউনিয়নের কোরবানীয়া ঘোনা এলাকার দুবাই প্রবাসির শিশু কন্যাটি মঙ্গলবার বিকালে তাদের বাড়ির উঠানে খেলা করছিলো। এসময় একই এলাকার সিরাজ ড্রাইভারের ছেলে বখাটে আরিফুল সেখানে এসে শিশুটিকে গাছ থেকে কাঁচা আম নিয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ির পাশর্^বর্তী জঙ্গলে নিয়ে যায়।

এরপর বখাটে আরিফ শিশুটিকে ধর্ষনের চেষ্ঠা চালালে শোর-চিৎকার শুরু করে শিশুটি। ওইসময় আশপাশের লোকজন চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে পৌঁছে শিশুটিকে উদ্ধার ও বখাটেকে আটক করে গনপিটুনী দিয়ে নিকটস্থ হারবাং ফাঁড়ির পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির আইসি (ইনর্চাজ) পরিদর্শক মো. আবুল কালাম বলেন, হারবাং কোরবানীয়া ঘোনা এলাকায় শিশুছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বখাটে আরিফকে ধরে জনতা আমাদেরকে খবর দেন। পরে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁেছ বখাটেকে গ্রেফতার করে থানায় প্রেরণ করি।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিশুটির মা আনোয়ারা জাহান বাদী হয়ে বখাটে আরিফের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

বুধবার বখাটে আরিফকে চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়।

ওসি বলেন, আদালতে বখাটে আরিফ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

Share this post

PinIt
scroll to top