izmir escort telefonlari
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam

পেকুয়ায় জেল ফেরত যুবলীগ নেতাকে সংবর্ধনা

Pekua-news.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(২ মে) :: পেকুয়ায় জেল ফেরত যুবলীগ নেতা মির্জা বাহাদুরকে সংবর্ধিত করল সর্বস্তরের জনতা। ২ মে বিকেলে পেকুয়া কবির আহমদ চৌধুরী বাজারে এ সংবর্ধনা আয়োজন করে যুবলীগ পেকুয়া উপজেলা শাখা।

এ সময় তার আগমন উপলক্ষে যুবলীগ সংবর্ধনার উদ্যোগ নেয়। প্রায় অর্ধশতাধিক যানবাহন নিয়ে নেতা-কর্মীরা সড়ক প্রদক্ষিন করে। ওই দিন বিকেলে চকরিয়ার নতুন রাস্তার মাথা থেকে তাকে বরণ করা হয়। শ্লোগানে মুখরিত নেতা-কর্মীরা চকরিয়া থেকে সড়কপথে তাকে পেকুয়ায় নিয়ে আসে।

এ সময় শত শত উৎফুল্ল ও প্রানোচ্ছল নেতা-কর্মীরা সড়কে শ্লোগান ধরে। মির্জা বাহাদুর যুবলীগ বারবাকিয়া ইউনিয়ন শাখার গুরুত্বপূর্ন পদে আসীন।

সুত্র জানায়, গত ১ মাস আগে তিনি জেলে যায়। স্থানীয়রা জানায়, মির্জা বাহাদুর আওয়ামী রাজনীতির অন্যতম কর্মী। তিনি বার বার মিথ্যা মামলায় কারাবরন করছেন।

ওই দিন তার সংবর্ধনায় উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ পেকুয়া উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ বারেক, যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক জালাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হক চৌধুরী, সিনিয়র সদস্য হুসাইন মোহাম্মদ বাদশা, সদস্য মনছুর আলম, যুব নেতা জয়নাল, মহিউদ্দিন, আবুল কাসেম, ছাত্রলীগ সভাপতি কফিল উদ্দিন বাহাদুর, ছাত্রলীগ সহসভাপতি মোহাম্মদ জকরিয়া, যুগ্ম সম্পাদক আমিনুর রশিদ, ছাত্রলীগ নেতা নিশান, শাহজাহান মিয়া, মনছুর আলম নানক, মামুন, সালাহ উদ্দিন, ইমরুল হাসান, পারভেজ, সোহেল, হানিফ, ফারুক, জাহেদ, মোক্তার প্রমুখ।

উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ বারেক জানায়, মির্জা বাহাদুর ১ জন প্রতিবাদী নেতা।

আন্দোলন সংগ্রামে তারা অগ্রভাগে থাকে। তবে এ ধরনের সাহসী সংগ্রামী নেতৃত্বকে মিথ্যা মামলায় হয়রানি চলছে। তবে আমরা অপশক্তির এ ধরনের চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রকে ভয় পায় না। মনে রাখতে হবে আমরা এ ধরনের সাহসী নেতা-কর্মীদের পাশে আছি ও থাকব।

Share this post

PinIt
scroll to top
bedava bahis bahis siteleri
bahis siteleri