চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিফাইনালে রিয়াল-বায়ার্ন আগুন লড়াই

rlbm-1.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১ মে) :: খুব কঠিন কোনো সমীকরণ কি? রিয়াল মাদ্রিদকে ২ গোলের ব্যবধানে হারাতে পারলেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল। বায়ার্ন মিউনিখও তেমন কিছু করে দেখানোর স্বপ্নে বিভোর। একেবারে যে অসম্ভব, তাও নয়। দল হিসেবে বায়ার্ন ফাইনালে খেললে কেউ প্রশ্ন তুলবে, তাও নয়।

এত কিছুর পরও আজকের ম্যাচে ফেভারিট দলের নাম রিয়াল মাদ্রিদ। একে তো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিফাইনাল, তার ওপর আগের ম্যাচে বায়ার্নের বিপক্ষে তাদের ১-২ গোলের জয়। দুদলের সাম্প্রতিক লড়াইও কথা বলছে বায়ার্নের বিপক্ষে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা ছয় ম্যাচে বায়ার্নকে হারিয়েছে রিয়াল। খেলাও হবে আবার রিয়ালের ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুয়ে।

বায়ার্নের চেয়ে ফাইনালে ওঠার পাল্লাটা তাই রিয়ালের দিকেই বেশি হেলে আছে। পাশাপাশি টানা তিন শিরোপা জেতার হাতছানিও আছে ‘লস ব্লাঙ্কোস’দের সামনে। বায়ার্নকে ফাইনালে খেলতে হলে বরং অসামান্য কিছুই করে দেখাতে হবে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগকে নিজেদের অধিকার বানিয়ে ফেলা রিয়ালের মুখ থেকে কেড়ে নিতে হবে গ্রাস। ম্যাচ শুরু হবে আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে।

বার্নাব্যুতে এ মৌসুমে সেভাবে আলো ছড়াতে পারেনি রিয়াল। শুরুর দিকে ঘরের এ মাঠই ‘বিভীষণ হয়ে উঠেছিল রিয়ালের জন্য। কিন্তু সেসব ভুলে এবার এ মাঠেই মৌসুমের সেরা পারফরম্যান্স নিয়ে হাজির হতে চান রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান। বলেছেন, ‘এটা অনেক বড় ম্যাচ। আমাদের সব সময়ের চেয়ে ভালো খেলতে হবে। নিজেদের প্রস্তুতি সেরে নিয়েছি। আমরা বছরের সেরা ম্যাচটি এবার খেলতে চাই।’

প্রথম লেগে ‘বিবিসি’ত্রয়ীর দুই ‘বি’ বেনজেমা ও বেলকে দর্শক বানিয়ে রেখেছিলেন জিদান। এ দুজনের পরিবর্তে খেলিয়েছেন দুই তরুণ লুকাস ভাসকেস ও মার্কো অ্যাসেনসিওকে। এ নিয়ে কথাও হয়েছে অনেক। তবে বস জিদানে পূর্ণ আস্থা আছে অধিনায়ক রামোসের, ‘যখন জিজু বাজি ধরতে চান, তিনি তা ধরতে পারেন। কারণ তিনি দলের বস। তার নেতৃত্বে আমরা সবাই খুশি।’

এ ম্যাচে চোটের কারণে নাও খেলতে পারেন ইসকো ও কারভাহাল। এ নিয়ে জিদান, ‘দুজন খেলোয়াড়কে হারানো সব সময় ক্ষতিকর। কিন্তু এটা নিয়ে আমাদের কিছুই করার নেই।’

তবে সবকিছুর বাইরে এ ম্যাচেও চোখ থাকবে ‘কিং অব ইউরোপ’খ্যাত রোনালদোর ওপর। ১১ ম্যাচে টানা গোল করার পর গত ম্যাচে গোল পাননি ‘সিআর সেভেন’। চলতি আসরে তার গোল ১৫টি। ঘরের মাঠে আবারো তাকে গোল করতে দেখার অপেক্ষায় এখন রিয়াল সমর্থকরা। আর রিয়াল যদি মৌসুমের সেরা ম্যাচ খেলে, তবে রোনালদোকে তো গোল করতেই হবে। রোনালদো জ্বলে উঠলে বায়ার্নের ঘুরে দাঁড়ানোর আশা যে ধুলোয় লুটাবে, তা বলাই বাহুল্য।

বায়ার্ন তারকা ফ্রাঙ্ক রিবেরি অবশ্য ভিন্ন কিছু ভাবছেন। এত সহজে হাল ছেড়ে দিতে নারাজ এ ফ্রেঞ্চম্যান। সাবেক ফ্রেঞ্চ জেনারেল ও প্রধানমন্ত্রী চার্লস দ্য গলের একটি উক্তি টুইট করেছেন তিনি— ‘একটি লড়াইয়ে আমরা হেরেছি, কিন্তু যুদ্ধ এখনো শেষ হয়নি।’ বোঝাই যাচ্ছে, রিয়ালের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়াতে কতটা মরিয়া রিবেরি! মাদ্রিদে নিজেদের সুযোগ কাজে লাগাতে চান বলেও জানান তিনি। চোট কাটিয়ে ফেরা ডেভিড আলাভা বলেছেন, ‘আমরা নিজেদের সবকিছু দিয়ে লড়াই করব।’

লিভারপুলের বিপক্ষে খেলতে নামবে এএস রোমা

রিয়াল-বায়ার্ন ম্যাচের একদিন পর একই সময়ে রোমে মিরাকল ঘটানোর সম্ভাবনা নিয়ে লিভারপুলের বিপক্ষে খেলতে নামবে এএস রোমা। আগের ম্যাচে লিভারপুলের মাঠ অ্যানফিল্ডে গিয়ে সালাহ-ফিরমিনোদের কাছে ২-৫ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে এসেছে রোমা। ৫-০ গোলে পিছিয়ে থাকা রোমার আশা একরকম শেষ হওয়ার পথেই ছিল, যদি না শেষমুহূর্তে দুই গোল শোধ না হতো।

সেদিনের শেষ ১০ মিনিটকেই আজ ফিরিয়ে আনতে চাইবে ‘ইয়েলো রেডস’খ্যাত দলটি। আর অনুপ্রেরণা হিসেবে বার্সেলোনার বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ তো আছেই। ন্যু ক্যাম্পের ৩ গোলের ঋণ নিয়ে রোমে খেলতে নেমেছিল তারা। কিন্তু অসাধারণ নৈপুণ্যে সেই ঋণ শোধ করে ৩৪ বছর পর সেমিফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে ইতালির ক্লাবটি। তবে লিভারপুলের বিপক্ষে কাজটা মোটেই সহজ হবে না।

দুরন্ত ফর্মে থাকা লিভারপুল তারকা মোহাম্মদ সালাহ হয়ে উঠতে পারেন রোমার পথের কাঁটা। সন্দেহ নেই, এগিয়ে থাকলেও লিভারপুল বস ইয়ুর্গেন ক্লপ এ ম্যাচেও চিরায়ত অলআউট অ্যাটাকে দলকে খেলাবেন। সে আক্রমণ সামলে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ার চ্যালেঞ্জটা কিন্তু মোটেই সহজ হবে না ইউসেবিউ ডি ফ্রান্সিসকোর দলের জন্য।

Share this post

PinIt
scroll to top