izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

ইরানের ‘ধর্মনিরপেক্ষ’ শাসক রেজা শাহের মমির সন্ধান !

mummy-reza-shah.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৬ এপ্রিল) :: ইরানের রাজধানীর কাছে একটি মমির সন্ধান পাওয়া গেছে, যা ইসলামী বিপ্লবে ক্ষমতাচ্যূত দেশটির শেষ রাজা মোহাম্মাদ রেজা শাহের বাবা রেজা শাহ পাহলভির বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত সোমবার দক্ষিণ ইরানের শাহর-ই-রে নামের স্থানে একটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মাণের সময় নির্মাণ শ্রমিকরা মমির সন্ধান পায় বলে জানায় বিবিসি।

তেহরানের কালচার হেরিটেজ কমিটির চেয়ারম্যান বলেছেন, সম্ভবত সাবেক রাজারই হবে মমিটি।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছবি প্রকাশিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত রেজা শাহ পাহলভির নাতি রেজা পাহলভিও টুইটারে জানিয়েছেন, মমিটি রেজা শাহের বলেই তার যথেষ্ট ধারণা। এটিকে তার দাদার ধ্বংস হওয়া সমাধির পাশে সমাহিত করারও আহবান জানান তিনি।

রেজা পাহলভি একটি বিবৃতিপত্র পোস্ট করে বলেন, আধুনিক ইরানের শাসক কিংবা সাবেক রাজা হিসেবে নয়, সাবেক একজন সেনা কর্মকর্তা হিসেবে তাকে অন্তত সুপরিচিত কোনও স্থানে যেন সমাধিস্থ করা হয়।

১৯২৬ থেকে ১৯৪১ সাল পর্যন্ত দেশ শাসন করা রেজা শাহ পারস্যের আদিনাম ‘ইরান’ ফিরিয়ে আনেন। তার শাসনামলে দেশটিতে পশ্চিমা জীবনধারার প্রচলন শুরু হয়েছিল এবং ইসলাম ধর্ম পালনকে রীতিমতো কটাক্ষ করা হতো। পশ্চিমাদের কাছে তিনি ‘আধুনিক ইরানের’ ‘ধর্মনিরপেক্ষ’ শাসক হিসেবে বিবেচিত।

তেহরানের কাছে শেহর-ই-রে এলাকায়ই রেজা শাহের গম্বুজবিশিষ্ট সমাধি ছিল, যা ইসলামী বিপ্লবের পর গুড়িয়ে দেওয়া হয়। বিপ্লবের মধ্য দিয়ে শাহ রাজবংশের পতনের প্রায় চার দশক পর এই মমির সন্ধান মিলল।

১৯২১ সালে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন রেজা শাহ। তার ছেলে মোহাম্মাদ রেজা শাহের পশ্চিমাপন্থি সরকারকে উৎখাত করে ১৯৭৯ সালে আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ মুসাভী আল খোমেইনীর (রহ.) নেতৃত্বে ইরানে ইসলামী বিপ্লব সংঘটিত হয়।

রেজা শাহ ও তার ছেলে মোহাম্মাদ রেজা শাহের সময়ে রাজতান্ত্রিক সৌদি আরবের সঙ্গে সবচেয়ে ভালো সম্পর্ক ছিল ইরানের।

Share this post

PinIt
scroll to top