izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

বিকাশের ২০ শতাংশ শেয়ার কিনছে চীনা আলিবাবা গ্রুপ

bKash-Ant-Financial-.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৬ এপ্রিল) :: ব্র্যাক ব্যাংকের মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশের ২০ শতাংশ শেয়ার কিনছে চীনা বহুজাতিক কোম্পানি আলিবাবা গ্রুপ।

২৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে আলিবাবার অঙ্গ প্রতিষ্ঠান অ্যান্ট ফাইন্যান্সিয়ালের সঙ্গে বিকাশের চুক্তি সই হয়।

বিকাশের পক্ষে এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদির এবং অ্যান্ট ফাইন্যান্সিয়ালের পক্ষে এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ডগলাস ফেগান চুক্তিতে সই করেন।

চুক্তি সই অনুষ্ঠান শেষে ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (বিকাশ) সেলিম আর এফ হোসেন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এই তথ্য জানান।

আলিবাবার বাংলাদেশে বিনিয়োগকে ‘মাইলফলক’ হিসাবে আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ‘তারা অনেক বড় একটি কোম্পানি। তাদের প্রযুক্তি, প্রকৌশলসহ বিভিন্ন ধরনের সহায়তা আমরা পাব। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে বাংলাদেশে কৌশলগত বিনিয়োগে এগিয়ে এসেছে। এটা আমাদের অর্থনীতির ক্ষেত্রে অনেক বড় স্বীকৃতি।’

সেলিম আর এফ হোসেন আরও বলেন, ‘বিকাশের শেয়ারের ৫১ শতাংশ ব্র্যাক ব্যাংকের হাতেই থাকছে। বাকি ৪৯ শতাংশ শেয়ার মালিকদের মধ্যে মানি ইন মোশন (মিম), ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশন ও বিল অ্যান্ড মিলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের ছেড়ে দেওয়া শেয়ার থেকে ২০ শতাংশ পাবে আলিবাবা গ্রুপ।’

ব্র্যাক ব্যাংকের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা (সিএফও) আবদুল কাদের জোয়ার্দার বলেন, ‘বিল অ্যান্ড মিলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন বিকাশের প্রেফারেন্সিয়াল শেয়ারের মালিক। আর মিমের অংশ ৩৬.৫ শতাংশ এবং আইএফসির ১২.৫ শতাংশ। এর মধ্যে মিম প্রাথমিকভাবে এর ৫.৯ শতাংশ শেয়ার ছাড়ছে আলিবাবার কাছে। আর আইএফসি ছাড়ছে দুই শতাংশ। আলিবাবার পাওয়া বাকি শেয়ারগুলো আসবে প্রেফারেন্সিয়াল শেয়ার থেকে।’

ব্র্যাক ব্যাংকের বার্ষিক সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত অনুমোদিত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রথম ধাপে ১৬ শতাংশ শেয়ার পাচ্ছে আলিবাবা, পরে বাকি চার শতাংশ শেয়ার পাবে। ব্যাংকের প্রাইস সেনসিটিভ ইনফরমেশন (পিএসআই) অনুমোদন পাওয়ার পরই শেয়ার ছাড়ার বিষয়টি চূড়ান্ত হবে। পুরো কার্যক্রম শেষ হতে আরও ১৫ থেকে ১৮ মাস লাগতে পারে।’

এর আগে চুক্তি সই অনুষ্ঠানে অ্যান্ট ফাইন্যান্সিয়ালের নির্বাহী চেয়ারম্যান এরিক জিং বলেন, ‘বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অনেক দূর এগিয়েছে। আর বিশ্বের ৪০টি দেশের ৮০ কোটি গ্রাহককে সেবা দিয়ে যাচ্ছে অ্যান্ট ফাইন্যান্সিয়াল। প্রযুক্তির নতুন নতুন ফিচারগুলো এখানেও প্রসারিত করতে চাই।’ মোবাইলের পাশাপাশি অ্যাপ ও কিউআর কোডের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন চালু হলে গ্রাহকদের জন্য অনেক সহজ হবে বলে পরামর্শ দেন তিনি।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri