কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া যা বললেন

pp.jpg

কক্সবাংলা রিপোর্ট(২১ মে) :: কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে এসে মিয়ানমারের আগ্রাসনকে শোষণের ভয়াবহ চিত্র হিসেবে অভিহিত করেছেন ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত এবং বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

সোমবার রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেন: ‘আমি আজ কক্সবাজারে আছি। ইউনিসেফের ফিল্ড ভিজিটে বিশ্বের সর্ববৃহৎ শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করছি। ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে জাতিগত নিধন ও শোষণের ভয়াবহ চিত্র দেখেছে বিশ্ব। এ ঘটনায় প্রায় সাত লক্ষ রোহিঙ্গা সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। যার প্রায় ৬০ শতাংশই শিশু!

অনেক মাস পরেও তারা অত্যন্ত দুর্বল। তারা গাদাগাদি করে বসবাস করছে। তারা জানে না এ অবস্থার উন্নতি কবে হবে। কতদিন তাদের এভাবে বসবাস করতে হবে। অবস্থা এতটাই খারাপ যে, তারা জানে না কখন তারা পরবর্তী খাবার পাবে।

অবশেষে তারা বসতি স্থাপন করতে পেরেছে এবং নিজেদের নিরাপদ ভাবতে শুরু করেছে। তাদের ধ্বংস করার হুমকি নিয়ে বর্ষার মৌসুম ঘনিয়ে আসছে। একটি প্রজন্ম তাদের সামনে কোনো ভবিষ্যৎ দেখতে পারছে না।

এমন মানবিক সংকটে নিদারুণভাবে আমাদের সাহায্য তাদের খুব প্রয়োজন। এই শিশুদের প্রতি সারা বিশ্বেরই যত্ন প্রয়োজন। এই বাচ্চারা পৃথিবীর ভবিষ্যৎ। তাদেরকে সমর্থন দিন।”

এর আগে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে সোমবার সকালে ফ্রান্স থেকে ঢাকায় আসেন তিনি। বর্তমানে কক্সবাজারে অবস্থান করছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনে বাংলাদেশে এসেছেন ‘ফ্যাশন’ খ্যাত এই অভিনেত্রী।

Share this post

PinIt
scroll to top